Advertisement
২৭ নভেম্বর ২০২২

‘এ আল্লার কাজ’ মক্কার দুর্ঘটনা নিয়ে মন্তব্য দায়িত্বপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ারের

কোনও যান্ত্রিক ত্রুটি-বিচ্যুতির কথা স্বীকার করা হল না। দেওয়া হল শুধুই আল্লার দোহাই! আর সেই আল্লার দোহাই দিলেন মক্কায় মসজিদ-চত্বরে নির্মাণ-কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থার এক ইঞ্জিনিয়ার।

ছবি: এএফপি।

ছবি: এএফপি।

সংবাদসংস্থা
শেষ আপডেট: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫ ১৩:২৩
Share: Save:

কোনও যান্ত্রিক ত্রুটি-বিচ্যুতির কথা স্বীকার করা হল না। দেওয়া হল শুধুই আল্লার দোহাই!

Advertisement

আর সেই আল্লার দোহাই দিলেন মক্কায় মসজিদ-চত্বরে নির্মাণ-কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থার এক ইঞ্জিনিয়ার।

মক্কায় মসজিদ-চত্বরে নির্মাণ কাজ চলার সময় ভারী ক্রেন ভেঙে পড়ে মৃত্যু হয়েছে ১০৭ জনের। গুরুতর জখম হয়েছেন আরও অন্তত দু’শো জন।

এত বড় একটি দুর্ঘটনার পর কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত সৌদি আরবের নির্মাণকারী সংস্থার এক পদস্থ ইঞ্জিনিয়ারের কাছে কারণ জানতে চেয়েছিলেন সাংবাদিকরা।

Advertisement

নাম-প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ইঞ্জিনিয়ার তখন বলেন, ‘‘এটা কোনও যান্ত্রিক ত্রুটি-বিচ্যুতির ব্যাপারই নয়। যা ঘটেছে, তাতে কিছুই করার নেই মানুষের। সবই আল্লার ইচ্ছা! আর আমি যত দূর জানি, এ ব্যাপারে আমাদের কোনও দোষ নেই।’’

জনবহুল মসজিদ-চত্বরের ওই জায়গাটিতেই অত ভারী একটি ক্রেন রাখা ঠিক হয়েছিল কী?

ওই ইঞ্জিনিয়ারের সাফাই, ‘‘কোনও গলদ ছিল না। ক্রেনটিকে এমন ভাবে, এমন জায়গায় রাখা হয়েছিল, যাতে মসজিদ-চত্বরে আসা পূণ্যার্থীদের কোনও বিপদে পড়তে না হয়। আর তা যথেষ্ট দক্ষতার সঙ্গেই করা হয়েছিল। এত মানুষের জমায়েত হয় ওই জায়গায় যে, সেখানে কাজ করাটাই খুব কঠিন।’’

ওই ভারী ক্রেন ভেঙ্গে পড়ায় ওই এলাকায় কতটা কম্পন হয়েছিল, তা জানিয়েছেন এক প্রত্যক্ষদর্শী। তাঁর কথায়, ‘‘আমার গাড়িটা থরথর করে কেঁপে উঠেছিল।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.