Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Airport: বাংলায় আরও এক বিমানবন্দর তৈরিতে সবুজ সঙ্কেত কেন্দ্রের, রাজ্যের কাছে চাওয়া হল জমি

হাসিমারায় বায়ুসেনা ছাউনির বিমান ঘাঁটিকে ব‍্যবহার করে একটি পৃথক বিমানবন্দর তৈরির জন‍্য রাজ‍্য সরকারের কাছে জমি চাইল ‘এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ড

নিজস্ব সংবাদদাতা
আলিপুরদুয়ার ০৩ জুলাই ২০২২ ১৭:১৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
আলিপুরদুয়ারে বিমানবন্দরের ভাবনা।

আলিপুরদুয়ারে বিমানবন্দরের ভাবনা।
প্রতীকী চিত্র।

Popup Close

এ বার আরও একটি বিমানবন্দর পেতে চলেছে আলিপুরদুয়ার জেলা। এ বিষয়ে অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের তরফে সবুজ সঙ্কেত পাওয়া গিয়েছে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা আলিপুরদুয়ারের সাংসদ জন বার্লা। জানা গিয়েছে, হাসিমারায় যে সামরিক বাহিনীর বিমানঘাঁটি রয়েছে, সেটাকেই বিমানবন্দর গড়ার কাজে ব্যবহার করা হবে। এ জন্য রাজ্য সরকারের কাছে জমিও চেয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রক। বার্লা জানান, এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরের মন্ত্রী জ্যোতিরাদিত্য শিন্ডের অসামরিক বিমান পরিবহণ দফতর থেকে তাঁর কাছে একটি চিঠি এসেছে।

উল্লেখ্য, হাসিমারা বিমানঘাঁটি বায়ুসেনার নিয়ন্ত্রণে। এখানকার রানওয়ে লম্বায় ২,৭৪০ মিটার এবং চওড়ায় ৪৫ মিটার। এমন পরিকাঠামো কোড-সি এয়ারক্রাফটের জন্য যথাযথ। সূত্রের খবর, এই পরিকাঠামো গড়ে তোলার জন্য কেন্দ্র রাজ্যের কাছে ৩৭.৭৪ একর জমি চেয়েছে। ওই জায়গায় সিভিল এনক্লেভ তৈরি হবে। এবং এ-৩২০ এয়ারক্রাফট ওঠানামা করতে পারবে।

এখন রাজ্য সরকার জমি দিলেই এই বিমানবন্দর তৈরির কাজ এগোবে বলে জানান বিজেপি সাংসদ বার্লা। স্বাভাবিক ভাবে এই খবরে উচ্ছ্বসিত জেলার পর্যটন ব্যবসায়ী থেকে সাধারণ মানুষ। হাসিমারায় বিমানবন্দর হলে উপকৃত হবে ভুটান, অসম, কোচবিহার,আলিপুরদুয়ার-সহ বিস্তীর্ণ অঞ্চলের মানুষ। দূরযাত্রার জন্য আর বাগডোগরা কিংবা অসমের রূপসী বিমানবন্দরে যেতে হবে না।

Advertisement

এ নিয়ে আলিপুরদুয়ার ডিস্ট্রিক্ট টুরিজম আ্যসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি বিশ্বজিৎ সাহা বলেন, ‘‘আমরা রাজ‍্য সরকারের কাছে আবেদন করব যতটা জমি প্রয়োজন, সেটা যেন দেওয়া হয়। জমি-জট যেন না থাকে। বিমানবন্দর হলে ডুয়ার্সের আর্থিক এবং সামাজিক উন্নয়ন হবে।’’

অন্য দিকে, তৃণমূলের আলিপুরদুয়ার জেলা সভাপতি প্রকাশ চিক বরাইকের মন্তব্য, ‘‘আলিপুরদুয়ারে বিধানসভায় পাঁচটি আসন বিজেপির দখলে আছে। এখান থেকে সাংসদ এবং বিজেপি পেয়েছে বিজেপি। আবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও (জন বার্লা) হয়েছেন।’’ এর পর তাঁর সংযোজন, ‘‘২০২০ সালে সাংসদ হওয়ার পর উনি (জন বার্লা) বলেছিলেন রায়ডাকে সেতু হবে। আলিপুরদুয়ারে স্টেডিয়াম হবে। তার কিছুই তো হয়নি। এখন যদি হাসিমারায় বিমানবন্দর হয়, তবে আমরা স্বাগত জানাব। রাজ্য সরকার সব রকম সহযোগিতা করবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement