Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

বৃদ্ধকে হেনস্থা, প্রতিবাদ করায় মার

নিজস্ব সংবাদদাতা
১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ০২:৩৩
—প্রতীকী চিত্র।

—প্রতীকী চিত্র।

বৃদ্ধকে হেনস্থার প্রতিবাদ করায় কাউন্সিলরের ছেলেকে মারধরের অভিযোগ উঠল। রবিবার দুপুরে জোড়াসাঁকো থানা এলাকার মুক্তারামবাবু স্ট্রিটের ঘটনা। সোমবার রাত পর্যন্ত এই ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, রবিবার দুপুরে একটি স্বাস্থ্য-ক্লিনিকের সামনে খেলছিল স্থানীয় ১০-১৫ জন যুবক। ক্লিনিকের ম্যানেজার, বৃদ্ধ রামঅবতার মুন্দ্রা তাদের খেলতে নিষেধ করেন। রামঅবতারের কথায়, ‘‘রোগীরা আসা যাওয়া করছিলেন। তা ছাড়া পাশাপাশি বাড়ি থাকায় বলের আঘাতে যে কোনও মুহূর্তে বড় বিপদের সম্ভাবনা ছিল। তাই নিষেধ করেছিলাম।’’ তাঁর অভিযোগ, ‘‘যুবকেরা উল্টে তর্ক জুড়ে দেয়। কটূক্তিও করে। তখন রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন কলকাতা পুরসভার ২০ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর, বিজয় উপাধ্যায়ের ছেলে অভিষেক। তিনি প্রতিবাদ করলে উল্টে তাঁকে মারধর করে ওই যুবকরা।’’

পুলিশ সূত্রের খবর, জনা দশেক যুবক অভিষেকবাবুকে রাস্তায় ফেলে কিল, ঘুষি মারতে থাকে। তাঁর সোনার হারও ছিনতাই করে নেওয়া হয় বলে থানায় অভিযোগে জানিয়েছেন অভিষেক। রামঅবতারবাবু জানান, ক্লিনিকের কয়েক জন মিলে আটকাতে গেলে ওই যুবকেরা উল্টে তাঁদেরও মারতে যায়। প্রায় পাঁচ মিনিট ধরে এই তাণ্ডব চলার পরে পালায় যুবকেরা। ছেলেকে মারধরের কথা শুনে ঘটনাস্থলে পৌঁছন তৃণমূল কাউন্সিলর বিজয় উপাধ্যায়। অভিষেককে স্থানীয় একটি বেসরকারি চিকিৎসাকেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হয়।

Advertisement

রাতে অভিষেকবাবু অজ্ঞাতপরিচয় যুবকদের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ দায়ের করেন। পাশাপাশি রামঅবতারবাবুও ওই যুবকদের বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ করেন। কাউন্সিলর বিজয়বাবু বলেন, ‘‘এক জন বৃদ্ধকে হেনস্থা হতে দেখে রুখে দাঁড়িয়েছিল আমার ছেলে। সেই জন্যই ওকে মারধর করে করে ওই যুবকেরা।’’ লালবাজারের এক কর্তা বলেন, ‘‘ঘটনার তদন্ত চলছে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement