×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

জঙ্গি-যোগ, দেশে ফিরল ঢাকার পাক কূটনীতিক

নিজস্ব সংবাদদাতা
ঢাকা ২৪ ডিসেম্বর ২০১৫ ০৪:৩২

জামাত-জঙ্গিদের সঙ্গে যোগসাজশের অভিযোগ ওঠা মহিলা কূটনীতিককে ঢাকা থেকে সরিয়ে নিল পাকিস্তান। বুধবার পাকিস্তান এয়ারলাইন্সের বিমানে ঢাকা ছেড়ে গিয়েছেন পাকিস্তান হাই কমিশনের সেকেন্ড সেক্রেটারি (পলিটিক্যাল) ফারিনা আর্শাদ। এর আগে জঙ্গি ও জাল নোটের কারবারিদের সঙ্গে বৈঠক করার সময়ে হাতেনাতে ধরা পড়ায় জানুয়ারিতে পাক দূতাবাসের আর এক কর্মকর্তা মজহর খানকে বহিষ্কার করে ঢাকা। বাংলাদেশের বিদেশ মন্ত্রকের এক কর্তার আশঙ্কা, ফারিনা ফিরে যাওয়ার পরে ইসলামাবাদে নিযুক্ত কোনও বাংলাদেশি কূটনীতিককে মনগড়া অভিযোগ তুলে বহিষ্কার করতে পারে পাকিস্তান।

ঢাকা থেকে ধৃত সন্দেহভাজন এক জেএমবি নেতা তাদের সঙ্গে পাক দূতাবাসের এক মহিলা কূটনীতিকের যোগের কথা স্বীকার করেছে বলে গত সপ্তাহে দাবি করেন ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দাপ্রধান। তিনি সুনির্দিষ্ট কারও নাম না-করলেও ওই জঙ্গি আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে জানায়— পাক হাই কমিশনের অফিসার ফারিনা আর্শাদ তাদের সঙ্গে যোগাযোগ তো রাখতেনই, টাকাকড়িও জোগাতেন। জাল ভারতীয় নোট পাচারকারীদের সঙ্গেও এই মহিলা কূটনীতিক যোগাযোগ রাখতেন বলে আদালতকে জানায় ওই সন্দেহভাজন জঙ্গি। পাকিস্তান হাই কমিশন বিবৃতি দিয়ে সব অভিযোগ অস্বীকার করে। তাদের কূটনীতিকের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে গোয়েন্দা পুলিশের সাজানো বলেও দাবি করে। তার পরে হঠাৎই এ দিন ফারিনা আর্শাদকে দেশে ফিরিয়ে নিল পাক সরকার। বাংলাদেশের বিদেশ মন্ত্রকের এক কর্তা জানান, ওই মহিলা কূটনীতিকের বিরুদ্ধে সরকারি ভাবে অভিযোগ জানানোর জন্য তৈরি হচ্ছিলেন তাঁরা। তার আগেই কোনও ঘোষণা ছাড়া ইসলামাবাদ ফারিনাকে সরিয়ে নেওয়ায় তাঁদের আশঙ্কা পাল্টা হিসেবে বাংলাদেশি কোনও কূটনীতিকের বিরুদ্ধে মনগড়া অভিযোগ তুলতে পারে তারা। এমনকী বহিষ্কারও করতে পারে।

Advertisement


Tags:

Advertisement