৫ বৈশাখ ১৪২১ শনিবার ১৯ এপ্রিল ২০১৪ | কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ weather forecast সর্বোচ্চ : ৩৭.৫°C     সর্বনিম্ন : ২৭.১°C

এই মুহূর্তে

মোদীর ভাবনায় সিঙ্গুরও, ক্ষমতায় এলে শিল্প গড়তে সাহায্যের আশ্বাস

কেন্দ্রে ক্ষমতায় এলে সিঙ্গুরে একটি বড় শিল্প গড়ার ব্যাপারে উদ্যোগী হবেন নরেন্দ্র মোদী। তৃণমূলের লাগাতার জমি আন্দোলনের জেরে ২০০৮ সালে সিঙ্গুর থেকে তাদের নির্মীয়মান ন্যানো কারখানা গুজরাতের সানন্দে তুলে নিয়ে গিয়েছিল টাটা মোটরস। আনন্দবাজারকে দেওয়া এক একান্ত সাক্ষাৎকারে বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী বলেন, “টাটাদের সেই সঙ্কটের মুহূর্তে আমি ওদের জমি দিয়েছিলাম। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের জন্য কোথাও একটা অপরাধবোধ আমার থেকে গিয়েছে। কারণ, তাদের বঞ্চিত করাটা তো আমার উদ্দেশ্য ছিল না। তাই আজ যখন গুজরাতের বাইরে বেরিয়ে গোটা দেশের উন্নয়নের কথা ভাবছি, তখন সিঙ্গুর নিয়ে একটা ভাবনাও আমার মধ্যে কাজ করছে।”

১৮ এপ্রিল, ২০১৪


হিসেব কষেই মোদীকে বিঁধছেন জয়া

ভোটের আগে এখন নরেন্দ্র মোদীকেও তীব্র আক্রমণ শুরু করলেন জয়ললিতা। অথচ গত কালও মোদী বলেছেন, আদর্শের ফারাক থাকলেও জয়ললিতার সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত সম্পর্ক যথেষ্ট ভাল। জয়ললিতা আজ বলেন, গুজরাতের উন্নয়নের মডেল আসলে ‘মিথ’। বলেন, “গুজরাতের উন্নয়ন নিয়ে যে ঢাক পেটানো হয়, সেটা আদৌ বাস্তব নয়তামিলনাড়ুতে মানুষের জন্য উন্নয়ন করে দেখিয়েছি আমি। কিন্তু, গুজরাতের মতো উন্নয়নকে বিপণন করিনি।” এর আগে কংগ্রেসের সনিয়া গাঁধী-রাহুল গাঁধী থেকে শুরু করে সব মোদী-বিরোধীই এই ভাষাতেই বিজেপির প্রধানমন্ত্রী প্রার্থীকে কটাক্ষ করেছেন। জয়ার মন্তব্যকে আজ স্বাগত জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলও।

১৮ এপ্রিল, ২০১৪











দেশ

জওয়ানদের হাত ধরে বুথে
ফিরল জঙ্গি দুর্গ সারান্ডা

মাওবাদী ‘দুর্গ’ সারান্ডায় বাড়ি বাড়ি ঘুরে ভোটারদের বুথে নিয়ে গেলেন জওয়ানরা। দ্বিতীয় দফার ভোটে এমনই ছবি দেখা গেল ঝাড়খণ্ডে। রাজ্যের ছ’টি লোকসভা কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ-পর্ব মিটল কার্যত শান্তিপূর্ণ ভাবেই। আতঙ্ক ছড়াতে তৎপর ছিল মাওবাদীরা। সাধারণ মানুষকে ভয় দেখাতে গিরিডি কেন্দ্রের কয়েকটি এলাকায় ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

4
১৮ এপ্রিল, ২০১৪

রাজ্য

রাতে পুলিশের দু’ঘণ্টা জেরা,
ক্লান্ত বাবুল বেরোলেন হাসিমুখেই

পুলিশের সমন ছিলই। দিনভর প্রচারের পর রাতে হাজিরা দিলেন বাবুল সুপ্রিয়। গোড়া থেকেই বাবুল বারবার বলছেন, হারার ভয়ে তাঁকে মিথ্যা মামলায় ব্যতিব্যস্ত করতে চাইছে তৃণমূল। থানা-পুলিশ-আদালত দৌড় করিয়ে প্রচারের ময়দান থেকে তাঁকে দূরে সরিয়ে রাখার চেষ্টা চলছে বলেও বিজেপি-র দাবি।

