৫ বৈশাখ ১৪২১ শনিবার ১৯ এপ্রিল ২০১৪ | কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ weather forecast সর্বোচ্চ : ৩৭.৫°C     সর্বনিম্ন : ২৭.১°C

কর্মীরা ভোটে, বন্ধ
হাসপাতালের পরিষেবা

নিজস্ব সংবাদদাতা

কেউ টেকনিশিয়ানের দায়িত্ব সামলান, কেউ ড্রেসিং করেন। কারও দায়িত্ব ছিল কম্পিউটার চালানোর। এঁদের ভোটের ডিউটি পড়ায় কোচবিহারের দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে বন্ধ হল একাধিক পরিষেবা। হাসপাতাল সূত্রের খবর, কর্মীর অভাবে রক্ত পরীক্ষা বন্ধ। বন্ধ রাখা হয়েছে ড্রেসিং, ফিজিওথেরাপিও। অফিস ঘর কার্যত অচল। আউটডোরের কর্মীদের ডিউটিতে পাঠিয়ে দেওয়ায় সমস্যা হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে।

১৭ এপ্রিল, ২০১৪

ভোটে নিষেধ শিবিরে, রক্ত
সঙ্কট উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে

সৌমিত্র কুণ্ডু

ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্ত পাওয়া যাচ্ছে না দেখে প্রধাননগরের বাসিন্দা মতিয়া মিয়াঁ মেয়ের চিকিৎসার জন্য রক্ত পেতে মেডিক্যাল কলেজ এলাকার এক তৃণমূল নেতার দ্বারস্থ হলেন। চোপড়ার বাসিন্দা হুসেন আলি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি রয়েছেন। ও-পজিটিভ বিভাগের রক্ত ব্লাড ব্যাঙ্ক থেকে পেতে কষ্ট হচ্ছে দেখে পরিবারের লোকেরা এক ব্যক্তির মাধ্যমে কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের এক নেতার কাছে আর্জি জানান। বিস্তর ছোটাছুটি করে অনেক কষ্টে রক্ত পান পরিজনেরা।

১৬ এপ্রিল, ২০১৪

হাসপাতালে বিকল্প বিদ্যুৎ
ব্যবস্থা চালু করছে সিইএসসি

পিনাকী বন্দ্যোপাধ্যায়

বিদ্যুৎ বিভ্রাটের জেরে কিছু দিন আগেই ইমার্জেন্সি আলো জ্বালিয়ে অস্ত্রোপচার করতে হয়েছে একটি সরকারি হাসপাতালে। বিদ্যুৎ না থাকায় সাধারণ রোগীদের ওয়ার্ডে বা ইমার্জেন্সি বিভাগে মোমবাতি জ্বালিয়ে চিকিৎসার ঘটনাও বিরল নয়। হাসপাতালগুলির এই বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ক্ষেত্রে বেশির ভাগ সময়েই সেখানকার অভ্যন্তরীণ দুর্বল বিদ্যুৎ পরিকাঠামোকে (যা রাজ্যের পূর্ত দফতরের দায়িত্বে) দায়ী করে থাকেন বিদ্যুৎকর্তারা।

১৫ এপ্রিল, ২০১৪

রোগী মৃত্যুর জেরে ভাঙচুর

নিজস্ব সংবাদদাতা

১৫ এপ্রিল, ২০১৪

চারশো স্বাস্থ্যকর্মীর বেতন বন্ধ,
ম্যালেরিয়া রুখবে কে

পারিজাত বন্দ্যোপাধ্যায়

জঙ্গলমহল থেকে শুরু করে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে আসন্ন ম্যালেরিয়া-ডেঙ্গি মরসুমে রোগ নির্ণয়, মোকাবিলা এবং প্রতিরোধের কাজ আদৌ চালানো যাবে কি না তা নিয়ে অনিশ্চয়তায় পড়েছে স্বাস্থ্য দফতর। কারণ, এই কাজ যাঁরা করতেন রাজ্যের সেই ৪০০ পুরুষ স্বাস্থ্যকর্মীর খাতায়-কলমে গত ৩১ মার্চ-এর পর বেতন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

১৩ এপ্রিল, ২০১৪

পচনে বাদ কিশোরীর হাত,
ক্ষতিপূরণ চিকিৎসকদের

সুস্মিত হালদার

সময়ে ‘ঠিক চিকিৎসা’ না হওয়ায় কেটে বাদ দিতে হয়েছিল কিশোরীর একটি হাত। দুই ডাক্তারের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে ক্রেতা সুরক্ষা আদালতে প্রায় দশ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণের দাবি করেছিল ওই কিশোরীর পরিবার। শেষ পর্যন্ত মামলা চলাকালীনই ক্ষতিপূরণের টাকা দিয়ে দিলেন অভিযুক্ত ডাক্তারেরা, সম্পর্কে যাঁরা বাবা-ছেলে।

