১৮ ভাদ্র ১৪২২ শুক্রবার ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫



































কলকাতা

ফাঁকা রাস্তা, বন্ধ দোকান,
এ বার সুনসান শিল্পতালুকও

আর পাঁচটা অফিসপাড়ার মতোই ধর্মঘটের চেনা চেহারায় ফিরে গেল তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পতালুক সেক্টর ফাইভ। বুধবার ১১টি কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনের ডাকা ধর্মঘটের দিনে শহরের সুনসান চেহারার সঙ্গে সেক্টর ফাইভের ছবির পার্থক্য নেই।

2
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
facebook twitter

নদিয়া-মুর্শিদাবাদ

সুনসান রাস্তাঘাট দেখে স্বস্তিতে নদিয়া সিপিএম

বুধবার দিনের শেষে বাম শ্রমিক সংগঠনগুলির দাবি নদিয়ায় বন্‌ধ সর্বাত্মক। এ দিন জেলার নানা প্রান্ত থেকে উঠে আসা একের পর এক ছবি দেখিয়ে সংগঠনের নেতারা দাবি করেছেন বিধানসভা নির্বাচনের আগে এটা তাঁদের কাছে স্বস্তির। কর্মীরাও উৎসাহিত।

2
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
facebook twitter

পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর

তৃণমূলের টক্কর, তবু বন্্ধে সাড়া দু’জেলাতেই

বামপন্থী শ্রমিক সংগঠনগুলির ডাকা ধর্মঘটে মিশ্র সাড়া পড়ল পূর্ব মেদিনীপুর জেলায়। জেলার সব সরকারি অফিস, স্কুল, কলেজ খোলা ছিল। তবে তমলুক প্রধান ডাকঘর, অধিকাংশ ব্যাঙ্কের শাখা, বাজারগুলিতে দোকানপাট বন্ধ ছিল।

2
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
facebook twitter

রাজ্য

অবরোধ তুলতে পাল্টা প্রতিরোধ,
সিপিএম নেতাকে ফেলা হল পুকুরে

সিপিএমের পার্টি অফিস ভাঙচুর, বন্‌ধ সমর্থকদের ধরে পানা-পুকুরে চোবানো, পুলিশকে মারধর, হাতাহাতি, মারামারি— সাধারণ ধর্মঘটে দফায় দফায় এমন নানা ঘটনার সাক্ষী থাকল বসিরহাট।

1
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
facebook twitter

পুরুলিয়া-বীরভূম-বাঁকুড়া

সচল সরকারি দফতর, অমিল বাস

সরকারি বাস অপ্রতুলভাবে চলাচল করলেও দেখা মেলেনি একটিও বেসরকারি বাসের। জেলাজুড়ে বন্ধ ছিল বহু দোকানপাটও। স্কুল কলেজ খোলা থাকলেও পড়ুয়াদের উপস্থিতি অত্যন্ত কম।

5
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
facebook twitter

বর্ধমান

বোমার জবাবে তির, জখম দু’দলের ১৩

বোমা-গুলির পাল্টা তিন-ধনুক। বন্‌ধের সকালে দফায় দফায় সিপিএম-তৃণমূলের এমনই লড়াই দেখল আউশগ্রাম। জখম হলেন দু’দলের ১৩ কর্মী। ছররা লেগে জখম হলেন এক সিপিএম কর্মী।

2
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
facebook twitter

রাজ্য

ধর্মঘটের দোসর বৃষ্টি, সুনসান উত্তর

সরকারি অফিস খোলা থাকলেও বুধবার বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের ডাকা সাধারণ ধর্মঘটে বিপর্যস্ত হল উত্তরবঙ্গের জনজীবন। শিলিগুড়ি থেকে কুমারগ্রাম, মালদহ থেকে কোচবিহার প্রায় সর্বত্রই জীবনযাত্রার স্বাভাবিক ছবিটা ছিল উধাও।

1-1
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
facebook twitter

হাওড়া ও হুগলি

সরকারি বাস থাকলেও
দেখা মিলল না বেসরকারি যানের

সুনসান মুম্বই রোড। শুধুমাত্র যাত্রীহীন ফাঁকা সরকারি বাস ছুটছে। দেখা মেলেনি অধিকাংশ রুটের বেসরকারি বাস, অটো, ট্রেকার এবং ছোট গাড়ির। ঝাঁপ বন্ধ ছিল অধিকাংশ দোকানপাটের। বাজার বসেছে নামমাত্র।

