Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

‘ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত’! শ্রীজাতের বিরুদ্ধে এফআইআর শিলিগুড়িতে

নিজস্ব সংবাদদাতা
২১ মার্চ ২০১৭ ১২:৪১
শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

গোটা দুনিয়া আজ কবিতা দিবসে মুখর। অথচ, এ বঙ্গে সেই কবিতার জন্যই নিশানায় কবি!

তাঁর কবিতা ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে, এই অভিযোগে এফআইআর দায়ের হল কবি শ্রীজাতর বিরুদ্ধে। কবি যদিও তাতে অনুশোচনাহীন।

ঘটনার সূত্রপাত, গত ১৯ মার্চ। ওই দিন সন্ধ্যায় ফেসবুকে ‘অভিশাপ’ নামে একটি কবিতা পোস্ট করেন শ্রীজাত। কবি শ্রীজাতের বিরুদ্ধে হিন্দু ধর্মাবেগে আঘাত করার অভিযোগ তুলে শিলিগুড়ির সাইবার ক্রাইম পুলিশ স্টেশনে সোমবার রাতে অভিযোগ দায়ের করেন এক কলেজ ছাত্র। শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনার চেলিং সিমিক লেপচা জানান, অভিযোগ জমা পড়েছে। তদন্ত হচ্ছে। এখনও কোনও মামলা করা হয়নি।

Advertisement

আরও পড়ুন: নারদ নিয়ে রাজ্যের আর্জি আজ শুনবে সুপ্রিম কোর্ট

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, অভিযোগকারী অর্ণব ‘হিন্দু সংহতি’ নামে একটি অরাজনৈতিক সংগঠনের সদস্য। যে কবিতা নিয়ে বিতর্ক, সেটি মূলত উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা ভোটের ফল এবং তার পর যোগী আদিত্যনাথ মুখ্যমন্ত্রীর তখতে বসা প্রসঙ্গে লেখা। ওই ব্যক্তি শ্রীজাতকে গ্রেফতারের দাবিও জানিয়েছেন। কবিতাটির শেষ দুটি লাইন নিয়েই তাঁর মূল আপত্তি। সেখানে শ্রীজাত লিখেছেন, ‘আমাকে ধর্ষণ করবে যদ্দিন কবর থেকে তুলে/ কন্ডোম পরানো থাকবে তোমার ওই ধর্মের ত্রিশূলে’।



শ্রীজাত’র সেই বিতর্কিত কবিতা

এই প্রসঙ্গে শ্রীজাত সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, তিনি তাঁর নিজের বিশ্বাস ও প্রতিবাদের অবস্থান থেকেই এই পোস্টটি করেছিলেন। যা নিয়ে তাঁর কোনও রকম অনুশোচনাই নেই। তিনি বলেন, ‘‘ঘটনাটি দু্র্ভাগ্যজনক এবং হাস্যকর। ধর্ম কি এতটাই ঠুনকো বা সহজ, যে ধর্মকে এত সহজে আঘাত করা যায়? মনে হয় না। আমার যদি মনে হয় কোনও ঘটনার বিরোধিতা করা জরুরি। তা হলে তা সপাটেই করি। আমার প্রতিবাদের ভাষা কবিতা। সেই কারণে কবিতার মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়েছি।’’ একই সঙ্গে কবি জানান, ভারতবর্ষের সার্বভৌমত্বের উপর তাঁর আস্থা রয়েছে। সকলেরই গণতান্ত্রিক ভাবে মত প্রকাশের অধিকার আছে বলেও তিনি মনে করেন।



এফআইআর কপি।

আরও পড়ুন

Advertisement