১৬ শ্রাবণ ১৪২১ শুক্রবার ১ অগস্ট ২০১৪ | কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ weather forecast সর্বোচ্চ : ৩৩.৪ °C     সর্বনিম্ন : ২৬.৭ °C

বাড়ানো হবে না আসন, জানিয়ে দিল প্রেসিডেন্সি

রাজ্যের অন্যান্য উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মতো প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়েও ভর্তি নিয়ে জট পাকিয়েছে। অবস্থান-আন্দোলন হয়েছে। তবে সেখানে স্নাতক নয়, জটিলতার মূলে আছে স্নাতকোত্তরে আসন বাড়ানোর দাবি। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়-কর্তৃপক্ষ ছাত্রছাত্রীদের চাপের কাছে মাথা নত করছেন না। স্নাতকোত্তরে আসন বাড়ানোর দাবিতে রাতভর বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থান করেছিলেন প্রেসিডেন্সির এক দল পড়ুয়া। বৃহস্পতিবার উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া জানিয়ে দিয়েছেন, আসন বাড়ানোর জন্য রাজ্য সরকারের কাছে কোনও আবেদন জানাবে না বিশ্ববিদ্যালয়।

নিজস্ব সংবাদদাতা
০১ অগস্ট, ২০১৪

নবারুণ ভট্টাচার্য প্রয়াত

নিজস্ব সংবাদদাতা

০১ অগস্ট, ২০১৪

অধ্যক্ষের ঘরে উত্তরপত্র ছুড়ে ভাঙচুর দু’দলের

নিজস্ব সংবাদদাতা

খাস কলকাতায় কলেজে হাঙ্গামার ঢেউ থামছেই না। বৃহস্পতিবার শ্যামাপ্রসাদ কলেজে অধ্যক্ষের ঘরে ঢুকে ভাঙচুর চালানো ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার খাতা ছুড়ে ফেলা হয়েছে। ওই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে এক দল ছাত্রের বিরুদ্ধে। সেই সঙ্গে এক দল বহিরাগতও জড়িত বলে অভিযোগ। কলেজ সূত্রের খবর, ছাত্র পরিষদ এবং তৃণমূল ছাত্র পরিষদ (টিএমসিপি)-এর সমর্থকদের মধ্যে গোলমালের জেরেই ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

০১ অগস্ট, ২০১৪

মেট্রোয় বিভ্রাট চলছেই, ব্যবস্থা নিতে বাধা রাজনীতি

নিজস্ব সংবাদদাতা

দিল্লি পেরেছিল। কলকাতা সে পথে হাঁটতেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপান-উতোর। ফলে মেট্রো বিভ্রাটের সমস্যাটাও রয়ে গেল সেই তিমিরেই। যার সর্বশেষ সংযোজন হল বৃহস্পতিবার। দুপুরে সেন্ট্রাল মেট্রো স্টেশনে ট্রেন ঢুকতেই চাকা থেকে গলগলিয়ে ধোঁয়া, কটু গন্ধ, আতঙ্কে যাত্রীদের ছুটোছুটি। স্টেশন কর্মীরা চটজলদি ব্যবস্থা নেওয়ায় মিনিট দশেকের মধ্যেই সমস্যা মিটলেও আরও এক বার প্রশ্নের মুখে মেট্রোর রক্ষণাবেক্ষণ ব্যবস্থা। কোথায় গলদ তা ধরা যাচ্ছে না কেন, কেনই বা দায়ভার চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া যাচ্ছে না— সেই প্রশ্ন তুলেছেন যাত্রীরা।

০১ অগস্ট, ২০১৪

দু’মাসে ৪০টি ছিনতাই, প্রশ্নে সুরক্ষা

নিজস্ব সংবাদদাতা

ফের শহরে ছিনতাইবাজদের দাপট। বৃহস্পতিবারের শহর সাক্ষী থাকল দু’টি ছিনতাইয়ের ঘটনার। প্রথমটি ঘটে যতীন্দ্রমোহন অ্যাভিনিউয়ে, দ্বিতীয়টি বি টি রোডে। পুলিশ জানায়, এ দিন শোভাবাজার স্ট্রিটের এক মহিলা যতীন্দ্রমোহন অ্যাভিনিউয়ে প্রাতর্ভ্রমণে যান। মহিলা জানান, তখনই এক দুষ্কৃতী মোটরবাইকে এসে তাঁর গলার হার ছিনতাই করে পালায়। শ্যামপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। এ দিকে, দুপুরে ব্যাঙ্ক থেকে কয়েক হাজার টাকা তুলে কাশীপুরে বাড়িতে ফিরছিলেন পিয়ালি দত্ত নামে এক মহিলা।

