Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১০ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

কোতুলপুর উপনির্বাচন

বাম বিরোধীদের লড়াইয়ে গড় দখলের আশা সিপিএমের

লোকসভা নির্বাচনের আড়ালে ঢাকা পড়ে গিয়েছে কোতুলপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপ-নির্বাচন। বুধবার বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের সঙ্গেই কোতুলপুর বিধানসভা

স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায়
কোতুলপুর ০৫ মে ২০১৪ ০০:০১
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

লোকসভা নির্বাচনের আড়ালে ঢাকা পড়ে গিয়েছে কোতুলপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপ-নির্বাচন। বুধবার বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের সঙ্গেই কোতুলপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপ-নির্বাচন হতে যাচ্ছে। আর এই উপ-নির্বাচন হতে যাচ্ছে, এখানকার কংগ্রেস বিধায়ক পদ থেকে সৌমিত্র খাঁ ইস্তফা দিয়ে তৃণমূলের টিকিটে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হওয়ায়।

তৃণমূলের সঙ্গে হাত মিলিয়ে জেলার শুধু মাত্র এই কোতুলপুর বিধানসভা কেন্দ্রেই খাতা খুলেছিল কংগ্রেস। কিন্তু সৌমিত্র দলবদল করায় সেই আসনও হাতছাড়া হয়েছে। ফলে তৃণমূল যেমন ওই আসনটি ধরে রাখতে সচেষ্ট, তেমনই কংগ্রেসও মরিয়া। প্রার্থী দিয়েছে বিজেপি-ও। মোদী হাওয়ায় ভোট বাড়ানোর আশায় রয়েছেন বিজেপি প্রার্থী। আর বাম-বিরোধীদের এই পরস্পরের লড়াইয়ে পুরনো গড় ফের দখলে আনার স্বপ্ন দেখছেন বামপন্থীরা।

গত বিধানসভা নির্বাচনে উন্নয়ন ও এলাকার সমস্যা দূর করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে মানুষের বিশ্বাস জয় করেছিলেন কংগ্রেসের জোট প্রার্থী সৌমিত্র খা।ঁ গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় তিনিই তৃণমূলের বিরুদ্ধে বার বার কংগ্রেস প্রার্থী ও কর্মীদের মারধর করা ও সন্ত্রাস চালানোর অভিযোগ তুলেছিল। লোকসভা ভোটের মাসখানেক আগেই কংগ্রেস দলের বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে তৃণমূলে যোগ দেন তিনি। ফলে সৌমিত্রের বিরুদ্ধে দলের মধ্যে কিছু অংশে ক্ষোভ রয়েছে।

Advertisement

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত বিধানসভা নির্বাচনে সৌমিত্র সিপিএমের পূর্ণিমা বাগদিকে ১ হাজার ৪৩৩ ভোটে পরাজিত করেছিলেন। ব্যবধান খুব বেশি না থাকলেও সেই সময় বামফ্রন্ট প্রার্থীকে কোতুলপুরের মাটিতে আটকে রেখে মাথা তুলে দাঁড়ানোই ছিল কংগ্রেস-তৃণমূল জোটের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু গত কয়েক বছরে ছবিটা এখন আমূল বদলেছে। এই উপ-নির্বাচনেও সন্ত্রাস চালানোর অভিযোগ উঠছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। সিপিএমের দাবি, কোতুলপুর জোনাল অফিস ছাড়া এই থানা এলাকার বাকি ৭৯টি পার্টি অফিস সন্ত্রাসের জেরে বন্ধ। সিহড়, গোপীনাথপুর, বৈতল, দেশড়ার মতো গ্রামগুলিতে আগে লাল সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠত, এখন রং বদলে গিয়ে সবুজ সন্ত্রাসের অভিযোগ শোনা যাচ্ছে। আর এই আবহেই লোকসভা নির্বাচনের সঙ্গে বিধানসভার উপ-নির্বাচনে যাচ্ছে কোতুলপুর।

সন্ত্রাসের অভিযোগের সঙ্গে গত তিন বছরের অনুন্নয়ন ও তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল ফের এই বিধানসভা জয়ের স্বপ্ন উস্কে দিয়েছে সিপিএমের প্রার্থী শীতল কৈবর্তকে। তাই তিনি দাবি করছেন, “যে উন্নয়নের স্বপ্ন দেখে মানুষ জোট প্রার্থীকে ভোট দিয়েছিলেন তা পূরণ হয়নি। তাই এলাকার মানুষ তৃণমূল ও কংগ্রেসের প্রতি বীতশ্রদ্ধ। তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের জেরে ভোট ভাগাভাগি হবে, আমরাই জিতব।”

যদিও কংগ্রেস প্রার্থী অক্ষয় সাঁতরা মনে করেন, “সৌমিত্র আগাগোড়া তৃণমূলের অঙ্গুলীহেলনে চলেছেন। এলাকার অনুন্নয়নের দায় তাঁর ও তৃণমূলের। এলাকায় কংগ্রেসের নিজস্ব ভোট রয়েছে। তাই আমি জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।” অন্য দিকে, বিজেপি প্রার্থী লক্ষ্মীকান্ত মজুমদারের আশা, “এলাকার মানুষ আগে সিপিএমের বিধায়ক দেখেছেন, গত কয়েকবছরে জোটের বিধায়ককে দেখেছেন। তাঁদের উপর বীতশ্রদ্ধ। সুষ্ঠু ভাবে নির্বাচন হলে আমার জয় নিশ্চিত।”

এই আসনের তৃণমূল প্রার্থী শ্যামল সাঁতরা অবশ্য গত ক’বছরে এলাকায় উন্নয়ন হয়নি বলে মানতে নারাজ। তাঁর দাবি, “সারা রাজ্যজুড়ে এখন উন্নয়নের কাজ চলেছে। কোতুলপুরেও রাস্তাঘাট থেকে পানীয় জলের উন্নতি হয়েছে। আরও উন্নয়নের জন্য মানুষ আমাকেই জেতাবেন।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement