২১ বছরের জন্মদিনেই এমন বিপর্যয় নেমে আসবে তা ঘুণাক্ষরেও টের পাননি তরুণী। লন্ডনে নিজের তুতো বোনের সঙ্গে জন্মদিন পালন করতে গিয়েছিলেন তিনি। তাঁর দু’চোখ জুড়ে শুধু ছিল মডেল হওয়ার স্বপ্ন। কিন্তু, মুসলিম পরিবারের মেয়ে এমন স্বপ্ন দেখবে কেন? তাই মুখে ছুটে আসে জ্বলন্ত অ্যাসিড। পার পায়নি তুতো বোন জামিল মুখতারও।

অ্যাসিড আক্রান্ত হয়েও ভেঙে পড়েননি উঠতি মডেল রেশম খান। এই বিপর্যয়কে নিজের ভবিতব্য বলে মেনে নিতে রাজি ছিলেন না তিনি। পরিবর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় হয়ে ওঠেন রেশম। কী ভাবে তিলে তিলে নিজেকে গড়ে তোলা, ঝলসানো মুখে স্কিন গ্রাফটিং, নিজের মেকআপ রুটিন— নিয়মিত নিজের ব্লগে শেয়ার করতে থাকেন।

আরও পড়ুন: 

অভয়া শক্তি বলপ্রদায়িনী তুমি জাগো

বিজ্ঞাপনে ঋতুস্রাব, প্রাপ্তমনস্কতার দিকে আরও এক ধাপ

চার মাস ধরে নিজেকে তৈরি করে অবশেষে ২৯ অক্টোবর তাঁর নতুন চেহারার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন রেশম। কতখানি লড়াই করে এই চেহারা পেয়েছেন, কী ভাবেই বা মেকআপের সাহায্যে ক্ষত ঢেকেছেন সেই কাহিনিও শোনান তিনি।

নিজের ব্লগে রেশম জানিয়েছেন, গোটা জার্নিটা ছিল খুবই কষ্টকর। যে চেহারাটা ইন্টারনেটে দেখা যাচ্ছে সেটা তাঁর আসল চেহারা নয়। অনেক মেকআপ দিয়ে ওই ক্ষত ঢাকতে হয়েছে। প্রতি দিন অনেক লড়াই করতে হয়েছে নিজের সঙ্গে। মেকআপে মুখের ক্ষত ঢাকলেও তাঁর চোখ এখনও স্বাভাবিক নয় বলে জানিয়েছেন রেশম।

ছবি পোস্টের সঙ্গে সঙ্গে ১৮০০ লাইক পড়ে ওই ছবিতে। উচ্ছ্বসিত প্রশংসা ও শুভেচ্ছায় উপচে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়াল।