Advertisement
০৪ ডিসেম্বর ২০২২

দুই নাবালিকাকে ধর্ষণের চেষ্টা, পাড়ায় ধৃত যুবক

দুপুরে এক বালিকাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে। সেই যুবকের বিরুদ্ধেই বিকেলে এক কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল। পাড়া থানা এলাকায় বৃহস্পতিবারের ওই ঘটনায় অভিযুক্ত যুবক লক্ষ্মীকান্ত বাউরিকে সেই রাতেই পুলিশ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। পাড়া থানার বনবেড়িয়া গ্রামে তার বাড়ি। শুক্রবার ধৃতকে রঘুনাথপুর আদালতে হাজির করানো হয়। বিচারক তাকে তিন দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

নিজস্ব সংবাদদাতা
পাড়া শেষ আপডেট: ২৩ অগস্ট ২০১৪ ০২:১২
Share: Save:

দুপুরে এক বালিকাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে। সেই যুবকের বিরুদ্ধেই বিকেলে এক কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল। পাড়া থানা এলাকায় বৃহস্পতিবারের ওই ঘটনায় অভিযুক্ত যুবক লক্ষ্মীকান্ত বাউরিকে সেই রাতেই পুলিশ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। পাড়া থানার বনবেড়িয়া গ্রামে তার বাড়ি। শুক্রবার ধৃতকে রঘুনাথপুর আদালতে হাজির করানো হয়। বিচারক তাকে তিন দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

Advertisement

অন্য দিকে, বৃহস্পতিবার রাতে ওই দুই নাবালিকার মেডিক্যাল টেস্ট করানো হয়েছে। প্রথমে তাদের পাঠানো হয়েছিল পাড়া ব্লক স্বাস্থ্যকেন্দ্র। সেখানে প্রাথমিক পরীক্ষা করানোর পরে পুরুলিয়া সদর হাসপাতালে বিশদে পরীক্ষা করানো হয়েছে। পুরুলিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দ্যুতিমান ভট্টাচার্য বলেন “মেডিক্যাল টেস্টের প্রাথমিক রিপোর্টে জানানো হয়েছে ন’বছরের ওই বালিকার গোপনাঙ্গে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আঘাতের কারণেই রক্তপাত হয়েছে।” তিনি জানান, আজ, শনিবার রঘুনাথপুর আদালতে বিচারকের কাছে দুই নাবালিকার গোপন জবানবন্দি গ্রহণ করার আবেদন জানাবে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত তিন ঘণ্টার ব্যবধানে ওই দু’টি অভিযোগ ওঠে ওই যুবকের বিরুদ্ধে। পেশায় দিনমজুর বছর কুড়ির লক্ষ্মীকান্ত প্রথমে স্থানীয় স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীটির উপরে অত্যাচার করে। ওইদিন বেলা দেড়টা নাগাদ গ্রামের একটি পুকুরের পাশে নয় বছরের বালিকাটি এক ছিল। অভিযোগ, তাকে টেনে নিয়ে পুকুরের পাশে ফাঁকা ঝোপঝাড় ভর্তি এলাকায় নিয়ে গিয়েছিল অভিযুক্ত যুবকটি। তারপরে সেখানে তাকে ধর্ষণ করে ওই যুবক।

ওই বালিকার পরিবারের অভিযোগ, ঘটনার কথা কাউকে জানালে খুন করার হুমকি দিয়েছিল লক্ষ্মীকান্ত। তাই সে বাড়ি ফিরে ঘটনার বিষয়ে কাউকে কিছু জানায়নি। কিন্তু পরে গোপনাঙ্গ থেকে রক্তপাত হওয়ায় বাড়ির লোকজন কী হয়েছে জানতে চায়। সন্ধ্যায় ঘটনা জানতে পেরে তাঁরা ওই যুবকের বিরুদ্ধে পাড়া থানায় অভিযোগ করেন।

Advertisement

এখানেই শেষ নয়। ওই ঘটনার কিছু পরে বিকেল সাড়ে তিনটে-চারটে নাগাদ স্থানীয় স্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রীটির উপর লক্ষ্মীকান্ত চড়াও হয় বলে অভিযোগ। সাইকেলে চেপে সে একাই আনাড়ায় টিউশন পড়তে যাচ্ছিল। ফাঁকা রাস্তায় পিছন থেকে ওই কিশোরীকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয় লক্ষ্মীকান্ত। তারপরে কিশোরীকে তারই ওড়না দিয়ে হাত বেঁধে সে পাশের পলাশ জঙ্গলে.টেনে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ। সেখানে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে লক্ষ্মীকান্ত। কোনও রকমে তার হাত ছাড়িয়ে ছুটে পালায় কিশোরী। রীতিমতো আতঙ্কিত ও বিধ্বস্ত অবস্থায় বাড়ি ফিরে পরিবারের লোকদের ঘটনার কথা ওই কিশোরী জানায়। ক্ষুদ্ধ হয়ে তার পরিবারের লোকজন প্রথমে লক্ষ্মীকান্তর বাড়িতে গিয়েছিল। বাড়িতে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে সন্ধ্যায় কিশোরীটিকে নিয়ে তাঁরা পাড়া থানায় অভিযোগ জানাতে যান। অভিযোগ পেয়েই পাড়া থানার পুলিশ বনবেড়িয়া গ্রামে তদন্তে গিয়ে লক্ষ্মীকান্তর বাড়ি থেকেই তাকে গ্রেফতার করে। এর কিছু পরে ন’বছরের মেয়েটিকে নিয়ে থানায় অভিযোগ জানাতে যান তার পরিবারের লোকেরা।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, “ন’বছরের বালিকাকে ধর্ষণ ও এক কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে লক্ষ্মীকান্ত বাউরি নামের ওই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে।” তবে হঠাৎ করে পরপর দু’টি মেয়ের উপরে কেন অত্যাচার চালানোর অভিযোগ উঠল ওই যুবকের বিরুদ্ধে তা নিয়ে কিছুটা ধন্দে পুলিশ। তা জানতেই লক্ষ্মীকান্তকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার। তবে স্থানীয় সূত্রের খবর, এর আগেও এলাকায় মেয়েদের উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ রয়েছে ধৃতের বিরুদ্ধে। পুলিশ জানিয়েছে, সব কিছুই খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.