Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

আন্তর্জাতিক

Taured Mystery: বৈধ পাসপোর্টে অস্তিত্বহীন দেশ, রহস্যজনক ভাবে উধাও ব্যক্তি কি ভিন্‌গ্রহী

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৯ অক্টোবর ২০২১ ১২:০৪
১৯৫৪ সাল। টোকিয়োর হানেদা বিমানবন্দরে নামেন এক ব্যক্তি। অন্য বিমানযাত্রীদের মতো তাঁকেও শুল্ক বিভাগের অধিকর্তাদের সামনে হাজির হতে হয় নিয়মবিধি পালনের জন্য।

তাঁর আচরণ, সঙ্গে থাকা নথি সবই ছিল সঠিক। তাতে সন্দেহ হয়নি শুল্ক অফিসারেরা। কিন্তু তিনি এমন একটি কথা বলেছিলেন যা শুনে চমকে উঠেছিলেন তাঁরা।
Advertisement
নিজের দেশের এমন একটি নাম বলেছিলেন মানচিত্রে যার কোনও অস্তিত্বই ছিল না। অথচ ওই ব্যক্তির পাসপোর্টেও ওই দেশের নামই লেখা ছিল!

ওই ব্যক্তি তাঁর দেশের নাম বলেছিলেন টরেড। এ রকম কোনও দেশ মানচিত্রে নেই। অথচ ব্যক্তির পাসপোর্টেও এই দেশের নামই লেখা ছিল এবং পাসপোর্ট খতিয়ে দেখে কোনও ভুল খুঁজে পাননি আধিকারিকরা।
Advertisement
শেষে মানচিত্রে দেশের অবস্থান দেখাতে বলেন তাঁরা। ওই ব্যক্তি বিন্দুমাত্র সময় না নিয়ে মানচিত্রে নিজের দেশের উপর আঙুল রাখেন। তিনি যেটাকে টরেড বলে চিহ্নিত করেছিলেন, সেটি বাস্তবে ছিল অ্যান্ডোরা। স্পেন এবং ফ্রান্সের সীমান্তে অবস্থিত একটি দেশ।

তাঁর হাজার বছরেরও পুরনো দেশ কেন মানচিত্রে অ্যান্ডোরা নামে চিহ্নিত রয়েছে সে নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেন তিনি। তাঁর কাছে একাধিক দেশের মুদ্রা পান শুল্ক অফিসারেরা। তিনি একাধিক ভাষায় অনর্গল কথা বলতেও পারতেন।

টোকিয়োর যে সংস্থায় তিনি কর্মরত বলে জানিয়েছিলেন, খোঁজ নিয়ে দেখা যায় সেই সংস্থা রয়েছে। অর্থাৎ তাঁর বিরুদ্ধে বেআইনি কিছুর প্রমাণ তখনও পর্যন্ত পাননি অফিসারেরা। তবে টোকিয়োর যে হোটেলে তিনি থাকেন বলে জানিয়েছিলেন সেই হোটেলের অস্তিত্ব থাকলেও তাতে তাঁর নামে কোনও ঘর বুকিং হয়নি বলে জানা গিয়েছিল।

তাঁর রহস্য উদ্ঘাটনের জন্য শেষে বিমানবন্দরের কাছে একটি হোটেলে তাঁকে সেই রাতের মতো রাখার ব্যবস্থা করেন অফিসাররা। তিনি যাতে পালাতে না পারেন তার জন্য ঘরের বাইরে দু’জন রক্ষীও মোতায়েন করা হয়।

ঘরটিতে একটিমাত্র দরজা ছিল। কোনও ব্যালকনিও ছিল না। বহুতলের একেবারে উপরের দিকে ছিল সেই ঘর। অথচ পর দিন সকালে শুল্ক অফিসারেরা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁর ঘরে ঢুকে হতভম্ব হয়ে যান। ঘরের মধ্যে ওই ব্যক্তি ছিলেন না। দরজা বাইরে থেকে বন্ধ করা ছিল।

অনেক চেষ্টার পরও তাঁর কোনও খোঁজ মেলেনি। কী ভাবে তিনি সকলের নজর এড়িয়ে চলে গেলেন তা আজও জানা যায়নি।

পরবর্তীকালে তাঁকে নিয়ে নানা মত উঠে এসেছে। কেউ মনে করেন, তিনি টাইম ট্রাভেল করে এসেছিলেন। কারও মতে তিনি ভিন্‌গ্রহের মানুষ। হুবহু পৃথিবীর মতোই দেখতে তাঁর সেই গ্রহ। এবং ওই গ্রহেরই একটি দেশ টরেড। রহস্যজনক দেশ থেকে আসা ওই ব্যক্তি রহস্য হয়েই রয়ে গিয়েছেন।