Advertisement
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
Forest Departemnt

Royal Bengal Tiger: হ্যাপি বার্থডে রাজা, বাঘের দীর্ঘায়ু কামনা করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন বনমন্ত্রী

বনকর্তাদের কথায়, সেই রাজাই এখন পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক বাঘ হিসেবে বেঁচে থাকার নজির গড়েছে। সঙ্গে মন্ত্রীর থেকে আদায় করে নিয়েছে শুভেচ্ছা বার্তাও।

বর্ষীয়ান বাঘ রাজাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের।

বর্ষীয়ান বাঘ রাজাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৪ অগস্ট ২০২১ ১৪:০৭
Share: Save:

বিশ্বের বয়স্কতম বাঘ সে। তাই তার জন্মদিন ঘটা করে পালন করে‌‌ছেন জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যান কর্তৃপক্ষ। আর দেরিতে হলেও বনের সেই ‘রাজা’কে টুইট করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন রাজ্যের বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। সঙ্গে তাঁর দীর্ঘায়ু কামনা করলেন তিনি। সোমবার ছিল বাঘ রাজার জন্মদিন। তাই গভীর রাতে রাজার ছবি দিয়ে টুইট করেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। টুইটে তিনি লেখেন, ‘২৫ বছর পার করল রাজা।’ এরপরেই ইংরেজিতে লেখা হয়েছে, ‘হ্যাপি বার্থ ডে।’ এখানেই শেষ নয়, রাজার জন্মদিনে বনের রাজা প্রসঙ্গে আরও দু-চার কথাও লিখেছেন তিনি। বনমন্ত্রী লিখেছেন, ‘আজ সোমবার ওয়েস্ট বেঙ্গল ফরেস্ট ওয়াইল্ডলাইফ ডিপার্টমেন্টের কর্মীরা ও জলদাপাড়া মাদারিহাট-সহ ওই এলাকার মানুষ প্রাপ্তবয়স্ক প্রতিবন্ধী বাঘ রাজার ২৫ বছরের শুভ জন্মদিন পালন করে এক অনন্য নজির সৃষ্টি করল।’

জ্যোতিপ্রিয় আরও লিখেছেন, ‘২০০৭ সালে কুমিরের কামড়ে আহত ও মৃতপ্রায় এই রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারকে সুস্থ করতে বন দফতর সুন্দরবন থেকে প্রথমে আলিপুর পশু হাসপাতাল ও পরে জলদাপাড়ার কাছে খয়েরবাড়ি রেসকিউ সেন্টারে নিয়ে গিয়ে তার চিকিৎসা করানো হয়। বর্তমানে সে সুস্থ। যদিও তার একটি পা বাদ দেওয়া হয়েছে। রাজার শুভ জন্মদিনে আমরা সকলে তার দীর্ঘায়ু কামনা করি। রাজার প্রতি অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল।’প্রসঙ্গত, কোনও বাঘের এত দিন বেঁচে থাকাটাও কার্যত নজিরবিহীন বলে মত বিশেষজ্ঞদের। তাই এমন একটি বাঘের দীর্ঘায়ু কামনায় মন্ত্রীর শুভেচ্ছা বার্তার ঘটনাও কার্যত বেনজির বলেই মনে করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, সুন্দরবনে কুমিরের হামলায় গুরুতর জখম হয়েছিল রাজা। খাঁচা পেতে তাকে ধরার পর বাঁচিয়ে রাখাটাই সেই সময়ে কার্যত চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। প্রথমে আলিপুর চিড়িয়াখানায় চলেছিল চিকিৎসা। তার পরে সেখান থেকে নিয়ে আসা হয় জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের দক্ষিণ খয়েরবাড়ি ব্যাঘ্র পুনর্বাসন কেন্দ্রে। দীর্ঘ পথ যাত্রার ফলে অসুস্থ হয়ে পড়েছিল সে। কিন্তু তাকে সুস্থ করে তোলার ক্ষেত্রে হাল ছাড়তে রাজি ছিলেন না প্রাণী চিকিৎসক থেকে শুরু করে বনকর্মীরা। শেষ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠে রাজা। তাকে বনের জীবনে ফিরিয়ে দেওয়া যায় কিনা, তা নিয়েও আলোচনা হয়েছিল। কিন্তু একটি পা বাদ যাওয়ায় তাঁর পক্ষে শিকার করা আর সম্ভব ছিল না বলেই মত বনকর্তাদের। তারপরেই তাকে পাকাপাকি ভাবে পুর্নবাসন কেন্দ্রে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বনকর্তাদের কথায়, সেই রাজাই এখন পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক বাঘ হিসেবে বেঁচে থাকার নজির গড়েছে। সঙ্গে মন্ত্রীর থেকে আদায় করে নিয়েছে শুভেচ্ছা বার্তাও।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.