Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

এসইউসি প্রার্থীকে হেনস্থার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

নিজস্ব সংবাদদাতা
জীবনতলা  ৩০ এপ্রিল ২০১৪ ০১:৩৯

এসইউসি-র প্রচার মিছিলে হামলা চালিয়ে প্রার্থীকে হেনস্থা, ধাক্কাধাক্কির অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার ঘটনাস্থল দক্ষিণ ২৪ পরগনার জীবনতলা থানার ঘুটিয়ারিশরিফের ধোঁয়াঘাটা।

এ দিন বেলা সাড়ে ১০টা নাগাদ কিছু কর্মী-সমর্থককে নিয়ে প্রচারে বেরিয়েছিলেন জয়নগরের এসইউসি প্রার্থী তরুণ মণ্ডল। তাঁর অভিযোগ, তৃণমূলের লোকজন বিনা প্ররোচনায় হামলা চালায় মিছিলে। গালিগালাজ করা হয়। শুরু হয় ধাক্কাধাক্কি। তরুণবাবুকেও ধাক্কা দেয় তৃণমূলের লোকজন। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। নির্বাচন কমিশনকে ঘটনার কথা জানিয়েছেন তরুণবাবু। সপ্তাহ খানেক আগে জীবনতলার দেউলিবাজারেও এসইউসি-র প্রচার মিছিলে তৃণমূল বাধা দেয় বলে অভিযোগ উঠেছিল। ওই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছিল ৭ তৃণমূল কর্মী-সমর্থককে।

মঙ্গলবারের ঘটনা প্রসঙ্গে তরুণবাবু বলেন, “আমাদের সঙ্গে প্রচুর মানুষ আসছেন। তা দেখে তৃণমূল ভয় পেয়ে বার বার এমন কাণ্ড ঘটাচ্ছে। এ বার তো আমাকেও হেনস্থা করা হল।” তরুণবাবুর অভিযোগ, নারায়ণপুর পঞ্চায়েতের প্রধান তৃণমূলের সালাউদ্দিন সর্দারের নেতৃত্বে হামলা চালিয়েছে শাসক দলের লোকজন।

Advertisement

হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে ক্যানিং ২ ব্লকের তৃণমূল সভাপতি সওকত মোল্লা বলেন, “এসইউসি-র প্রার্থী লোকজন নিয়ে ব্যক্তি মালিকানাধীন একটি দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে প্রচার করছিলেন। দোকানের মালিক তাতে আপত্তি জানান। খেপে গিয়ে এসইউসি-র লোকজন গালিগালাজ শুরু করে। আমাদের ছেলেরা জানতে পেরে প্রতিবাদ করায় ধাক্কাধাক্কি করে এসইউসি-র লোকজন। এসইউসি প্রার্থী আমাদের পার্টি অফিসের সামনে দাঁড়িয়ে প্ররোচনামূলক কথাবার্তাও বলছিলেন। সে সব থেকেই বচসা বাধে। তবে প্রার্থীকে ধাক্কাধাক্কি করেনি কেউ।” তৃণমূলের এই দাবি অবশ্য মানতে নারাজ এসইউসি। তরুণবাবু বলেন, “ওরা মিথ্যা কথা বলছে। আমরা কোনও প্ররোচনামূলক কথাবার্তা বলিনি।”

পুলিশ জানিয়েছে দোকান মালিকের বক্তব্য, অনুমতি ছাড়াই কেন তাঁর দোকানের সামনে প্রচার চালানো হবে। এই মর্মে তিনি অভিযোগ করেছেন পুলিশের কাছে। এসইউসি এবং তৃণমূলের তরফেও পৃথক অভিযোগ দায়ের হয়েছে থানায়। গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জািনেয়ছেন পুলিশ কর্তারা। প্রার্থীকে হেনস্থার অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের স্থানীয় আধিকারিকেরা। এ দিন অবশ্য পুলিশি নিরাপত্তায় তরুণবাবু ওই এলাকায় পরে প্রচার সারেন।

আরও পড়ুন

Advertisement