০১ অগস্ট, ২০১৪

বধূকে খুনের অভিযোগে পাকড়াও ফেসবুকের বন্ধু

নিজস্ব সংবাদদাতা

৩১ জুলাই, ২০১৪

নেট-বন্ধুদের কাছে খোলামেলা হলেই বাড়ে বিপদের শঙ্কা

কুন্তক চট্টোপাধ্যায়

ফেসবুকে এক কবির সঙ্গে আলাপ হয়েছিল সদ্য বিবাহবিচ্ছিন্না মহিলার। আলাপ ক্রমশ গড়ায় প্রেমে। বিয়েও ঠিক হয়ে যায়। কিন্তু বিয়ের ঠিক আগেই মহিলা জানতে পারেন, তাঁর হবু বর আদৌ কবি নন। তাঁর বিয়েও হয়ে গিয়েছে। এর পরেই ঝগড়াঝাঁটি শুরু। অভিযোগ, রাগ মেটাতে ফেসবুকেই ওই মহিলার সম্পর্কে কুৎসা ছড়াতে শুরু করেন সেই ভুয়ো কবি। হেনস্থার হাত থেকে বাঁচতে শেষ পর্যন্ত পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন ওই মহিলা।

৩১ জুলাই, ২০১৪

রূপান্তরকামীর বিয়েতে স্বীকৃতি দিচ্ছে এ শহরও

পারিজাত বন্দ্যোপাধ্যায়

৩১ জুলাই, ২০১৪

বহুতলে অগ্নি-যুদ্ধে নতুন মই কিনছে দমকল

নিজস্ব সংবাদদাতা

৩১ জুলাই, ২০১৪

‘রুপো’ কুড়োতে পথে নেমে হুড়োহুড়ি সল্টলেকে

নিজস্ব সংবাদদাতা

৩০ জুলাই, ২০১৪

কেষ্টপুরের নিহত মহিলার মোবাইল কই, খুঁজছে পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা

বাড়ি থেকে চুরি যায়নি কিছুই। সোনার হারও রয়ে গিয়েছে গলাতেই। উধাও শুধু মোবাইল ফোন। কেষ্টপুরের গৃহবধূ সোমা ঘোষের (৪৫) খুনের তদন্তে নেমে এখন সেই মোবাইলটিরই খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। তদন্তকারীদের ধারণা, মোবাইল ফোনটি পাওয়া গেলে রহস্যের অনেকটাই কিনারা হয়ে যাবে। তবে দেহ উদ্ধারের পরে ২৪ ঘণ্টা কেটে গেলেও খুনের কারণ সম্পর্কে এখনও কোনও নির্দিষ্ট সূত্রে পৌঁছতে পারেনি পুলিশ।

৩০ জুলাই, ২০১৪

এ বার ‘জালিয়াতি’ সেনা অফিসারদের অ্যাকাউন্টে

নিজস্ব সংবাদদাতা

দিন কয়েক আগে এটিএমে টাকা তুলতে গিয়েছিলেন উপকূলরক্ষী বাহিনীর এক অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ডান্ট। মেশিনে কার্ড ঢোকানো মাত্রই দেখেন, কার্ড ব্লক। এর দিন দশেক পরে অনলাইনে নিজের অ্যাকাউন্টে তিনি দেখেন, সেখান থেকে দু’দফায় উধাও প্রায় ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা।

৩০ জুলাই, ২০১৪

ডুবন্তদের বাঁচাল কিশোর

ডুবন্ত দুই কিশোরকে বাঁচাল আর এক কিশোর। বুধবার বিকেলে, মিলেনিয়াম পার্কে। যদিও শেখ দানিশ (১৯) নামে এক জন তলিয়ে গিয়েছে। তার বাড়ি এন্টালিতে। বৃহস্পতিবার সকালে তার দেহ উদ্ধার করে কলকাতা পুলিশের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। পুলিশ জানায়, শোয়েব নুর নামে গার্ডেনরিচের বাসিন্দা এক কিশোর তার বন্ধুদের সঙ্গে মিলেনিয়াম পার্কে গিয়েছিল। সমীর, ফারুক, দানিশরাও বেড়াতে গিয়েছিল ওই পার্কে। পুলিশ জানায়, চটি গঙ্গার জলে পড়ে যেতে সেটি তুলে আনার জন্য প্রথমে ঝাঁপ মারে ফারুক। তাকে পড়ে যেতে দেখে ঝাঁপ দেয় সমীর।

পড়ুন