8
১৮ এপ্রিল, ২০১৪

দক্ষিণবঙ্গ

প্রচারে রাস্তা নিয়ে
বিক্ষোভের মুখে কল্যাণ

রোড-শো করতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন শ্রীরামপুরের বিদায়ী সাংসদ তথা তৃণমূল প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে জগৎবল্লভপুর বিধানসভা এলাকার ডোমজুড়ে রুদ্রপুর পঞ্চায়েতের জাবতাপোতা মোড়ে রাস্তায় বাঁশ ফেলে তাঁরা গাড়ি আটকানো হয়। প্রার্থী অবশ্য গাড়ি ছেড়ে নামেননি। নির্বাচন কমিশনের এমসিসি-দলের কাছে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করে।

1
১৮ এপ্রিল, ২০১৪

রাজ্য

বাংলায় ভোটের শুরুতেই
রাশ রাকেশের হাতে

রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী অফিসারের দফতরে তিনি ঢুকলেন বৃহস্পতিবার বেলা ঠিক ১১টায়। আর ঢুকেই বুঝিয়ে দিলেন, দিল্লি থেকে কী উদ্দেশ্যে তাঁকে পাঠানো হয়েছে কলকাতায়। বিশেষ পর্যবেক্ষক হিসেবে সুধীরকুমার রাকেশকে যে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী অফিসারের মাথার উপরে বসানো হচ্ছে, বুধবার সেই বার্তাই এসেছিল দিল্লি থেকে। এ দিন টানা সাত ঘণ্টা মুখ্য নির্বাচনী অফিসার (সিইও)-এর দফতরে বসে রাজ্যের প্রথম দফার নির্বাচন পরিচালনা করলেন রাকেশ। কী ভাবে?

9
১৮ এপ্রিল, ২০১৪

বিদেশ

ডুবছে জাহাজ, শেষ বারের
মতো মাকে মোবাইলে বার্তা পড়ুয়ার

“পরে কখনও বলার সুযোগ পাব কি না জানি না, তোমায় খুব ভালবাসি মা।” ছেলে শিন ইয়ং জিনের থেকে এ রকম একটা এসএমএস পেয়েই মনটা কু ডেকেছিল। তা-ও সঙ্গে সঙ্গে উত্তর পাঠিয়েছিলেন মা। “তোমাকেও খুব ভালবাসি।” তখনও জানতেন না, ছেলে বাঁচার জন্য লড়াই করছে সমুদ্রের মাঝখানে। শিন অবশ্য সেই সৌভাগ্যবানদের মধ্যে এক জন, যে মায়ের কাছে ফিরতে পেরেছে।

1
১৮ এপ্রিল, ২০১৪

উত্তরবঙ্গ

মালদহে কোতোয়ালির
দিকে আক্রমণ মমতার

মালদহে গিয়ে এ বার কোতোয়ালির (গনি পরিবারের বাসভবন) দিকে আঙুল তুললেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার গনি খান চৌধুরীর পরিবারের দুই সদস্য তথা মালদহের দুই বিদায়ী কংগ্রেস সাংসদের নাম মুখে না আনলেও, বিঁধতে ছাড়েননি মুখ্যমন্ত্রী।

১৮ এপ্রিল, ২০১৪

উত্তরবঙ্গ

কোচবিহারে সন্ত্রাসের
অভিযোগ বিরোধীদের

রাজ্যে লোকসভা ভোটের প্রথম পর্বেই সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে সরব হল বিরোধীরা। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দিনভর কোচবিহারে এমনই নানা অভিযোগ উঠেছে শাসক তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের তরফে অবশ্য সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করা হয়েছে।

4
১৮ এপ্রিল, ২০১৪

বর্ধমান

নকশাল নেতা সোমনাথ
এ বার বংশর পাশে

নকশাল কর্মী থাকাকালীন দোলা সেন ছিলেন তাঁর সতীর্থ। পরে দোলা যোগ দেন তৃণমূলে। তৃণমূলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে তাঁরও। এ বার তাঁকে দেখা গেল এই কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী বংশগোপাল চৌধুরীর পাশে। তিনি সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়।