2
০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
facebook twitter

আপনার পছন্দ

পড়া এখনই

মনের ঝড় সামলে বাবলিকে বললাম, আমিই সেই সিদ্ধার্থ

সিপিএমের বিধায়ক, প্রাক্তন সাংসদকে রাস্তায় ফেলে পেটাল তৃণমূল

সুচেতার টাকা ও গয়নার জন্যই খুন, ইঙ্গিত

শুনশান কলকাতা, রাজ্য দেখল বোমা-লাঠি-বাইকের দাপট

আমেরিকাতেই শিনা, নতুন দাবি ইন্দ্রাণীর

বধূকে খুনের অভিযোগে ধৃত শ্বশুর-শাশুড়ি

ঝোলা তারে আটকে স্কুল ভবনের কাজ

ফকিরচাঁদ কলেজে মারপিটে জখম

নামখানা ঘাটে ভেসেলে বড় গাড়ি পারাপার বন্ধ, দুর্ভোগ বহু মানুষের

ভরা কোটালে সুন্দরবনে ভাঙছে বাঁধ










বিশেষ বিভাগ












সম্পাদকীয়
উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা
দেশ

প্রথম ধাক্কাটা ছিল নকশাল আন্দোলনের

পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষাজগতে বামফ্রন্ট আমলে দলীয় আনুগত্যের শাসন জারি হয়েছিল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হয়ে দৃপ্ত ঘোষণা করেন, শিক্ষাজগতে আমূল পরিবর্তন আনবেন। কিন্তু আজও ছবিটা আগের মতোই। আমরা নিরুপায় দর্শক।

ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ, নৈহাটিতে ধৃত জ্যোতিষী

কপালে লাল তিলক। পরণে গেরুয়া পোশাক। মুখ গামছায় বাঁধা। দেখনদারি বেশভূষায় সজ্জিত মাঝবয়সী জ্যোতিষীকে ঘর থেকে যখন পুলিশি পাহারায় বের করে আনা হচ্ছে, তখনও উত্তেজিত জনতা চিৎকার করছে, ‘‘ভণ্ড লোকটাকে আমাদের হাতে ছেড়ে দিন! আমরাই ওকে উচিত শিক্ষা দেবো।’’

আয় বাড়াতে মাঝপথে যাত্রী তুলবে দুরন্তও

এক টার্মিনাল বা প্রান্তিক স্টেশনে ওঠা এবং শেষ টার্মিনালে নামা। এই ছিল বাড়তি গতির এক্সপ্রেস ট্রেন ‘দুরন্ত’-এর বৈশিষ্ট্য। এ বার সেই বৈশিষ্ট্য মুছে যাচ্ছে। নতুন ব্যবস্থায় মাঝপথেও কিছু স্টেশনে যাত্রীরা ওঠানামা করতে পারবেন দুরন্ত এক্সপ্রেসে।

আজকের দিন

4date
৪ সেপ্টেম্বর, ১৮৮০
কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন বিপ্লবী ভূপেন্দ্রনাথ দত্ত। কেশবচন্দ্র সেন ও দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুরের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে তিনি ব্রাহ্মসমাজে যোগ দেন। ১৯০২ সালে প্রমথনাথ মিত্রের ‘বেঙ্গল রিভলিউশনারি সোসাইটি’তে যোগ দেন। অরবিন্দ ঘোষের সহায়তায় ১৯০৬ সালে বিপ্লবী সাপ্তাহিক পত্রিকা ‘যুগান্তর’-এর সম্পাদক হন। বৈপ্লবিক আন্দোলনের পাশপাশি তিনি সমাজতত্ত্ব এবং নৃতত্ত্বের গবেষণার জন্য ১৯২৩ খ্রিস্টাব্দ থেকে হামবুর্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টরেট উপাধি পান। ১৯২০ সালে জার্মান অ্যানথ্রপোলজিক্যাল সোসাইটি এবং ১৯২৪ খ্রিস্টাব্দে জার্মান এশিয়াটিক সোসাইটির সদস্য হন। ১৯৩৬-এ ভারতের কৃষক আন্দোলনে যুক্ত থেকে বঙ্গীয় কৃষক সভার সভাপতি এবং দু’বার অখিল ভারত ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেসের অধিবেশনে সভাপতি নিযুক্ত হন।