Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

পুরুলিয়ায় ডাকাতি করতে এসে শ্লীলতাহানি, নালিশ

স্ত্রীর সম্ভ্রম রক্ষা করতে গিয়ে ডাকাতদের ভোজালির কোপে আহত হলেন স্বামী। স্বামীকে রক্ষা করতে যাওয়ায় বধূর গলাতেও কোপ মারল দুষ্কৃতীরা। শুক্রব

নিজস্ব সংবাদদাতা
পুরুলিয়া ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০২:০৫

স্ত্রীর সম্ভ্রম রক্ষা করতে গিয়ে ডাকাতদের ভোজালির কোপে আহত হলেন স্বামী। স্বামীকে রক্ষা করতে যাওয়ায় বধূর গলাতেও কোপ মারল দুষ্কৃতীরা। শুক্রবার রাতে পুরুলিয়া মফস্সল থানা এলাকার ঘটনা। দু’জনকেই পুরুলিয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার পুলিশের কাছে ডাকাতির অভিযোগ দায়ের করা হয়। জেলা পুলিশ সুপার রূপেশ কুমার বলেন, “ডাকাতির অভিযোগ পেয়ে পুলিশ দুষ্কৃতীদের সন্ধানে তল্লাশি শুরু করেছে।”

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই যুবক পেশায় রাজমিস্ত্রি। রাতে স্বামী-স্ত্রী বাড়িতে ঘুমাচ্ছিলেন। গভীর রাতে স্ত্রী শৌচকর্ম করতে ঘর থেকে বের হন। সেই সময় পাঁচিল টপকে বাড়িতে ঢোকে জনা চারেক দুষ্কৃতী। ওই দম্পতি কিছু বুঝে ওঠার আগেই এক দুষ্কৃতী স্ত্রীর মাথায় রিভলবার ঠেকিয়ে তাঁকে ঘরের ভিতরে টেনে নিয়ে যায়। তারপর ঘরের আলো নিভিয়ে দেয়।

পুরুলিয়া সদর হাসপাতালে এ দিন স্বামী জানান, দুষ্কৃতীরা ঘরে ঢুকেই চটপট টাকা ও দামি জিনিসপত্র ওদের হাতে তুলে দিতে হুমকি দেয়। মোটরবাইক কেনার জন্য তিনি কয়েক হাজার টাকা জমিয়ে বিছানার নীচে রেখে দিয়েছিলেন। ভয়ে অন্ধকারের মধ্যে বিছানা হাতড়ে তিনি সেই টাকা দুষ্কৃতীদের তুলে দেন। তাঁর অভিযোগ, “এরপরেই দুষ্কৃতীরা আমার স্ত্রীর গায়ে হাত দেয়। স্ত্রী চিৎকার করে প্রতিবাদ করতেই আমি আর চুপ করে থাকতে পারিনি। ওদের বাধা দিতে গেলে একজন আমার গালে ধারাল অস্ত্রের কোপ মারে। আমার চিৎকার শুনে স্ত্রী বাঁচাতে গেলে দুষ্কৃতীরা ওর গলায় কোপ মারে। ইতিমধ্যে আমাদের চিৎকারে পড়শিদের ঘুম ভেঙে যায়। তাঁরা চেঁচামেচি করলে দুষ্কৃতীরা টাকা নিয়ে চম্পট দেয়।” ওই যুবকের বাঁ গালে চোট রয়েছে। তাঁর স্ত্রীর গলাতেও গভীর ক্ষত রয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছে। তিনি কথা বলার অবস্থায় নেই।

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, ওই যুবক অবশ্য লিখিত অভিযোগে স্ত্রীর শ্লীলতাহানির কথা উল্লেখ করেননি। পুরুলিয়া ২ ব্লক তৃণমূল নেতা কাঞ্চন দিগরের দাবি, “দুষ্কৃতীরা ওই বধূর শ্লীলতাহানি করেছে বলে শুনেছি। তবে এমন ঘটনার নজির এলাকায় নেই।” কয়েকদিন আগে এই জেলারই পুঞ্চায় একটি গ্রামীণ ব্যাঙ্কে দুষ্কৃতীরা নৈশ রক্ষীদের মারধর করে ভল্ট ভেঙেছিল। যদিও কাছাকাছি ছাত্রাবাসের ছেলেদের ঘণ্টা বাজিয়ে ঘুম থেকে তুলে গ্রামবাসী ব্যাঙ্ক ডাকাতি রুখে দেন। তারপরেও এই ডাকাতির ঘটনা বাসিন্দাদের উদ্বেগ বাড়িয়ে দিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আগামী কাল সোমবার এই এলাকা থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে হুড়া থানার লধুড়কায় প্রশাসনিক সভা করতে আসার কথা। তার আগে ডাকাতির এই ঘটনা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছে।

আরও পড়ুন

Advertisement