6
১৮ এপ্রিল, ২০১৪
a

আপনিই লিখুন

চলছে লোকসভা ভোট। কী ভাবছেন আপনারা? যেখানেই থাকুন না কেন, স্বদেশে ভোট দিতে আসুন বা না আসুন, কী চান আপনার এলাকার নবনির্বাচিত সাংসদের কাছ থেকে? নিজের এলাকার উন্নয়নের জন্য আপনার সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব কী? আপনার ভাবনা-স্বপ্ন-ইচ্ছে বাংলা বা রোমান হরফে বাংলায় লিখে পাঠান আমাদের। নির্বাচিত লেখা প্রকাশ পাবে এই ওয়েবসাইটে। লেখার সঙ্গে আপনার সবিস্তার ঠিকানা ও কোন এলাকার জন্য লিখছেন তা জানাবেন। মেল করুন এই ঠিকানায়: loksabhavote@abp.in

বিশেষ বিভাগ












স্বাস্থ্য
দেশ
রাজ্য

দেখবে মেয়ে জগৎটাকে, সময়ের সঙ্গে দৌড় বাবা-মায়ের

এক মনে এখন তালিকায় একটা একটা করে টিক দিচ্ছে বছর ছয়েকের মেয়েটা। হিসেব করে দেখছে, কী কী দেখা বাকি আর কী কী দেখা হল। কারণ হাতে যে বেশি সময় নেই। ম্যাঞ্চেস্টার শহরের ব্ল্যাকলির ছোট্ট মলির চোখ দু’টো আর কিছু দিনের মধ্যে নষ্ট হয়ে যাবে। তেমনটাই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। বংশগত রোগ রেটিনাইটিস পিগমেন্টোসায় আক্রান্ত সে।


যন্ত্রমানবের হাত ধরেই কুয়ো থেকে উদ্ধার শিশু

কুয়োয় পড়ে গিয়ে যারপরনাই ভয় পেয়ে গিয়েছিল বছর তিনেকের এক খুদে। হঠাৎই নেমে এল ‘আশার হাত’। না মানুষের নয়, হাতটি ছিল এক যন্ত্রমানব বা রোবটের। শেষমেশ সেই রোবটের হাত ধরেই কুয়ো থেকে উঠেছে দক্ষিণ তামিলনাড়ুর ওই বাসিন্দা। এ ভাবে তাঁদের সন্তানের প্রাণ বাঁচানোর জন্য শিশুটির মা-বাবা অবশ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছেন এম মনিগন্ডনকে। তাঁর তৈরি যন্ত্রমানবই তো বুধবার প্রাণ বাঁচিয়েছে খুদের।


প্রতীক-বিভ্রাট, টর্চ হাতে সমীর, গ্লাস ধরল এস ইউ সি

বড় দলের ভিড়ে তাদের লড়াই এমনিতেই কঠিন। তার উপরে প্রতীক-বিভ্রাট এ বার কাজ আরও জটিল করে তুলেছে এসইউসি, পিডিএসের মতো ছোট দলগুলির জন্য! গত কয়েক বছর ধরে যে সব চেনা প্রতীক নিয়ে এসইউসি বা পিডিএস ভোটে লড়ে, এ বার তার অদল-বদল ঘটেছে। বাধ্য হয়েই অচেনা প্রতীক নিয়ে মানুষকে চেনাতে নেমেছে তারা! রাজ্যে শেষ পর্বের লোকসভা ভোটের জন্যও বৃহস্পতিবার থেকে মনোনয়ন জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে।


1

১৯৭৫

রাশিয়ার কাপুস্তিন ইয়ার থেকে উৎক্ষেপিত হল ভারতের প্রথম কৃত্তিম উপগ্রহ আর্যভট্ট। এটি প্রাচীন ভারতের বিশিষ্ট বিজ্ঞানী আর্যভট্টের নামাঙ্কিত। কসমস-৩এম লঞ্চ ভেহিকলের মাধ্যমে উৎক্ষেপিত হয় উপগ্রহটি। মহাকাশ সংক্রান্ত গবেষণা চালানোর জন্য এই উপগ্রহটি নির্মাণ করে ইসরো। ১৯৯২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি পুনরায় পৃথিবীতে ফিরে আসে উপগ্রহটি।