Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

বিক্ষুব্ধদের দায়িত্ব দিয়ে বাঁধার কৌশল, প্রার্থী মুকুল-পুত্রও

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৪ মার্চ ২০১৫ ০৩:২০
মনোনয়ন জমা দিচ্ছেন শুভ্রাংশু রায়।  —নিজস্ব চিত্র।

মনোনয়ন জমা দিচ্ছেন শুভ্রাংশু রায়। —নিজস্ব চিত্র।

বাবার পাশে দাঁড়িয়ে খোলাখুলি বিদ্রোহ ঘোষণার পরেই দলনেত্রীর পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করেছিলেন তিনি। অনেকেই যার অর্থ করেছিলেন যে, বাবার পথে চলবেন না মুকুল-পুত্র শুভ্রাংশু রায়। সোমবার কাঁচরাপাড়া পুরভোটে তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়ে শুভ্রাংশু থাকলেন তৃণমূলের মূল স্রোতেই।

তৃণমূলের প্রাক্তন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক মুকুল রায় কোণঠাসা হওয়ার পরে গোটা রাজ্যেই আসন্ন পুরভোটে দলের প্রার্থী তালিকা কী চেহারা নেবে, তা নিয়ে জল্পনার অন্ত ছিল না। মুকুলের বাসস্থান উত্তর ২৪ পরগনায় দলে তাঁর ঘনিষ্ঠেরা পুরভোটে টিকিট পাবেন কি না সে জল্পনা চলছিলই। মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে গত ক’দিন ধরে কাঁচারাপাড়ায় প্রচার চালাচ্ছিলেন দলে তাঁর বিরোধীদের একাংশ। এমনিতেই জেলার ২৩টি পুরসভার ৫৮৭টি আসনে প্রার্থী হতে চেয়ে ৫,২২২টি আবেদন পেয়েছেন জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব! তার উপরে মুকুল-ফ্যাক্টর। কার কপালে টিকিট জুটবে, তা নিয়ে নিশ্চিত ছিলেন না জেলা তৃণমূলের বহু নেতাই।

দলের অন্দরের খবর, এই পরিস্থিতিতে কৌশল নেওয়া হয়েছিল তালিকা ঘোষণার পথে না হেঁটে দলীয় ভাবে সোম থেকে বুধ এই তিন দিন সরাসরি মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া মিটিয়ে ফেলা হবে। টিকিট-বঞ্চিতরা যাতে অন্য দলের প্রার্থী হতে না পারেন তা রোখাই ছিল উদ্দেশ্য। তার মধ্যে এ দিন বিকেলে ব্যারাকপুরে প্রশাসনিক ভবনে মহকুমাশাসকের (ব্যারাকপুর) কাছে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ৬ নম্বর ওয়ার্ডের (বিদায়ী পুরবোর্ডেও ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর) তৃণমূল প্রার্থী শুভ্রাংশু। কোনও বিতর্কে না ঢুকে বলেছেন, “কাজের মানুষকেই সকলে ভোট দেবেন। ভোটেই তার ফল বোঝা যাবে।’’ শুভ্রাংশুর মনোনয়ন পাওয়ার সূত্র ধরে দলে মুকুল ঘনিষ্ঠদের পুরভোটে টিকিট না মেলার অভিযোগ উড়িয়ে দেন জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক নির্মল ঘোষ।

Advertisement

ছেলের প্রার্থী হওয়া নিয়ে মুকুলের সংক্ষিপ্ত মন্তব্য, “আমি এই বিষয়ে মন্তব্য করব না। আগেই বলেছি, শুভ্রাংশু স্বতন্ত্র ব্যক্তিত্ব।” মুকুল এ দিনই দিল্লি গিয়েছেন। আর শুভ্রাংশুর মনোনয়ন প্রসঙ্গে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “ও প্রার্থী হতে চেয়ে আবেদন করেছিল। জয়ী কাউন্সিলরদের প্রার্থী করার নিয়ম মেনেই ওকে প্রার্থী করেছে দল।”

এ দিন শুভ্রাংশুর সঙ্গে শুধু তাঁরই কিছু অনুগামীকে দেখা গিয়েছে। এই বিষয়ে ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে মুকুল-বিরোধী শিবিরের বিধায়ক তথা ভাটপাড়ার পুরপ্রধান অর্জুন সিংহের কটাক্ষ, ‘‘কাঁচরাপাড়াতেও মুকুল রায়কে সাধারণ মানুষ চান না। শুধু পাওনাদারেরা চায়!’’

আরও পড়ুন

Advertisement