×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

জঙ্গলে স্বামীর দেহ আগলে

নিজস্ব সংবাদদাতা 
কলকাতা ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ০১:৪১
—প্রতীকী ছবি।

—প্রতীকী ছবি।

জঙ্গলে কাঁকড়া ধরতে গিয়ে পথ হারিয়েছিলেন দম্পতি। সম্বল বলতে একটা ডিঙি নৌকোয় সামান্য খাবার-দাবার। প্রবল ঠান্ডায় অসুস্থ হয়ে মারা যান স্বামী। দু’দিন ধরে দেহ আগলে জঙ্গলে ছিলেন স্ত্রী। এক সময়ে জ্ঞান হারান। শেষমেশ মৎস্যজীবীরা দেখতে পেয়ে খবর দেন পুলিশকে।

সুন্দরবনের বসিরহাট রেঞ্জের আড়বেঁশের জঙ্গলের ঘটনা। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম পরিতোষ মণ্ডল (৪৫)। বৃহস্পতিবার উদ্ধার করা হয় তাঁর দেহ। পাশে তখন অচৈতন্য স্ত্রী অনিমা। দু’জনকেই নিয়ে যাওয়া হয় ছোটমোল্লাখালি ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। প্রাথমিক চিকিৎসার পরে অনিমাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তাঁর স্বামীর দেহ পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তে। মৃত স্বামীর দেহ ফেলে আসবেন কি না, প্রথমটায় ভেবে উঠতে পারেননি মহিলা। এক সময়ে সিদ্ধান্ত নেন, দেহ নিয়েই ফিরবেন। স্বামীর দেহ টানতে টানতে নদীর চরে নিয়ে আসেন অনিমা। কিন্তু এক সময়ে জ্ঞান হারান। এক পুলিশ কর্তার কথায়, ‘‘যদি আর কয়েক ঘণ্টা মহিলা এ ভাবে পড়ে থাকতেন ঠান্ডায়, তা হলে হয় তো বাঁচানো যেত না।’’

ওই দম্পতির দশ বছরের ছেলে। অনিমা জানান, ছোট ডিঙি নৌকো সম্বল করে মাছ-কঁকড়া ধরে সংসার চলে। সেই নৌকোর অবশ্য খোঁজ মেলেনি। অনিমা বলেন, ‘‘সংসারটাই ভেসে গেল, আর নৌকো!’’

Advertisement
Advertisement