×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

প্রার্থীর নাম নেই, দলীয় প্রতীকে ভোট চেয়ে ফের পোস্টার বিজেপির

নিজস্ব সংবাদদাতা
রায়গঞ্জ২৪ নভেম্বর ২০২০ ১৯:৫০
নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হতে এখনও ঢের দেরি। তবে হাত গুটিয়ে বসে থাকতে নারাজ গেরুয়া শিবির। নিজস্ব চিত্র

নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হতে এখনও ঢের দেরি। তবে হাত গুটিয়ে বসে থাকতে নারাজ গেরুয়া শিবির। নিজস্ব চিত্র

মঙ্গলবার উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের বিভিন্ন এলাকা ছেয়ে গিয়েছে বিজেপির ভোট প্রচারের ব্যানারে। সেই ব্যানারে সরাসরি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করা হয়েছে। এর আগেও বাংলার নানা জায়গায় বিজেপির এমন ভোটপ্রচার লক্ষ করা গিয়েছে। যেখানে প্রার্থীর নাম নেই। শুধু দলীয় প্রতীক এঁকে দেওয়াল লিখন হচ্ছে বা পোস্টার লাগানো হচ্ছে। রায়গঞ্জ শহর-সহ ৩৫ নম্বর রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের নানা এলাকায় এ বার সেই ছবি।

নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হতে এখনও ঢের দেরি। তবে হাত গুটিয়ে বসে থাকতে নারাজ গেরুয়া শিবির। তাই ২০২১ বিধানসভা ভোটের প্রচার এখন থেকে এ ভাবেই শুরু করে দিয়েছে তারা।  

মঙ্গলবার থেকে এই পোস্টার ঘিরে তীব্র রাজনৈতিক চাপান-উতোর শুরু হয়েছে। পদ্ম শিবিরের দাবি, আগামী নির্বাচনে মানুষ বিজেপিকে চাইছে। তাই এই ব্যানার দেওয়া হয়েছে। এ দিন বিজেপির উত্তর-শহর মণ্ডল সভাপতি অভিজিৎ যোশী বলেন,‘‘মানুষের উদ্দীপনা বুঝতে এই ব্যানার লাগানো হচ্ছিল। তবে সাধারণ মানুষই জানিয়েছেন, কোনও প্রচারের প্রয়োজন নেই। কারণ বিজেপি মানুষের মনে রয়েছে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: নাৎসি ষড়যন্ত্র, বিমান দুর্ঘটনা, ক্যান্সার, করোনা! সব হারিয়ে শতবর্ষে পা ব্রিটিশ মহিলার

অন্য দিকে, তৃণমূলের রায়গঞ্জ বিধানসভার কো-অর্ডিনেটর তথা রায়গঞ্জের উপ-পুরপ্রধান অরিন্দম সরকারের বক্তব্য, ‘‘বিজেপি লকডাউনে এই জেলার মানুষের জন্য কী কাজ করেছে, সেটা মানুষই ভাল জানেন। ওঁদের কাউকে কোনও দিন দেখা যায়নি। তাই এ সব প্রচার করে কোনও লাভ নেই। এ বারে রায়গঞ্জ বিধানসভাতে তৃণমুলের প্রার্থী আগের থেকে আরও বেশি ভোটে জয়ী হবেন। গোটা রাজ্যেও জয় পাবে তৃণমূল।’’

আরও পড়ুন: ফের ৪৩টি অ্যাপ নিষিদ্ধ ঘোষণা করল কেন্দ্র, সিংহভাগ চিনা ডেটিং অ্যাপ

Advertisement