Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৫ অক্টোবর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ঘন কুয়াশা, বাগডোগরা থেকে কলকাতায় ফিরল ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর উড়ান

কুয়াশায় রানওয়ে ঢেকে থাকায় বাগডোগরার আকাশ থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে ফিরতে হল ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে-কে। একই কারণে শনিবার কলকাতা বিমা

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৯ জানুয়ারি ২০১৬ ১৮:৩২
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

কুয়াশায় রানওয়ে ঢেকে থাকায় বাগডোগরার আকাশ থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে ফিরতে হল ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে-কে। একই কারণে শনিবার কলকাতা বিমানবন্দর থেকে মুম্বইগামী স্পাইসজেটের উড়ান নির্দিষ্ট সময়ে ছাড়ল না।

বিশ্ববাংলা বাণিজ্য সম্মেলনে কলকাতায় এসেছেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী। শনিবার কলকাতা বিমানবন্দর থেকে একটি বেসরকারি সংস্থার উড়ানে বাগডোগরা বিমানবন্দরে পৌঁছনোর কথা ছিল ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর। সেখান থেকে সড়কপথে মালবাজার হয়ে ভুটানে যাওয়ার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু ঘন কুয়াশার কারণে প্রধানমন্ত্রীর যাত্রা বাতিল হয়ে যায়।

বাগডোগরা বিমানবন্দর সূত্রে জানানো হয়েছে, এ দিন দুপুর তিনটে নাগাদ বেসরকারি সংস্থার উড়ানটি বাগডোগরা বিমানবন্দরের উপরে এসে দু’বার চক্কর কাটে। সেই সময় কুয়াশায় ঢাকা ছিল গোটা রানওয়ে চত্বর। সেই কারণে বিমানের ককপিট থেকে রানওয়ে দেখতে পাচ্ছিলেন না পাইলট। এই অবস্থায় বেশ কিছু ক্ষণ আকাশেই চক্কর কেটে বিমান কলকাতায় ফিরে আসে।

Advertisement

বিমানবন্দর সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রী নামবেন বলে বিমানবন্দরে কড়া নিরাপত্তা ছিল। শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মা বলেন, ‘‘ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর যে বিমানে আসার কথা ছিল, সেটি কুয়াশার কারণে আকাশ থেকেই ফিরে গিয়েছে।’’ রবিবার কলকাতা থেকে সরাসরি থিম্পুর উড়ান ধরার কথা শেরিং তোবগের।

এ দিন কুয়াশার কারণে কলকাতা বিমানবন্দরে গিয়েও সময়ে গন্তব্যস্থলে পৌঁছতে পারলেন না স্পাইসজেটের ১২০ জন যাত্রী। বিমানবন্দর সূত্রের খবর, সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে কলকাতা বিমানবন্দর থেকে ছাড়ার কথা ছিল মুম্বইগামী স্পাইসজেটের একটি উড়ান। যাত্রীরা সেইমতো হাজির হন। তাঁদের অভিযোগ, বোর্ডিং কার্ড হয়ে যাওয়ার পরে তাঁরা জানতে পারেন, বিমান ছাড়বে ঘণ্টাখানেক পরে।

বিমান সংস্থার দাবি, কুয়াশার জন্য বিমান ছাড়তে দেরি হয়েছে। যাত্রীদের পাল্টা বক্তব্য, তা হলে অন্যান্য বিমান সংস্থার উড়ান ওঠানামা করল কী করে? এই নিয়ে তাঁরা কথা বলতে চাইলে বিমান সংস্থার কেউ সাড়া দেননি। সংস্থার কাউন্টারেও তাঁদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়েছে বলে অভিযোগ। তাঁরা আরও জানান, দুর্ভোগের এখানেই শেষ নয়। যাত্রীরা বিমানবন্দর থেকে বেরোতে চাইলে নিরাপত্তা কর্মীরা জানান, যে হেতু বোর্ডিং কার্ড হয়ে গিয়েছে, তাই বিমানবন্দরের বাইরে যাওয়া যাবে না। পরে, সিআইএসএফ কর্মীদের সহযোগিতায় অবশ্য যাত্রীরা বাইরে বেরিয়ে এয়ারপোর্ট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

বিমানবন্দর সূত্রে খবর, শনিবার ভোর ৫টা নাগাদ কুয়াশার কারণে বিমান অবতরণে সমস্যা হয়েছিল কলকাতা বিমানবন্দরে। এয়ার ইন্ডিয়া সমেত আরও তিনটি বেসরকারি সংস্থার একটি করে বিমান এবং ইন্ডিগোর পাঁচটি বিমান দেরিতে ছাড়ে। স্পাইসজেটের ব্যাঙ্কক থেকে আসা বিমান কলকাতা বিমানবন্দরে অবতরণ করতে না পেরে গুয়াহাটি চলে যায়। ওই বিমানটিরই মুম্বইয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement