Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সংস্কারের দাবি তুলে রাস্তা বন্ধ করে দিলেন বাসিন্দারা

রাস্তা সারানোর দাবি তুলে যাতায়াতের রাস্তাই বন্ধ করে দিলেন গ্রামের মানুষ। মাত্র সাত মাস আগে উলুবেড়িয়া পুরসভার সিজবেড়িয়া এলাকায় তৈরি হয়েছিল কং

নিজস্ব সংবাদদাতা
উলুবেড়িয়া ২৬ ডিসেম্বর ২০১৪ ০০:৫৭
Save
Something isn't right! Please refresh.
সিজবেড়িয়ায় বাঁশ দিয়ে আটকে দেওয়া হয়েছে পথ। ছবি: সুব্রত জানা।

সিজবেড়িয়ায় বাঁশ দিয়ে আটকে দেওয়া হয়েছে পথ। ছবি: সুব্রত জানা।

Popup Close

রাস্তা সারানোর দাবি তুলে যাতায়াতের রাস্তাই বন্ধ করে দিলেন গ্রামের মানুষ।

মাত্র সাত মাস আগে উলুবেড়িয়া পুরসভার সিজবেড়িয়া এলাকায় তৈরি হয়েছিল কংক্রিটের ঢালাই রাস্তা ও নিকাশি নালা। কিন্তু কয়েক মাস যেতে না যেতেই নিকাশি নালার উপরের স্ল্যাবগুলি ভেঙে চুরে বেহাল। স্ল্যাবের ভাঙা অংশ নিকাশি নালার মধ্যে পড়ায় ব্যাহত হচ্ছে নিকাশি। পাশাপাশি রাস্তার অবস্থাও খারাপ হওয়ায় চলাফেরা করতে গিয়ে দুর্ঘটনায় পড়তে হচ্ছে পথচারীদের। আর তাই রাস্তা সারানোর দাবি তুলে গত ৩-৪ ধরে রাস্তা আটকে যাতায়াত বন্ধ করে দিয়েছেন গ্রামের মানুষ।

পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি বছরের এপ্রিল-মে মাস নাগাদ সিজবেড়িয়ার নারকেলতলা থেকে সানরাইজ ক্লাব পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা ও নিকাশি নালা তৈরি করা হয়। এ জন্য খরচ হয় প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা। কিন্তু স্থানীয় বাসিন্দা ও পথচারীদের অভিযোগ, নিকাশি নালার উপরে যে সব কংক্রিটের স্ল্যাব ঢাকা দেওয়া হয়েছিল সেগুলি অত্যন্ত নিম্নমানের। ফলে তৈরির কয়েক মাসের মধ্যে ভেঙেচুরে নিকাশি নালায় পড়ে গিয়েছে। এর ফলে যেমন জলনিকাশি ব্যাহত হচ্ছে, তেমনই খোলা নিকাশি নালায় দুর্ঘটনা ঘটছে। পড়ে গিয়ে হাতে-পায়ে চোট পাচ্ছেন পথচারীরা।

Advertisement

এলাকার মানুষের অভিযোগ, পুরসভাকে এ সব জানানো হলেও কোনও কাজ হচ্ছে না। একই অবস্থা সদ্য তৈরি কংক্রিটের রাস্তারও। বহু জায়গাতেই কংক্রিট ভেঙে গিয়ে গর্ত তৈরি হয়েছে। দূরত্ব কমাতে এই রাস্তা দিয়েই ওটি রোডে বা ৬ নম্বর জাতীয় সড়কে যাতায়াত করেন স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রী থেকে বহু মানুষ। খারাপ রাস্তার কারণে দুর্ঘটনাও ঘটছে অহরহ। নিম্নমানের জিনিস দিয়ে নির্মাণকাজের পাশাপাশি পুরসভার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগও উঠেছে। রাস্তা সারানোর দাবিতে এলাকার মানুষ রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় সমস্যা আরও বেড়েছে।

কর্মসূত্রে রোজই এই রাস্তা দিয়ে গিয়ে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কে বাস ধরে কালকাতায় যান অশনি ভাদুড়ি। তাঁর কথায়, “সদ্য তৈরি কংক্রিটের রাস্তা যে ভাবে কয়েক মাসের মধ্যে ভেঙে যাচ্ছে, তাতেই বোঝা যায় কেমন জিনিস দিয়ে রাস্তা তৈরি হচ্ছে। দুর্নীতির অভিযোগ যে উঠবে তাতে আর আশ্চর্য কি?

পুরসভার বর্তমান প্রশাসক তথা মহকুমাশাসক (উলুবেড়িয়া) নিখিল নির্মল বলেন, “সমস্যা সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।” পুরসভার প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা সাবিরুদ্দিন মোল্লা বলেন, “তৃণমূলের আমলে পুরসভা দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হয়েছে। অবিলম্বে এর বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।”

ওই এলাকার দুই কাউন্সিলার আব্বাসউদ্দিন খান ও শুক্লা ঘোষ দুর্নীতির অভিযোগ মানতে নারাজ। তাঁদের বক্তব্য, “যে সব জায়গায় নিকাশি নালার উপরে কংক্রিটের স্ল্যাব ভেঙে গিয়েছে সেগুলি সারানোর জন্য ইতিমধ্যেই ঠিকাদারকে বলা হয়েছে। শীঘ্রই সমস্যা মিটে যাবে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement