Advertisement
০৭ অক্টোবর ২০২২
Transport

Transport: রাস্তায় বাড়বে বাস, রাজস্ব ক্ষতি মেনে সাড়ে ৬ লাখ পুরনো গাড়িকে অনুমতি রাজ্যের

সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে সিলমোহর দেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে বেশিরভাগই বেসরকারি বাস, মিনিবাস, স্কুলবাস, ট্রাক ও লরি। এই সাড়ে ছয় লক্ষ গাড়ি রাস্তায় নামার বৈধতা হারিয়েছিল।

করোনাকালে বসে যাওয়া গাড়িগুলির রাস্তায় নামাতে ছাড় দিল রাজ্য সরকার।

করোনাকালে বসে যাওয়া গাড়িগুলির রাস্তায় নামাতে ছাড় দিল রাজ্য সরকার। প্রতীকী ছবি

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০২২ ২১:০৮
Share: Save:

রাজস্বের বিপুল ক্ষতি সত্ত্বেও বসে যাওয়া সাড়ে ৬ লক্ষ গাড়ি রাস্তায় নামার অনুমতি দিল রাজ্য সরকার। যার মধ্যে প্রচুর বাসও রয়েছে। সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে সিলমোহর দেওয়া হয়েছে। বাস ছাড়াও ওই তালিকায় মিনিবাস, স্কুলবাস, ট্রাক ও লরিও রয়েছে। পরিবহণ দফতর এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকা জারি করেছে।

ছাড় পাওয়াওই সাড়ে ৬ লক্ষ গাড়ি রাস্তায় নামার বৈধতা হারিয়েছিল। অনেক দিন আগে গাড়িগুলির ‘সার্টিফিকেট অব ফিটনেস’ (সিএফ)-এর মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছিল। ফলে রাজ্য সরকারের খাতায়বকেয়া ছিলমোটা অঙ্কের জরিমানা। করোনা সংক্রমণের সময় পরিবহণ পরিষেবা পুরোপুরি স্তব্ধ হয়ে যায়। যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেসরকারি গাড়ির মালিকেরা আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিলেন। ফলে তাঁরা এই বিরাট অঙ্কের জরিমানা দিতে পারছিলেন না বলেই দাবি করছিল বাস মালিকদের সংগঠনগুলি। তাদের সেই দাবির কথা মাথায় রেখেই সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে নামমাত্র জরিমানায় বসে যাওয়া গাড়িগুলিকে রাস্তায় নামার ছাড়পত্র দেওয়া হল।

প্রশাসনের একটি মহলের দাবি, এই সিদ্ধান্তের ফলে রাজ্য সরকারের রাজস্ব ক্ষতি হবে প্রায় ৩৫০ কোটি টাকা।সূত্রের খবর,পশ্চিমবঙ্গে সিএফ-এর মেয়াদ শেষ হওয়া বাণিজ্যিক গাড়ির সংখ্যা ছয় লক্ষ ৩৬ হাজার। পরিবহণ দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, বিশাল রাজস্ব ক্ষতি সত্ত্বেও রাজ্য সরকার এই গাড়িগুলিকে রাস্তায় নামতে দিচ্ছে। কারণ, সরকার ভেঙে পড়া বেসরকারি পরিবহণ ব্যবস্থাকে নিজের পায়ে দাঁড় করাতে চায়। করোনা সংক্রমণের কারণে পরিবহণ ব্যবসা যেভাবে মার খেয়েছে তাতে এই পদক্ষেপ অত্যন্ত জরুরি ছিল মনে করেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী।

আইন অনুযায়ী, সিএফ-এর মেয়াদ শেষ হওয়ার পর থেকে প্রতিদিন ৫০ টাকা হারে জরিমানা দিতে হয়। বসে যাওয়া গাড়িগুলির ক্ষেত্রে ১৫০ দিনের হিসাবেপ্রাপ্য জরিমানা বাবদ রাজ্য সরকারের রাজস্ব আয় হত প্রায় ৪৫০ কোটি টাকা। বেসরকারি পরিবহণ ক্ষেত্রের কথা মাথায় রেখে ৩০ দিনের জরিমানা নিয়ে সিএফ দেওয়ার সিদ্ধান্তে সিলমোহর দেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রে এই খাতে রাজস্ব আদায় হবে মাত্র ১০০ কোটি টাকা মতো। তবে বসে যাওয়া সব গাড়ি রাস্তায় নামলে সুরাহা হবেবেসরকারি পরিবহণের সঙ্গে যুক্ত থাকাদের। আবার একসঙ্গে এত টাকা রাজস্ব হিসাবে পেয়ে রাজ্যের লাভ হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.