×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

‘গণতন্ত্রের নিগ্রহ’, ট্রাম্পকে ক্ষমা চাওয়ার পরামর্শ বাইডেনের

সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন ০৭ জানুয়ারি ২০২১ ০৯:১৭
জো বাইডেন। ছবি টুইটার থেকে।

জো বাইডেন। ছবি টুইটার থেকে।

আমেরিকার ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ে বুধবার ট্রাম্প সমর্থকদের হামলার তীব্র নিন্দা করলেন আমেরিকার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসাবে সদ্য নির্বাচিত জো বাইডেন। একে ‘হিংসাত্মক আক্রমণ’ হিসাবে চিহ্নিত করে ট্রাম্পকে টিভি চ্যানেলে গিয়ে হিংসা ‘বন্ধ’ করার জন্য আবেদন করার পরামর্শ দিয়েছেন বাইডেন।

আমেরিকার বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নামে স্লোগান দিয়ে তাঁর কিছু সমর্থক ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ে যে ‘গুণ্ডাগিরি’ করলেন তার নিন্দায় মুখর জো বাইডেন। বর্ষীয়ান এই ডেমোক্র্যাট বলেছেন, ‘‘এই সময়ে আমাদের গণতন্ত্র নজিরবিহীনভাবে নিগৃহীত।’’ এর পরই বিষয়টি নিয়ন্ত্রণের জন্য বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। বলেছেন, ‘‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে এখনই কোনও জাতীয় টিভি চ্যানেলে গিয়ে এই হিংসা থেকে মানুষকে বিরত করতে আবেদন করা উচিত।’’

ট্রাম্পের সমর্থকরা যে কাজটি করেছেন তাঁকে নিছক প্রতিবাদ বলতে নারাজ বাইডেন। তিনি বলেছেন, ‘‘ক্যাপিটলের ভিতর দাপিয়ে বেড়ানো, জানলা ভাঙা, অফিস দখল করা, নির্বাচনী আধিকারিকদের জীবন সংশয়ের মধ্য দাঁড় করানো— এ সবের কোনওটাই নিছক প্রতিবাদ নয়। এ সবই হিংসাত্মক হামলা।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট সাময়িক বন্ধ করল টুইটার, ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম, দিল হুঁশিয়ারিও

নির্বাচনে হারার পর থেকেই কারচুপির অভিযোগ এনে বার বার সরব হয়েছেন ট্রাম্প। ভোটের ফল না মানার কথা বলেছেন। ভোটের ফলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতেও গিয়েছেন। কিন্তু সেখানেও তাঁর আবেদন নাকচ হয়েছে। এর পরও জনসভা করে এই ধরনের দাবি করেই গিয়েছেন ট্রাম্প। বুধবারও এক জনসভায় ট্রাম্প হুমকি দিয়েছিলেন, “আমরা পিছু হটব না।” তার পরই ঘটল এই লজ্জাজনক ঘটনা। প্ররোচনামূলক পোস্টের অভিযোগে ইতিমধ্যেই ট্রাম্পের টুইটার, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Advertisement