Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

সরকারি অনুষ্ঠানে ভাড়া বাবদ বকেয়া পড়ে আট মাস

উত্তর দিনাজপুরে বাস দিতে নারাজ মালিকেরা

নিজস্ব সংবাদদাতা
রায়গঞ্জ ০৭ অগস্ট ২০১৪ ০২:২৩

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারি অনুষ্ঠান সফল করার জন্য একাধিক বাস ভাড়া নিয়েছিল উত্তর দিনাজপুর জেলা প্রশাসন। কিন্তু ওই অনুষ্ঠানের পরে আট মাসেরও বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও প্রশাসন এই বাবদ বকেয়া ভাড়া বাস মালিকদের মেটাননি বলে অভিযোগ। বিষয়টি নিয়ে সরব হয়েছে বাস মালিকদের সংগঠন জেলা বাস ও মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন। আগামী ১২ অগস্ট দক্ষিণ দিনাজপুরের গঙ্গারামপুরে দুই দিনাজপুর জেলার পুলিশ ও প্রশাসনের কর্তাদের নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠক করার কথা রয়েছে।

সেখানে পুলিশ আর প্রশাসনের কর্তাদের যোগ দিতে নিয়ে যাওয়ার জন্য সম্প্রতি জেলা পরিবহণ দফতরের তরফে অ্যাসোসিয়েশনের কর্তাদের কাছে মৌখিক ভাবে একাধিক বাস প্রস্তুত রাখার অনুরোধ করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে বুধবার রায়গঞ্জের পুর বাস স্ট্যান্ড এলাকার কার্যালয়ে অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা বৈঠকে বসেন। বৈঠকের পর অ্যাসোসিয়েশনের তরফে জানানো হয়েছে, বকেয়া ভাড়া না মেটানো পর্যন্ত প্রশাসনকে বাস ভাড়া দেওয়া হবে না। অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক প্লাবন প্রামাণিক এই দিন বলেন, “গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে আমরা জেলাশাসক ও জেলা পরিবহণ দফতরের আধিকারিকদের কাছে বার বার চিঠি দিলেও বকেয়া বাস ভাড়া মেটায়নি প্রশাসন। তাই আর নতুন করে বাস দেওয়ার প্রশ্ন নেই।”

আঞ্চলিক পরিবহণ আধিকারিক পালদেন ভুটিয়া বলেন, “এক মাস আগে জেলায় কাজে যোগ দিয়েছি। তাই বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেব।” আর জেলাশাসক স্মিতা পান্ডে বলেন, “বাসমালিকেরা কেনও এখনও বকেয়া বাস ভাড়া পাননি, তা খতিয়ে না দেখে কিছু বলতে পারব না।”

Advertisement

প্রশাসনিক সূত্রের খবর, নবান্ন থেকে পাঠানো বার্তা অনুযায়ী ১১ অগস্ট রাতে মুখ্যমন্ত্রী রায়গঞ্জে আসার কথা রয়েছে। ওই রাতে কর্ণজোড়ার সার্কিট হাউসে থেকে পর দিন সকালে তিনি গঙ্গারামপুরে যাবেন। সেখানেই মুখ্যমন্ত্রীর দুই দিনাজপুরের পুলিশ ও প্রশাসনের কর্তাদের নিয়ে তাঁর বৈঠক করার কথা। গত ২৭ নভেম্বর রায়গঞ্জে কর্ণজোড়ায় একটি সরকারি অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। বাস মালিকদের অ্যাসোসিয়েশনের অভিযোগ, জেলার নয়টি ব্লকের বিভিন্ন সরকারি দফতরের আধিকারিক, কর্মী ও বাসিন্দাদের নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রশাসন ৩২টি বাস ভাড়া নেয়। আট মাস পার হলেও বাস প্রতি ১৪৪০ টাকা করে ৪৬ হাজার ৮০ টাকা বকেয়া ভাড়া মেটানো হয়নি।

আরও পড়ুন

Advertisement