১৫ চৈত্র ১৪২১ সোমবার ৩০ মার্চ ২০১৫ | কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ weather forecast সর্বোচ্চ : ৩৩.৭ °C     সর্বনিম্ন : ২৪.৭°C

ডাক্তার নিয়োগ নীতি নিয়ে প্রশ্নের মুখে স্বাস্থ্য দফতর

একটাই সিটি স্ক্যান মেশিন। সেটাও মাসের পর মাস খারাপ। তাই রিপোর্ট তৈরির প্রশ্নই নেই। সবেধন নীলমণি একটা এক্স-রে মেশিন আর একটা আল্ট্রাসোনোগ্রাফি মেশিন। সেখানেও কাজের চাপ উল্লেখ্য নয়। এই যেখানে বিভাগের হাল, সেখানে নিযুক্ত পাঁচ জন রেডিওলজিস্ট। কাজের বিপুল চাপের কারণ দেখিয়ে এক জনকে বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজ থেকে ডেপুটেশনে নিয়ে আসাও হয়েছে। রেডিওলজিস্টের অভাবে রাজ্যের বেশ ক’টি মেডিক্যাল কলেজে যখন নাভিশ্বাস ওঠার জোগাড়, তখন বাঙুর ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস (বিআইএন)-এ উল্টো ছবি। কাজের চেয়ে ডাক্তার বেশি।

সোমা মুখোপাধ্যায়
৩০ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

সুষ্ঠু পরিকল্পনার অভাবে পিজিতে পঙ্গু ‘শিশু সাথী’

পারিজাত বন্দ্যোপাধ্যায়

২৯ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

‘স্যালাইন নিয়ে’ রোগীরা অসুস্থ, সতর্ক স্বাস্থ্যকর্তারা

নিজস্ব সংবাদদাতা

দু’জনের সদ্য সিজার করে সন্তান হয়েছে, এক জনের গলব্লাডারে অস্ত্রোপচার হয়েছে এবং আর এক জন তলপেটে ব্যথা নিয়ে ভর্তি। হাওড়া জেলা হাসপাতালের এই চার রোগীকে ঘটনাচক্রে একই সংস্থার তৈরি একই ব্যাচের স্যালাইন দেওয়া হয়েছিল। এর পরে চার জনেরই জ্বর আসে , কাঁপুনি শুরু হয়। যদিও এ জন্য স্যালাইন-ই দায়ী কি না, তা নিয়ে নিশ্চিত নন চিকিৎসকেরা।

২৯ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্ত সংকট, দুর্ভোগ ইসলামপুরে

নিজস্ব সংবাদদাতা

রক্তের জন্য গোটা ইসলামপুর মহকুমার বাসিন্দারা নির্ভরশীল ইসলামপুর ব্লাডব্যাঙ্কের উপর। আর সেখানেই প্রায় এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে রক্ত সংকট চলায় সমস্যায় পড়ছেন বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষ। এরমধ্যে কোনও রক্তদান শিবিরেরও খবর নেই। কাজেই কবে রক্ত সঙ্কট মিটবে সেই সম্পর্কে কেউই নিশ্চিত নন।

২৯ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

আর্সেনিকের বিষে ঠুঁটো কালাজ্বরের চালু দাওয়াই

নিজস্ব সংবাদদাতা

আর্সেনিক দূষিত অঞ্চলে বসবাস হলে এমনিতেই স্বাস্থ্যহানির প্রভূত আশঙ্কা। তার উপরে যদি কালাজ্বরে ধরে? তা হলে সাবধান। কারণ, পানীয় জলের সঙ্গে শরীরে অতিরিক্ত মাত্রার আর্সেনিক ঢুকে থাকলে কালাজ্বরের সর্বাধিক প্রচলিত ওষুধ সোডিয়াম স্টিবোগ্লুকোনেট (এসএসজি) কাজ করবে না বলে দাবি করছেন এক দল গবেষক। আন্তর্জাতিক মেডিক্যাল জার্নাল ‘ল্যানসেট’-এ ওঁদের গবেষণাপত্রটি সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে। নিজেদের পরীক্ষালব্ধ ফলাফলের ভিত্তিতে গবেষণাপত্রের রচয়িতারা দাবি তুলেছেন, আর্সেনিকপ্রবণ এলাকায় কালাজ্বরের রোগীদের উপরে এসএসজি যাতে কোনও ভাবেই প্রয়োগ না হয়, প্রশাসন তা নিশ্চিত করুক।

