Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২

বাঁধা সময়সীমা, অকেজো পোর্টালে নাকাল শিক্ষকেরা

নির্দিষ্ট সময়সীমা। নির্দেশ, তার মধ্যেই কাজ শেষ করতে হবে। অথচ বেঁকে বসেছে ইন্টারনেট।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কৃষ্ণনগর শেষ আপডেট: ০৮ জানুয়ারি ২০১৭ ০১:০৭
Share: Save:

নির্দিষ্ট সময়সীমা। নির্দেশ, তার মধ্যেই কাজ শেষ করতে হবে। অথচ বেঁকে বসেছে ইন্টারনেট।

Advertisement

আগামী ২৭ জানুয়ারির মধ্যে কন্যাশ্রী প্রকল্পের তথ্য অনলাইনে আপলোড করতে হবে। জেলার স্কুলগুলিকে এমন নির্দেশ দিয়েছে নদিয়া জেলাপ্রশাসন। নির্দেশ পাওয়ার পর অনলাইনে কন্যাশ্রীর তথ্য পোর্টালে আপলোড করতে গিয়ে চক্ষু চড়কগাছ বিভিন্ন স্কুল কর্তৃপক্ষের। তাঁদের অভিযোগ এমনিতেই কন্যাশ্রীর পোর্টাল স্লো। তার ওপরে মাঝে মধ্যে সার্ভার বসে যাচ্ছে। যার ফলে পোর্টালে তথ্য আপলোড করতে গিয়ে কালঘাম ছুটছে।

জেলা প্রশাসনের এক আধিকারিক অবশ্য জানিয়েছেন, এই সময় রাজ্যজুড়ে কন্যাশ্রীর পোর্টালে ছাত্রীদের তথ্য আপলোড হয়। ফলে সার্ভার কিছুটা স্লো থাকে। তবে তাঁর দাবি, সমস্যা সমাধানে কন্যাশ্রীর সার্ভারে কাজ হচ্ছে। আশা করি সমস্যা মিটবে। নদিয়ার জেলাশাসক সুমিত গুপ্তা বলেন, “এ রকম হওয়ার কথা নয়। খোঁজ নিয়ে দেখছি।”

নদিয়া জেলাপ্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, কন্যাশ্রী ১-এর রিনিউয়াল এবং কন্যাশ্রী ১ থেকে কন্যাশ্রী ২তে উন্নীতকরণের জন্য ছাত্রীদের তথ্য অনলাইনে পোর্টালে আপলোড করতে হবে। তা ছাড়াও কন্যাশ্রী ১ এবং কন্যাশ্রী ২-এর নতুন ফর্ম জেলা থেকে পাঠানো হয়েছে। জেলায় এ বারে অন্তত ৩০ হাজার ছাত্রীর কন্যাশ্রী ১ ফর্ম নতুন করে নথিভূক্ত হবে। তা ছাড়াও কন্যাশ্রী ১ রিনিউয়াল হবে প্রায় ৯০ হাজার ছাত্রীর। কন্যাশ্রী ১ থেকে কন্যাশ্রী ২তে উন্নীতকরণ হবে ২০ হাজার ছাত্রীর। অর্থাৎ অনলাইনে প্রায় ১ লক্ষ ৪০ হাজার ছাত্রীর তথ্য আপলোড করতে হবে ১ জানুয়ারির থেকে ২৭ জানুয়ারির মধ্যে।

Advertisement

প্রসঙ্গত শুক্রবার চাপড়ায় বিডিও অফিসে ব্লকের কন্যাশ্রীর ডেটা ম্যানেজার মৃণাল বেজ বিভিন্ন স্কুলকে বৈঠক ডেকেছিলেন। সেখানে ওই ব্লকের ৫৭টি স্কুল-কলেজের মধ্যে ৪৭টি স্কুল-কলেজের প্রতিনিধি উপস্থিত হয়েছিলেন। সেখানে বেশ কিছু স্কুলের পক্ষ থেকে কন্যাশ্রীর তথ্য আপলোডের সমস্যার কথা জানান। চাপড়া ব্লকের কন্যাশ্রীর ডেটা ম্যানেজার অবশ্য এ বিষয়ে এ দিন কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

কী ধরনের সমস্যা হচ্ছে? চাপড়ার বাঙালঝি রামকৃষ্ণ আশ্রম হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক রমাপ্রসাদ দেবশর্মা জানান, সার্ভার স্লো থাকার ফলে খুব সমস্যা হচ্ছে। পেজ খুলতেই অনেক সময় নিচ্ছে। আবার কখনও কখনও তথ্য আপলোড করার সময় গোলমাল হচ্ছে। নতুন করে পেজ-এ লগ ইন করতে হচ্ছে। ‘‘এ ভাবে চললে যে সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে, তাতে আমরা কাজ শেষ করতে পারব না। হয় সময় সময়সীমা বাড়াতে হবে, অন্যথায় সার্ভারের সমস্যা দূর করতে হবে,’’ বলেন তিনি। রমাপ্রসাদবাবুর দাবি, শনিবারও সার্ভারে সমস্যা হয়। এমন সমস্যা যে হচ্ছে, সমর্থন জানিয়েছেন কালীগঞ্জের দেবগ্রাম এসএ বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক গিরিজাশঙ্কর রায়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.