×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

যুবকের রহস্যমৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য তারকেশ্বরে, আটক বন্ধু এবং বন্ধুর স্ত্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা
তারকেশ্বর৩০ নভেম্বর ২০২০ ১৭:৫৯
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল তারকেশ্বরের জয়নগর এলাকায়। মৃতের বাবার দাবি, তাঁর ছেলেকে খুন করা হয়েছে। তদন্তে নেমে পুলিশ আটক করেছে মৃত যুবকের এক বন্ধু এবং বন্ধুর স্ত্রীকে। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই এই মৃত্যু বলেও অভিযোগ উঠছে। মৃতের নাম দেবাশিস পাল।

তারকেশ্বরের হরিপাল মোড়া গ্রামের বাসিন্দা দেবাশিস (২৮)। রবিবার রাত্রে জয়নগর এলাকার একটি মাঠে তাঁর দেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় তারকেশ্বর থানার পুলিশ। দেহে আঘাতের কোনও চিহ্ন ছিল না বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে। তারকেশ্বর থানার তরফে জানানো হয়েছে, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হতে পেলেই মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত করে কিছু বলা সম্ভব।

দেবাশিস পেশায় মার্বেল মিস্ত্রি। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে খবর, দীর্ঘ দিন ধরে তিনি জয়নগরের বাসিন্দা তাপস দলুইয়ের সঙ্গে কাজ করতেন। তাপসের বাড়িতে নিয়মিত যাতায়াতের সুবাদে তাপসের স্ত্রী অনিতার সঙ্গে দেবাশিস বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন বলে অভিযোগ। অনিতা এবং দেবাশিসের সম্পর্কের কথা জানতে পেরে যান তাপস। এই নিয়ে তাপসের সংসারে অশান্তি চলছিল।

Advertisement

রবিবার সন্ধ্যায় দেবাশিস অনিতার সঙ্গে দেখা করতে তাঁর বাড়িতে যান। এর পর রাত ১১টা নাগাদ দেবাশিসের মৃতদেহ পড়ে থাকার খবর যায় তারকেশ্বর থানায়। তদন্তে নেমে পুলিশ তাপস ও তাঁর স্ত্রী অনিতাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। যুবকের বাবা ভগবান পালের অভিযোগ, ছেলেকে খুন করা হয়েছে।

অনিতার দাবি, দেবাশিসের মামাবাড়ি জয়নগরে। তাঁর মায়ের চোখ অপারেশন হওয়ার পর মা মামাবাড়িতেই ছিলেন। সেখানে মায়ের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন দেবাশিস। তার আগে দেবাশিস তাঁর সঙ্গে দেখা করেন বলেও দাবি করেছেন অনিতা।

Advertisement