২৮ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

হেপাটাইটিস সি ঠেকাতে নয়া ওষুধ

সোমা মুখোপাধ্যায়

হেপাটাইটিস সি মানেই মৃত্যুর পরোয়ানা। অচিরেই এই ধারণা থেকে মুক্তি মিলতে চলেছে বলে মনে করছেন চিকিৎসকেরা। কারণ আমেরিকার পথ ধরে এ বার ভারতের বাজারেও আসছে হেপাটাইটিস সি ভাইরাসের সঙ্গে মোকাবিলা করার একটি বিশেষ ওষুধ এবং মার্কিন মুলুকের চেয়ে বহু গুণ কম দামে। যে ভাবে গরিব মানুষের জন্য নিখরচায় কেমোথেরাপির ব্যবস্থা হয়েছে সরকারি হাসপাতালে, ঠিক সে ভাবেই অদূর ভবিষ্যতে কি হেপাটাইটিস সি-র চিকিৎসারও ব্যবস্থা করবে স্বাস্থ্য মন্ত্রক? ইতিমধ্যেই চিকিৎসক মহলের একাংশ সেই প্রশ্নটা তুলে দিয়েছেন স্বাস্থ্যকর্তাদের কাছে।

২৮ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা

২৮ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

ন্যায্য মূল্যের দোকানে খারাপ ওষুধ, অভিযোগ ওড়াল রাজ্য

পারিজাত বন্দ্যোপাধ্যায়

পরীক্ষার পরে ৫৬৭টি ওষুধের মধ্যে খারাপ নমুনা মিলেছে মাত্র ৭টিতে। আর এই রিপোর্টকে হাতিয়ার করেই সরকারি হাসপাতালের ন্যায্যমূল্যের দোকানে বিক্রি হওয়া ওষুধের মানের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ নস্যাৎ করে দিতে চাইছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। আড়াই বছর আগে রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে সরকারি-বেসরকারি যৌথ উদ্যোগে (পিপিপি মডেল) ন্যায্যমূল্যের ওষুধের দোকান চালু হয়েছিল।

২৭ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

সংক্রমণ রুখতে এ বার বিশেষ কমিটি সরকারি হাসপাতালে

সোমা মুখোপাধ্যায়

হার্টের বাইপাস সার্জারির জন্য নামী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন প্রৌঢ়। অস্ত্রোপচার সফল। দিন কয়েক পরে সেরে উঠে যখন বাড়ি যাওয়ার সময় হল, তখনই রক্তে ছড়াল সংক্রমণ। ডাক্তাররা জানালেন, ‘হসপিটাল অ্যাকোয়ার্ড ইনফেকশন’। বাড়ি ফেরা আর হল না তাঁর। হাঁটুর ছোটখাটো অস্ত্রোপচার। শহরের এক নামী হাসপাতালেই হয়েছিল। অস্ত্রোপচারের পর যে দিন বাড়ি ফিরলেন, তার পর দিনই জ্বর এল প্রৌঢ়ার। ফের হাসপাতালে ভর্তি করা হল। জানা গেল, সেপ্টিসেমিয়া। হাসপাতাল থেকে পাওয়া ওই সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছিল তাঁরও।

