১৭ ভাদ্র ১৪২১ বুধবার ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ | কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ weather forecast সর্বোচ্চ : ৩০.৬ °C     সর্বনিম্ন : ২৫.০ °C

ফৌজ-ই-গণতন্ত্র

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী ধীর কিন্তু নিশ্চিত গতিতে, কিছুটা অন্তরালে থাকিয়া দেশের রাজনীতি ও প্রশাসনের উপর হৃত প্রাধান্য ফিরাইয়া আনিতেছে। উপলক্ষ: ইমরান খানের তেহরিক-ই-ইনসাফ এবং মৌলবি তাহির-উল-কাদরির অনুগামীদের অবরোধ আন্দোলন। প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ইস্তফার দাবিতে আন্দোলনকারীরা পাক স্বাধীনতা-দিবসে ইসলামাবাদ অবধি পদযাত্রা করিয়া রাজধানী অবরুদ্ধ করেন।

০২ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

বিভাজন ও সংহতি

মেরুকরণের রাজনীতি আবার উত্তর ভারতের নির্বাচনী তত্‌পরতার মুখ্য উপাদান হইয়া উঠিতেছে। এক দিকে যদি জাতপাতের মেরুকরণ অর্থাত্‌ দলিত-অনগ্রসরদের ভোট সংহত করার প্রয়াস, অন্য দিকে তবে সম্প্রদায়ের ভোট সংহত করার উদ্যোগ। বিহারে লালুপ্রসাদ যাদব ও নীতীশ কুমার নিজেদের অহি-নকুল সম্পর্ক সরাইয়া রাখিয়া ভোটের স্বার্থে যে বিজেপি-বিরোধী জোট গঠন করে, তাহার সুফল দুই দলই হাতে-নাতে পাইয়াছে।

০২ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

কী করে নোবেল পাব?

০২ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

দৌড়

মনমোহন সিংহের সরকারের বিরুদ্ধে একটি বড় অভিযোগ ছিল, তাহারা কাজ করে না। ‘নীতিপঙ্গুতা’ শব্দটি সেই সরকারের কল্যাণে তৈয়ারি হইয়াছে বটে, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে নীতি রূপায়ণের পঙ্গুতা ছিল অনেক বেশি প্রবল এবং প্রকট। নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী সাফল্যের পিছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা লইয়াছিল তাঁহার কর্মযোগী ভাবমূর্তি, গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে তাঁহার কাজের খতিয়ান যে মূর্তিকে কেবল উজ্জ্বল করে নাই, বিশ্বাসযোগ্যতাও দিয়াছিল।

০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

আগ্রাসন

ইউক্রেনে রাশিয়া সরাসরি আগ্রাসনের পথেই চলিয়াছে। এত কাল রুশভাষী ও রাশিয়া-সমর্থক বিদ্রোহীদের দিয়া রাশিয়া প্রক্সি-যুদ্ধ চালাইতেছিল। বিদ্রোহীদের অস্ত্রশস্ত্র, বন্দুক-কামান-ক্ষেপণাস্ত্র, পর্যাপ্ত রসদ ও অর্থ জোগাইতেছিল, যাহার সাহায্যে তাহারা ইউক্রেনের সেনাবাহিনীকে পর্যুদস্ত করিতেছিল। এ বার সরাসরি রুশ ট্যাংক ও সাঁজোয়া গাড়ি সারিবদ্ধ ভাবে সীমান্ত অতিক্রম করিয়া বিদ্রোহীদের ডেরার অভিমুখে গিয়াছে।

০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

সম্পাদক সমীপেষু

০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

শীতল উষ্ণতা

৩১ অগস্ট, ২০১৪

বিপদ মেয়েদের

গৌতম রায়

৩১ অগস্ট, ২০১৪

দুঃশাসন

প্রশ্ন উঠিতেছে, আঠারো বছর বয়সের প্রতি পশ্চিমবঙ্গ সরকার ঠিক কী বার্তা দিতে চাহেন? শিক্ষামন্ত্রী বলিলেন, পড়াশোনায় মন দেওয়াই কাম্য। মুখ্যমন্ত্রী বলিলেন, বয়সোচিত দুঃসহ উদ্যমে তাহারা অন্যতর বিষয়ে মন দিলেই বা ক্ষতি কী! শিক্ষামন্ত্রী বলিলেন, শিক্ষক বা উপাচার্য কে হইবেন, তাহা লইয়া কলেজ-ছাত্রদের মাথা ঘামাইবার দরকার নাই।

৩০ অগস্ট, ২০১৪

এসো হে বৈশাখ

ভাদ্র আসিলে বৈশাখ কি আর দূরে থাকিতে পারে? সাড়ে ছয় মাস পরে হইলেও পয়লা বৈশাখ আসিবেই। এবং, সেই শুভ ক্ষণে বাসভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য গঠিত ‘টাস্ক ফোর্স’ কাজ শুরু করিবে। পয়লা বৈশাখই কেন, এমন প্রশ্ন কেহ করিবেন বলিয়া বোধ হয় না। শুভ কাজের জন্য শুভ ক্ষণ বিলক্ষণ প্রয়োজন।

৩০ অগস্ট, ২০১৪

সম্পাদক সমীপেষু