১৩ এপ্রিল, ২০১৪

জুনিয়ার ডাক্তারদের কর্মবিরতি উঠল

নিজস্ব সংবাদদাতা

কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে কাজে ফিরলেন জুনিয়ার ডাক্তাররা। ফলে, মঙ্গলবার সকাল থেকেই ফের স্বাভাবিক কাজকর্ম শুরু হয়েছে মেদিনীপুর মেডিক্যালে। এ দিন দুপুরে এক বৈঠকও হয়। মেডিক্যাল কলেজ অধ্যক্ষ তমালকান্তি ঘোষ, হাসপাতাল সুপার যুগল করের পাশাপাশি কয়েকজন জুনিয়ার ডাক্তার এতে যোগ দেন। জুনিয়ারদের দাবিগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

০৯ এপ্রিল, ২০১৪

নবজাতকের মৃত্যুতে গাফিলতির
অভিযোগ হাসপাতালের বিরুদ্ধে

পারিজাত বন্দ্যোপাধ্যায়

০৮ এপ্রিল, ২০১৪

সমন্বয়ে ফাঁক, দেদার ঢুকছে
মশা ও ম্যালেরিয়া

নিজস্ব সংবাদদাতা

পোলিও-মুক্ত হয়েছে ভারত। কিন্তু ম্যালেরিয়া ও ডেঙ্গির দাপট কমছে না। সোমবার, বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে কলকাতার এক আলোচনাসভায় এই নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। সেখানেই ওই সব রোগ নির্মূল করতে না-পারার জন্য মূলত দু’টি কারণের কথা বলেন রাজ্য যুগ্ম স্বাস্থ্য অধিকর্তা চিকিৎসক সচ্চিদানন্দ সরকার। তিনি জানান, যথাযথ সমীক্ষা এবং বিভিন্ন স্তরের স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে সমন্বয়ের অভাবেই এ রাজ্য থেকে ডেঙ্গি বা ম্যালেরিয়ার মতো মশকবাহিত রোগ পুরোপুরি উৎখাত করা যাচ্ছে না।

০৮ এপ্রিল, ২০১৪

ভোটে কর্মীরা, শঙ্কা স্বাস্থ্য পরিষেবায়

অপূর্ব চট্টোপাধ্যায়

স্বাস্থ্যকেন্দ্রের একমাত্র ঝাড়ুদার তিনি-ই। কাজ ছেড়ে এখন তাঁকেই ছুটতে হচ্ছে নির্বাচনের প্রশিক্ষণে। একই কারণে চিকিৎসকহীন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে দেখা মিলছে না একমাত্র ফার্মাসিস্টেরও। এমনিতেই জেলার বহু স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসক, নার্স, কর্মী প্রভৃতির পদ শূন্য। এই পরিস্থিতিতে লোকসভা ভোটের কাজে হাসপাতাল কর্মীদের নিয়োগের জেরে জেলার একটা বড় অংশের স্বাস্থ্য পরিষেবা মুখ থুবড়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

০৮ এপ্রিল, ২০১৪

ভোটের কাজে চিকিৎসক, ক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা

ভোটের কাজে যেতে হবে চিকিৎসক-কর্মীদেরও। এমনই নির্দেশ এসেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা নির্বাচন দফতর থেকে। আজ, মঙ্গলবার থেকে তমলুকের জেলা সদর হাসপাতালের এই কর্মীদের ভোট-প্রশিক্ষণে যাওয়ার কথা। এমন নির্দেশিকায় জেলার স্বাস্থ্য পরিষেবা বিঘ্নিত হতে পারে বলে মনে করেন হাসপাতালেরই একাংশ কর্মীরা। কার্যত তা স্বীকারও করছেন সুপার ত্রিদিবেশ বন্দ্যোপাধ্যায়।

০৮ এপ্রিল, ২০১৪

রক্তের সঙ্কট

তীব্র রক্তের সঙ্কট শুরু হয়েছে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে। কার্যত ব্লাড ব্যাঙ্ক রক্তশূন্য। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, এমনিতেই গ্রীষ্মে রক্তদান শিবির আয়োজনে ভাটা পড়ে। তার উপরে ভোট এসে পড়ায় নির্বাচনী বিধির কথা মাথায় রেখে রাজনৈতিক দল বা বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে রক্তদান শিবিরের আয়োজন বন্ধ রাখা হয়েছে।

পড়ুন