২৭ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

স্বাস্থ্যের হাল ফেরাতে শহরে নতুন কেন্দ্র

নিজস্ব সংবাদদাতা

এক সময়ে গ্রামাঞ্চলের জন্য এনআরএইচএম (ন্যাশনাল রুরাল হেলথ মিশন) প্রকল্প চালু হয়েছিল। পরে শহরাঞ্চলের জন্য এনইউএইচএম (ন্যাশনাল আর্বান হেলথ্ মিশন) প্রকল্প চালু হয়। এ বার পশ্চিম মেদিনীপুরে সেই প্রকল্পের কাজ শুরু হতে চলেছে। আর তা শুরু হবে মেদিনীপুর দিয়ে। পশ্চিম মেদিনীপুরের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক গিরীশচন্দ্র বেরা বলেন, “মেদিনীপুর শহরে এনইউএইচএম প্রকল্প চালু হবে। প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো থাকবে।” শহরের পুরপ্রধান প্রণব বসু বলেন, “এই প্রকল্পে শহরে তিনটি প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র তৈরি হবে। ইতিমধ্যে জায়গাও চিহ্নিত করা হয়েছে।”

২৭ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

এইমস কল্যাণীর বসন্তপুরেই, জানাল কেন্দ্র

নিজস্ব সংবাদদাতা

এইমস যে কল্যাণীতেই হবে ন’মাস আগে চিঠি দিয়ে নবান্নকে তা জানিয়ে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। কিন্তু শহর-লাগোয়া কোন জমিতে তৈরি হবে ওই হাসপাতাল, তা নিয়ে সংশয় ছিল। অবশেষে সোমবার স্বাস্থ্য দফতরকে চিঠি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্যসুরক্ষা যোজনার অধিকর্তা সঞ্জীব চাড্ডা জানিয়ে দিয়েছেন, দু’টি জমি পরিদর্শনের পরে তাঁরা কল্যাণীর বসন্তপুরের গোড়াগাছা মৌজার ১৮০ একর জমিকেই এইমস-এর জন্য চিহ্নিত করেছেন।

২৬ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

প্রসূতির মৃত্যু, ভাঙচুর লক্ষ্মীপুর হাসপাতালে

নিজস্ব সংবাদদাতা

প্রসূতির মৃত্যু ঘিরে উত্তেজনা ছড়াল লক্ষ্মীপুর সরকারি হাসপাতালে। অভিযোগ, সেখানে ভাঙচুর করা হয়। রাস্তা অবরোধ করে জনতা। মহকুমাশাসকের আশ্বাসে তা ওঠে। ঘটনার জেরে হাসপাতালের ইন-চার্জকে সরিয়ে দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। পুলিশ সূত্রে খবর, রঞ্জনা বেগম নামে বছর পঁচিশের এক প্রসূতির মৃত্যুর পর ঝামেলা শুরু হয়। গত কাল দুপুরে তাঁকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। রাত থেকেই তাঁর স্বাস্থ্যের অবনতি হয়।

২৫ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

ডায়ালিসিস চালু হাসপাতালে, ডায়মন্ড হারবারে স্বস্তিতে মানুষ

নিজস্ব সংবাদদাতা

চন্দ্রবোড়া সাপের ছোবলে বা ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রে দ্রুত কিডনি অকেজো হয়ে যায়। এ ক্ষেত্রে সঠিক সময়ে চিকিত্‌সার অভাবে রোগীর মৃত্যু পর্যন্তও হতে পারে। আর এই ঘটনা আকছারই ঘটছে দক্ষিণ ২৪ পরগনায়। কারণ এই জেলায় এত দিনে কোথাও ডায়ালিসের ব্যবস্থা ছিল না।

২৫ মার্চ , ২০১৫
facebook twitter

ব্লাড ব্যাঙ্কের অনুমোদন সাগরদিঘিতে

সাগরদিঘি গ্রামীণ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে একটি ব্ল্যাড ব্যাঙ্ক খোলার অনুমোদন দিল রাজ্য সরকার। এই স্বাস্থ্যকেন্দ্র ছাড়াও রাজ্যের আরও বেশ কয়েকটি ব্লক ও গ্রামীণ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ১৩টি নতুন ব্লাড ব্যাঙ্ক খোলা হবে বলে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের এক কর্তা জানান, বর্তমানে রাজ্যের জেলা ও মহকুমা হাসপাতাল ছাড়া গ্রামাঞ্চলে কোথাও ব্লাড ব্যাঙ্ক চালু নেই। রাজ্যের ৭টি জেলায় সাগরদিঘি-সহ মোট ১৪টি ব্লাড ব্যাঙ্ক চালু হবে।

পড়ুন