×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১১ মে ২০২১ ই-পেপার

মন্দাক্রান্তাকে গণধর্ষণের হুমকি

নিজস্ব প্রতিবেদন
৩০ মার্চ ২০১৭ ১৪:৪২

শ্রীজাতকে পরোক্ষে যেন সমর্থনই করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। লিখেছিলেন কবিতা। এটাই তাঁর অপরাধ। সে কারণেই গণধর্ষণের হুমকি পেলেন কবি মন্দাক্রান্তা সেন। রাজা দাস নামে জনৈক ব্যক্তির ফেসবুক থেকে মন্দাক্রান্তাকে হুমকি দেওয়া হয়, ‘ওঁর মতো মহিলা দেশকে ধ্বংস করছে।...’ যদিও এই ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি আসলে কার, তা এখনও উদ্ধার হয়নি।

মন্দাক্রান্তা লিখেছেন, ‘একদিকে আরএসএস অন্যদিকে জামাত বা হুজি, কার কাছে কার কাছে কার কাছে মুক্তিকে খুঁজি?...বদলা চাই না আর, বদলে দাও জীবনের মানে, লাশ না, পলাশ আজ ফুটে থাক প্রেমের বাগানে।’ এই কবিতা লেখার পরই তাঁকে সোশ্যাল মিডিয়ায় কার্যত ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন, ‘ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত’! শ্রীজাতের বিরুদ্ধে এফআইআর শিলিগুড়িতে

Advertisement

প্রথমে ফেসবুকেই মন্দাক্রান্তা লেখেন, ‘আমাকে গণধর্ষণের হুমকি।’ পরে সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন, ‘‘নিজেকে নিয়ে যথেষ্ট চিন্তায় আছি। কিন্তু অন্ধ বিশ্বাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার একমাত্র উপায় আরও বেশি লেখা, আরও বেশি মিছিল।’’ কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইম সেলে গোটা ঘটনা জানিয়ে এফআইআর দায়ের করেছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাহুল সিংহ বলেছেন, ‘‘মহিলাদের প্রতি এ হেন হুমকির নিন্দা করি আমরা। আমাদের আদর্শের বিপরীত মতও যদি উনি দেন তবুও এ ধরনের হুমকি বিপক্ষে আমরা। একটা শিক্ষিত সমাজে এটা মেনে নেওয়া যায় না।’’ যদিও রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের মতে, ‘‘এটা বাম বুদ্ধিজীবীদের পাবলিসিটি স্টান্ট। খবরে থাকার চেষ্টা। পুলিশ নিজের কাজ করবে।’’

এই কবিতা নিয়েই সমস্যার সূত্রপাত। ছবি: ফেসবুকের সৌজন্যে।



দিন কয়েক আগেই তাঁর কবিতা ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে, এই অভিযোগে এফআইআর দায়ের হয়েছে কবি শ্রীজাতর বিরুদ্ধে। গত ১৯ মার্চ সন্ধ্যায় ফেসবুকে ‘অভিশাপ’ নামে একটি কবিতা পোস্ট করেন শ্রীজাত। এর পরেই তাঁর বিরুদ্ধে হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগ তুলে শিলিগুড়ির সাইবার ক্রাইম পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করেন এক কলেজ ছাত্র। যে কবিতা নিয়ে বিতর্ক, সেটি মূলত উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা ভোটের ফল এবং তার পর যোগী আদিত্যনাথ মুখ্যমন্ত্রীর তখতে বসা প্রসঙ্গে লেখা। পরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক সাক্ষাত্কারে জানান, শ্রীজাতর চিন্তার কোনও কারণ নেই। গোটা ঘটনায় কবি ছিলেন অনুশোচনাহীন।

এ বার টার্গেটে মন্দাক্রান্তা। সূত্রের খবর, গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

Advertisement