Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

শিলিগুড়ি আদালত

জয়রামনের বদলি নিয়ে ফের মামলা

এসজেডিএ কাণ্ডে প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার কারলিয়াপ্পন জয়রামনের বদলির নির্দেশে স্থগিতাদেশ চেয়ে আদালতে মামলা দায়ের হল। সোমবার শিলিগুড়ি আদালতের ৩ জ

নিজস্ব সংবাদদাতা
শিলিগুড়ি ০২ এপ্রিল ২০১৪ ০১:৩৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

এসজেডিএ কাণ্ডে প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার কারলিয়াপ্পন জয়রামনের বদলির নির্দেশে স্থগিতাদেশ চেয়ে আদালতে মামলা দায়ের হল। সোমবার শিলিগুড়ি আদালতের ৩ জন আইনজীবী ওই মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলাকারী আইনজীবীদের অন্যতম কিসানলাল লোহিয়ার দাবি, শিলিগুড়ি আদালতের সিভিল জজ জুনিয়র ডিভিশন মামলাটি গ্রহণ করে কেন বদলির নির্দেশে স্থগিতাদেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়েছেন। মামলাকারী আইনজীবীদের তরফে বিষয়টি শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনারের দফতরেও জানিয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। শিলিগুড়ির বর্তমান পুলিশ কমিশনার জগ মোহন। তিনি বলেন, “আদালতের নির্দেশ সমস্ত কিছু জানিয়ে দেওয়া হবে।” এসজেডিএ-এর দুর্নীতি সংক্রান্ত অভিযোগের মামলায় মালদহের তৎকালীন জেলাশাসক তথা এসজেডিএ-এর প্রাক্তন মুখ্য কার্যনির্বাহী আধিকারিক গোদালাকিরণ কুমারকে গত ৩০ নভেম্বর গ্রেফতার করে পুলিশ। তারপরে শিলিগুড়ির তৎকালীন পুলিশ কমিশনার কারলিয়াপ্পন জয়রামনকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। তাঁকে কমপালসরি ওয়েটিংয়ে পাঠানো হয়। রাতারাতি জামিন পেয়ে যান গোদালাও।

ওই ঘটনার পরে তা নিয়ে উচ্চ আদালতে দু’টি জনস্বার্থ মামলা হয়েছে। এ বার শিলিগুড়ি আদালতে মামলা করেন ৩ আইনজীবী কিসানলাল লোহিয়া, রতন কুমার বাগচি এবং সঞ্জয় পাতদিয়া।

Advertisement

এই ব্যাপারে শিলিগুড়ি আদালতের সরকারি আইনজীবী পীযূষ ঘোষ বলেন, “জনস্বার্থ মামলা এ ভাবে নিম্ন আদালতে হয় না। সে জন্য কলকাতা হাইকোর্টে যেতে হয়। চমক দেওয়ার জন্য নানা কর্মকান্ড হয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে কী হয়েছে বিশদে জেনে যা বলার বলব।”

আগেও এসজেডিএ কাণ্ডে গোদালাকিরণ কুমারের জামিনের আবেদন খারিজের দাবিতে শিলিগুড়ি আদালতের ২৫ জন আইনজীবী একযোগে মামলা করেন। একই দাবিতে হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন শিলিগুড়ি পুরসভার মেয়র পারিষদ সুজয় ঘটক। হাইকোর্ট সুজয়বাবুর মামলাটি খারিজ করে দেয়। এর পর সম্প্রতি শিলিগুড়ি আদালতের াইনজীবীদের মামলাটিও খারিজ হয়ে যায়। তবে সুজয়বাবুর তরফে এ ব্যাপারে করা একটি জনস্বার্থ মামলা চলছে।

উল্লেখ্য, এসজেডিএ কাণ্ডে ইতিমধ্যেই দফতরের ৩ জন বাস্তুকার এবং ঠিকাদার সংস্থার কর্ণধার সব মিলিয়ে ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তৎকালীন চেয়ারম্যান রুদ্রনাথ ভট্টাচার্য, এসজেডিএ’র সদস্য তথা প্রাক্তন ডেপুটি মেয়র রঞ্জন শীলশর্মা, জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূলের সভাপতি চন্দন ভৌমিক এবং মাটিগাড়া-নকশালবাড়ির বিধায়ক শঙ্কর মালাকারকে জেরা করে পুলিশ।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement