Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

তৃণমূল নেতার পদত্যাগ ঘিরে জল্পনা

তমলুক পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করলেন তৃণমূল নেতা শেখ জালালুদ্দিন। বৃহস্পতিবার তিনি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির কাছে কাছে পদত্য

নিজস্ব সংবাদদাতা
তমলুক ২২ জুন ২০১৪ ০০:৫৮

তমলুক পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করলেন তৃণমূল নেতা শেখ জালালুদ্দিন। বৃহস্পতিবার তিনি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির কাছে কাছে পদত্যাগ পত্র জমা দেন। পদত্যাগ পত্র জমা দেওয়ার কথা স্বীকার করে জালালুদ্দিন বলেন, “নিজস্ব সমস্যার জন্যই আমি পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতির পদ থেকে সরতে চেয়ে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছি। তৃণমূল পরিচালিত তমলুক পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দুর্গারানি বর্মণ বলেন, “পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি পদত্যাগ পত্র জমা দিয়েছেন। বিষয়টি আমি দলীয় নেতৃত্বকে জানিয়েছি। দল যা সিদ্ধান্ত নেবে সেই অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।”

তৃণমূলের দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতির পদত্যাগ পত্র জমা দেওয়ার বিষয়ে আলোচনার জন্য তমলুক ব্লক নেতৃত্ব রবিবার বৈঠকে বসবে। গত দফায় (২০০৮-২০১৩) পাঁচ বছর ধরে তমলুক পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি ছিলেন জালালুদ্দিন। ২০১৩ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে দাঁড়িয়ে জিতে জালালুদ্দিন ফের পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি হন। ফের জয়লাভের পর মাত্র এক বছরের মধ্যেই তৃণমূলের শক্ত ঘাটি পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় একটি পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতির পদত্যাগ করা নিয়ে জেলার রাজনৈতিক মহলে নানা জল্পনা শুরু হয়েছে। তৃণমূলের একাংশের মতে, দলের ব্লক নেতৃত্বের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরেই জালালুদ্দিন সহ-সভাপতির পদ থেকে সরে দাঁড়াতে চেয়েছেন। জালালুদ্দিন তমলুক পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি ছাড়াও তৃণমূলের সংখ্যালঘু সেলের জেলা কার্যকরী সভাপতি ও তৃণমূল যুব কংগ্রেসের জেলা সাধারণ সম্পাদক পদে র‍য়েছেন।

Advertisement

প্রতারণা, ধৃত সরকারি কর্মী
নিজস্ব সংবাদদাতা • হলদিয়া

চাকরি দেওয়ার নাম করে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন সরকারি হাসপাতালের এক চতুর্থ শ্রেণীর কর্মী। ধৃত অমলচন্দ্র বাখুলী সুতাহাটা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মী। সুতাহাটা থানার দক্ষিণ গোবিন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা অমলবাবুকে শুক্রবার রাতে মানিকতলা মোড় থেকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মহিষাদল থানার গড়কমলপুর গ্রামের বাসিন্দা শিউলি ঘড়াইকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে কাজ পাইয়ে দেওয়ার কথা বলেছিলেন অমলবাবু। সেইমতো ওই মহিলার থেকে গত মে মাসে দেড় লক্ষ টাকা তিনি নেন বলে অভিযোগ। কিন্তু ওই মহিলার অভিযোগ, চাকরি না হলেও টাকা ফেরত দেননি অমল বাবু। এরপর শিউলিদেবী হলদিয়া এসিজেএম আদালতে মে মাসে অভিযোগ দায়ের করেন। আদালতের নির্দেশে সুতাহাটা থানার পুলিশ গত ২১শে মে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে। তারপর থেকেই পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন ওই কর্মী। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই কর্মীর বিরুদ্ধে প্রতারণার এইরকম বহু অভিযোগ রয়েছে বিভিন্ন থানায়।


মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের দৃষ্টিহীন কৃতী পড়ুয়াদের সংবর্ধনা দিচ্ছেন তমলুকের
সাংসদ শুভেন্দু অধিকারী। হলদিয়ার চৈতন্যপুরে আরিফ ইকবাল খানের তোলা ছবি।



আরও পড়ুন

Advertisement