Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

টানা আন্দোলন করার সিদ্ধান্ত নাগরিক মঞ্চের

নিজস্ব সংবাদদাতা
রায়গঞ্জ ০৭ জুলাই ২০১৪ ০২:৫৫
গণস্বাক্ষর সংগ্রহ রায়গঞ্জে।

গণস্বাক্ষর সংগ্রহ রায়গঞ্জে।

এইমসের ধাঁচে হাসপাতাল তৈরির জন্য জমি অধিগ্রহণ ও কেন্দ্রের আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রায়গঞ্জে হাসপাতাল তৈরির দাবিতে টানা আন্দোলনের ঘোষণা করল রায়গঞ্জ এইমস রূপায়ণ নাগরিক মঞ্চ। রবিবার সন্ধ্যায় রায়গঞ্জের ইনস্টিটিউট হলে মঞ্চের পক্ষ থেকে নাগরিক কনভেনশনের আয়োজন করা হয়। ওই কনভেনশনেই দীর্ঘ আলোচনার পর সর্বসম্মত ভাবে টানা আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত হয়। উল্লেখ্য, হাসপাতাল তৈরির দাবিতে ১ জুলাই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলকে নিয়ে রায়গঞ্জ এইমস রূপায়ণ নাগরিক মঞ্চ নামে একটি সংগঠন তৈরি করে পশ্চিম দিনাজপুর চেম্বার অফ কমার্স। এ দিনের সম্মেলনে কংগ্রেস, সিপিএম, ফরওয়ার্ড ব্লক, বিজেপি, তৃণমূল, এসএউসি, রায়গঞ্জ নাগরিক সমিতি সহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী, স্বেচ্ছাসেবী ও পরিবেশপ্রেমী সংগঠনে প্রতিনিধিরা সহ সাধারণ মানুষ হাজির হয়েছিলেন।

মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক শঙ্কর কুণ্ডু বলেন, “কনভেনশনে উপস্থিত প্রত্যেকের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, টানা আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” এদিনের কনভেনশনে মঞ্চের তরফে অভিযোগ করা হয়, ২০০৯ সালে কেন্দ্রীয় সরকার ৮২৩ কোটি টাকা খরচে ১০০ একর জমিতে রায়গঞ্জে এইমসের ধাঁচে হাসপাতাল তৈরির কথা ঘোষণা করলেও, পূর্বতন ও বর্তমান রাজ্য সরকার জমি অধিগ্রহণ না করায় এখনও হাসপাতাল তৈরির কাজ শুরু হয়নি। তাঁদের দাবি, উত্তরবঙ্গবাসীর উন্নত চিকিৎসা পরিষেবার স্বার্থে হাসপাতাল তৈরির জন্য পানিশালা এলাকার চাষিরা উপযুক্ত ক্ষতিপূরণের বিনিময়ে স্বেচ্ছায় জমি দিতে প্রস্তুত। অথচ রাজ্য সরকার চাষিদের সঙ্গে কথা না বলেই ‘জোর করে জমি অধিগ্রহণ করা হবে না’ বলে ঘোষণা করেছে। সম্প্রতি, রাজ্যের প্রস্তাব মতো কেন্দ্র নদিয়ার কল্যাণীতে হাসপাতাল তৈরিতে সম্মত হয়।

মঞ্চের তরফে জেলা কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক পবিত্র চন্দ, সিপিএমের জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য দিলীপনারায়ণ ঘোষ, বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক শঙ্কর চক্রবর্তী, এসইউসির জেলা সম্পাদক দুলাল রাজবংশী, ফরওয়ার্ড ব্লক বিধায়ক আলি ইমরান রমজ ও রায়গঞ্জ নাগরিক সমিতির সম্পাদক তপনকুমার চৌধুরী এ দিন একইসুরে জানান, “এইমসের ধাঁচে হাসপাতাল তৈরি নিয়ে কোনও রাজনীতি চাই না। কোনও ভাবেই হাসপাতালটি অন্য কোথাও সরানো যাবে না।”

Advertisement

এ মাসের শুরুতেই মঞ্চ গঠনের সময় থেকেই তৃণমূল সামিল হয়েছে। মঞ্চের অন্যতম দুই সদস্য তথা রায়গঞ্জ পুরসভার তৃণমূলের দুই কাউন্সিলর রতন মজুমদার ও বরুণ বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, পানিশালা এলাকার কৃষকরা জমি দিতে রাজি থাকলে লিখিত ভাবে জেলাশাসকের মাধ্যমে সরকারের কাছে স্বেচ্ছায় জমি দেওয়ার আবেদন জানানোর প্রস্তাব তাঁরা কনভেনশনে জানিয়েছেন। কনভেনশনে জেলার নয়টি ব্লকে টানা পথসভা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে আগামী ১৫ জুলাই জেলাশাসককে স্মারকলিপি দেওয়া, ৩০ জুলাই রায়গঞ্জের সুপারমার্কেট এলাকায় দিনভর অবস্থান বিক্ষোভ ও ১৫ অগস্ট জেলা জুড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি, জেলার নয়টি ব্লকে বাসিন্দাদের নিয়ে আলাদা করে কনভেনশন করে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের কাছে স্মারকলিপি পাঠানো হবে বলেও কনভেনশনে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, ক্লাব, কলেজ, স্কুল, পঞ্চায়েত, পুরসভা কর্তৃপক্ষ-সহ জেলার সর্বস্তরের জন প্রতিনিধিদের জমি অধিগ্রহণ ও হাসপাতাল তৈরির দাবিতে রাজ্য ও কেন্দ্রের কাছে চিঠি ও স্মারকলিপি পাঠানোর জন্য মঞ্চের তরফে অনুরোধ করা হবে। চলবে দেওয়াল লিখন, ফ্লেক্স, পোস্টার ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচি।

মঞ্চের আহ্বায়ক জয়ন্ত সোম বলেন, “জমি অধিগ্রহণ ও হাসপাতাল তৈরির দাবিতে আগামী দু’মাস ধরে টানা আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। দাবি পূরণ না হলে জেলা জুড়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য পথ ও রেল অবরোধ করা হবে। কৃষকদের দিয়ে জেলাশাসকের মাধ্যমে সরকারে কাছে লিখিত ভাবে স্বেচ্ছায় জমি দেওয়ার আবেদন জানানো হচ্ছে।”



Tags:

আরও পড়ুন

Advertisement