১৪ শ্রাবণ ১৪২১ বুধবার ৩০ জুলাই ২০১৪ | কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ weather forecast সর্বোচ্চ : ৩৩.৫°C     সর্বনিম্ন : ২৭.১°C

অগত্যা

লালুপ্রসাদ এবং নীতীশ কুমার একদা একই দলে ছিলেন। বস্তুত, নীতীশ লালুপ্রসাদের দক্ষিণহস্ত রূপেই পরিচিত ছিলেন। তখন মণ্ডল রাজনীতির সুবর্ণযুগ, যখন কর্পূরী ঠাকুরের এই দুই ভাবশিষ্য অবিভক্ত বিহারের রাজ্য-রাজনীতিতে আলোড়ন ফেলিয়া দিয়াছিলেন।

২৯ জুলাই, ২০১৪

অবৈধ, অবৈধই

কলিকাতা হাইকোর্ট জানাইয়া দিয়াছে, শহরে গড়িয়া ওঠা বেআইনি নির্মাণকে জরিমানা লইয়া আইনসিদ্ধ করার এক্তিয়ার কলিকাতা পুরসভার নাই। হাইকোর্টকে কেন এই মর্মে রায় দিতে হইবে, কেন বেআইনি নির্মাণ এমনিতেই ভাঙিয়া ফেলা হইবে না, আপাতদৃষ্টিতে তাহা বুঝা কঠিন। কিন্তু কলিকাতা ও শহরতলিতে, বস্তুত গোটা রাজ্যেই বেআইনি নির্মাণ একপ্রকার দস্তুর হইয়া পড়িয়াছে।

২৯ জুলাই, ২০১৪

তোলাবাজিটাও যদি ঠিক ভাবে করা যেত

অমিতাভ গুপ্ত

২৯ জুলাই, ২০১৪

রাষ্ট্র একটু হাত বাড়ালেই ওঁরা বেঁচে যান

স্বাগত নন্দী ও মুখলেসুর রহমান গাইন

২৯ জুলাই, ২০১৪

ইফতার রাজনীতি

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাষ্ট্রপতি প্রদত্ত ইফতার ভোজে যান নাই। তাঁহার মন্ত্রিবর্গকেও ইফতার ভোজ দিতে বারণ করিয়াছেন। অতঃপর প্রত্যাশিত ভাবেই ভারতীয় রাজনীতিতে ফের সাম্প্রদায়িকতা বিতর্কটি মাথা চাড়া দিয়াছে, ঘোলা জলে রোহিতাদি শিকারের প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলিতেছে। কিছু বিড়ম্বনারও সৃষ্টি হইয়াছে বিরোধী কংগ্রেস সভানেত্রী নাকি প্রথমে বর্ষীয়ান নেতা এ কে অ্যান্টনির পরামর্শে ইফতার ভোজ না দেওয়া মনস্থ করিয়াছিলেন, কিন্তু পরে, সম্ভবত প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত জানিয়া, মত বদলাইয়াছেন।

২৮ জুলাই, ২০১৪

পরিবর্তন

সেই ইউপিএ নাই। কাজেই, সেই জাতীয় গ্রামীণ কর্মসংস্থান নিশ্চয়তা যোজনা, তাহার আদি রূপে, যে থাকিবে না, তাহা প্রত্যাশিতই ছিল। কেন্দ্রীয় সরকার প্রকল্পটির চরিত্র পাল্টাইবার সিদ্ধান্ত করিয়াছে। অতঃপর রাজ্য সরকারগুলির ভূমিকা অনেক বাড়িবে। রাজ্যের কোন কোন ব্লক এই প্রকল্পের আওতায় আসিবে, তাহা বাছাই করা হইতে প্রকল্পে কাজ পাইবার যোগ্য প্রার্থী শনাক্ত করা, অনেক দায়িত্বই রাজ্য সরকারের স্কন্ধে ন্যস্ত হইল।

২৮ জুলাই, ২০১৪

যুদ্ধ

বিশ শতকের আধাআধি থেকে পৃথিবী কম অশান্তি, বিপর্যয় দেখেনি। তবু তার আগেই যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ ঘটেছিল, তার তুলনা আজও মেলা ভার। সভ্যতার মর্মান্তিকতম ঘটনাগুলি শো-কেস করার জন্য দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ মানবেতিহাসে একটি বিশিষ্ট স্থানের অধিকারী।

২৭ জুলাই, ২০১৪

শৌখিন বেদনা

২৭ জুলাই, ২০১৪

অন্ধ এবং ভ্রান্ত

ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা ‘পাকিস্তানের পুত্রবধূ’, অতএব তাঁহাকে ভারতের নূতন অঙ্গরাজ্য তেলঙ্গানার ‘ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর’ নিয়োগ করা অনুচিত— বিজেপি নেতা কে লক্ষ্মণের এই উক্তিকে ‘অমৃতং বালভাষিতম্’ বলা চলে না। লক্ষ্মণ প্রাপ্তবয়স্ক রাজনীতিক। সানিয়া নিজে এই বক্তব্যে স্বভাবতই বিরক্ত। প্রকাশ্যে বিবৃতি দিয়া তিনি জানাইয়াছেন, পাক ক্রিকেটারকে বিবাহ করিলেও তিনি প্রথমত হায়দরাবাদি ও ভারতীয়, আমৃত্যু তাহাই থাকিবেন।

২৬ জুলাই, ২০১৪

কেন বাধ্যতে

এক দশক আগে বিচারপতি নিয়োগের ঘটনা লইয়া অভিযোগ থাকিলে তাহা কেন এক দশক পরে জনসমক্ষে আনিলেন, এই প্রশ্নের সদুত্তর সুপ্রিম কোর্টের ভূতপর্ব বিচারপতি এবং প্রেস কাউন্সিলের কর্ণধার মার্কণ্ডেয় কাটজু দেন নাই। হয়তো সৎ উত্তর নাই বলিয়াই দেন নাই। কিন্তু অভিযোগ বিলম্বিত হইলেও, এমনকী বিশেষ অভিযোগটি যাচাই করিয়া তাহার সত্যাসত্য প্রতিষ্ঠার সুযোগ আর না থাকিলেও, তাহার গুরুত্ব কমে না।

২৬ জুলাই, ২০১৪

তেঁতুলপাতা নহে

সাধারণ ভাবেই ভারতে নিয়মভিত্তিক বা ‘রুল বেসড’ সমাজ আজও অপরিণত, অপূর্ণ। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ ক্রমশ একটি বেনিয়ম-ভিত্তিক সমাজে পরিণত হইতেছে। যাহা স্বাভাবিক নিয়ম, তাহা লঙ্ঘনের দাবি যদি একটি স্তর হয়, তবে সেই দাবি পূরণের জন্য অন্যায় অশোভন চাপ সৃষ্টির প্রবণতা তাহার অন্য স্তর।

২৫ জুলাই, ২০১৪

ব্যর্থ সাধনা

রিচার্ড লইতংবাম, নিদো টানিয়া, সালোনি একের পর এক উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় তরুণ ভারতীয় মূল স্রোতে মিশিতে চাহিয়াছেন। তাঁহারা প্রত্যন্ত মণিপুর কিংবা অরুণাচল প্রদেশ ছাড়িয়া কেহ পড়াশুনা করিতে, কেহ বা চাকুরি করিতে দিল্লি বা বেঙ্গালুরুতে পাড়ি দিয়াছিলেন।

২৫ জুলাই, ২০১৪