Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

নিরাপত্তা নেই মেয়েদের, বিজেপি সরব মগরাহাটে

রাজ্যে নারী নিরাপত্তার প্রশ্নে মমতা সরকারের উপর চাপ বাড়াতে মগরাহাটে অবস্থান চালিয়ে যাচ্ছে বিজেপি। এমনকী, রাজ্যের তৃণমূল সরকারের হাতে মহিলাদ

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২০ জুলাই ২০১৫ ০৩:০৮
বিজেপির প্রতিবাদ। অবস্থান মঞ্চে (বাঁ দিক থেকে) রীতেশ তিওয়ারি, শমীক ভট্টাচার্য, সিদ্ধার্থনাথ সিংহ, রাহুল সিংহ এবং জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার মগরাহাটে। ছবি: দিলীপ নস্কর।

বিজেপির প্রতিবাদ। অবস্থান মঞ্চে (বাঁ দিক থেকে) রীতেশ তিওয়ারি, শমীক ভট্টাচার্য, সিদ্ধার্থনাথ সিংহ, রাহুল সিংহ এবং জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার মগরাহাটে। ছবি: দিলীপ নস্কর।

রাজ্যে নারী নিরাপত্তার প্রশ্নে মমতা সরকারের উপর চাপ বাড়াতে মগরাহাটে অবস্থান চালিয়ে যাচ্ছে বিজেপি। এমনকী, রাজ্যের তৃণমূল সরকারের হাতে মহিলাদের যে নিরাপত্তা বলে কিছু নেই, মগরাহাটের দৃষ্টান্ত ব্যবহার করে সেই বিষয়টিকে আগামী বছরের বিধানসভা নির্বাচনে প্রচারের হাতিয়ার করার সিদ্ধান্তও নিয়েছেন বিজেপি-র কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

মগরাহাটের এনায়েতপুর খাঁপুর থেকে নিখোঁজ ওই কিশোরীকে অপহরণ করা হয়েছে ও তাকে উদ্ধারের ব্যাপারে নিষ্ক্রিয়— এই অভিযোগে দক্ষিণ ২৪ পরগনার মগরাহাট থানার সামনে বৃহস্পতিবার থেকে অবস্থান-বিক্ষোভ শুরু করেছেন বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি রাহুল সিংহ, দলের নেতা রীতেশ তিওয়ারি, কৃশানু মিত্র প্রমুখ। দলের কেন্দ্রীয় সম্পাদক তথা রাজ্যের সহ পর্যবেক্ষক সিদ্ধার্থনাথ সিংহ রবিবার সেখানে হাজির হয়ে অভিযোগ করেন, ‘‘গোটা দেশেই মগরাহাটের ঘটনা নিয়ে চর্চা হচ্ছে। এখানে এক জন নাবালিকা অপহৃত হয়েছে। কিন্তু পুলিশ অপহরণকারী বা অপহৃত— কাউকেই খুঁজে বের করতে পারেনি। অপহরণকারীরা তৃণমূলের সঙ্গে যুক্ত বলেই পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ভয় পাচ্ছে। ভাবছে, ব্যবস্থা নিলে শাস্তি পেতে হতে পারে!’’

বিজেপি-র ওই কেন্দ্রীয় নেতা এ দিন আরও দাবি করেন, নিখোঁজ কিশোরীর মা পুলিশকে জানিয়েছেন, তাঁর মেয়ে ধর্ষিতা হয়েছে। তা সত্ত্বেও পুলিশ ব্যবস্থা নিচ্ছে না। সিদ্ধার্থনাথের বক্তব্য, ‘‘শুধু ওই কিশোরী নয়, সমস্ত অপমানিত মহিলার অসম্মানের বিরুদ্ধে বিজেপি লড়ছে। যে দলই নারী পাচারে সঙ্গে যুক্ত হবে, তার বিরুদ্ধেই বিজেপি রাস্তায় নামবে।’’ প্রসঙ্গত, সাংসদ এম জে আকবরের নেতৃত্বে তিন জনের একটি প্রতিনিধি দল শনিবার মগরাহাটে গিয়েছিল। আজ, সোমবার জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন ললিতা কুমারমঙ্গলমের সেখানে যাওয়ার কথা।

Advertisement

সিদ্ধার্থনাথের বক্তব্য থেকে পরিষ্কার, নারী নিরাপত্তার অভাবকে হাতিয়ার করে মমতাকে বিপাকে ফেলার এই সুযোগ সহজে ছাড়তে চাইছে না বিজেপি। বরং তারা আটঘাঁট বেঁধেই নেমেছে, যাতে মগরাহাট কাণ্ড নিয়ে গোটা রাজ্যে শোরগোল ফেলে দেওয়া যায়। বিজেপি-র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক তথা রাজ্যে দলের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় বলেছেন, ‘‘নাবালিকা অপহরণ প্রায় নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটা বন্ধ করতে এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা লড়াই করব।’’ সিদ্ধার্থনাথও এ দিন জানিয়েছেন, এই আন্দোলন সব জেলাতেই ছড়িয়ে দেওয়া হবে। নারী সুরক্ষার বার্তা নিয়ে রাহুলবাবু জেলায় জেলায় যাবেন। রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গেও দেখা করবেন তিনি।

আরও পড়ুন

Advertisement