১৩ মাঘ ১৪২১ মঙ্গলবার ২৭ জানুয়ারি ২০১৫ | কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ weather forecast সর্বোচ্চ : ২৮.০°C     সর্বনিম্ন : ১৫.২ °C

প্রতিরক্ষায় জোর যৌথ উৎপাদনে

প্রেমাংশু চৌধুরী

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

ফ্যাশন আইকন? ইচ্ছে ছিল মোদী-কুর্তা পরার

শঙ্খদীপ দাস

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

প্রথা ভেঙে ‘গার্ড অব অনার’-এর দায়িত্বে পূজা

সংবাদ সংস্থা

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

বাণিজ্যের পথ আরও মসৃণ করে তুলতে চান মোদী ও ওবামা

প্রেমাংশু চৌধুরী

বাণিজ্যে বসতে বারাক। সেঞ্চুরিতে থামতে চান না মোদীও। ভারত ও আমেরিকার মোট বাণিজ্যের পরিমাণ এখন ১০ হাজার কোটি বা ১০০ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি। কিন্তু সেখানেই যে তাঁরা থামতে চান না, আজ স্পষ্ট করে দিলেন বারাক ওবামা ও নরেন্দ্র মোদী। মার্কিন প্রেসিডেন্টের স্পষ্ট ঘোষণা, “আমার গত ভারত সফরের পর থেকে দু’দেশের বাণিজ্য ৬০ শতাংশ বেড়েছে। মোট বাণিজ্যের পরিমাণ ১০০ বিলিয়ন ডলার। আমরা আরও বেশি বাণিজ্য করতে চাই।”

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

পিছিয়ে মিশেল, পোশাকে নজর কাড়লেন মোদীই

সংবাদ সংস্থা

সবার চোখ ফার্স্ট লেডির দিকে। কিন্তু তাঁকে পিছনে ফেলে শেষমেশ নজর কাড়লেন ভারতের প্রধানমন্ত্রীই। প্রথমে তাঁর প্রিয় কুর্তা-পাজামা আর নেহরু কোট, কাঁধে উজ্জ্বল লাল রঙের শাল নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পৌঁছে গিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে অভ্যর্থনা জানাতে। দিল্লির পালাম বিমানবন্দরে চিরাচরিত প্রথা ভেঙে প্রধানমন্ত্রী নিজেই পৌঁছে যান সস্ত্রীক প্রেসিডেন্টের কাছে। এর আগে ২০১০ সালে একমাত্র প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ তাঁর স্ত্রী গুরশরণকে নিয়ে ওবামাকে অভ্যর্থনা জানাতে গিয়েছিলেন।

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

মণিপুরের তাঁবুতে ওবামার ঠাকুরদা

রাহুল রায়

সাকুল্যে দেড় দিনের দিল্লি সফর। তবুও নাছোড় আবদারটা একাধিক বার এসেছে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়ে। অনুষ্ঠানের ফাঁকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট কি এক বার আসতে পারেন মণিপুর? উত্তর-পূর্বাঞ্চলের ওই পাহাড়ি রাজ্যের কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জানিয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে এটি ওবামার দ্বিতীয় ভারত সফর হলেও, এ দেশে তিনিই প্রথম ওবামা নন।

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

ঘরেই আশঙ্কা, ওবামার কাছে যাত্রাভঙ্গ যুবরাজের

সন্দীপন চক্রবর্তী

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

এক নজরে

হোয়াইট হাউসে জয় হিন্দ ধ্বনি! মোদী-ওবামার সাক্ষাতের পরে রবিবার তেমনটাই ঘটেছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট টুইটারের সৌজন্যে। রাষ্ট্রপতি ভবনে প্রেসিডেন্ট ওবামা পৌঁছনোর আগেই মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল রবিবার টুইটারে জানায়: ‘প্রেসিডেন্ট প্রজাতন্ত্র দিবস উদ্যাপন করতে ফের ভারতে এসে খুশি। ভারত-মার্কিন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে নতুন অধ্যায়ের সূচনা হবে। জয় হিন্দ!’ সেই টুইটটি ফের হোয়াইট হাউস থেকেও রিটুইট করা হয়।

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

পদ্মভূষণ পাচ্ছেন সস্ত্রীক বিল গেটস

নিজস্ব প্রতিবেদন

২৬ জানুয়ারি, ২০১৫

তাজ দর্শন বাদ, ওবামা যাচ্ছেন রিয়াধে

নিজস্ব প্রতিবেদন

২৫ জানুয়ারি, ২০১৫

মার্কিন প্রযুক্তিতে দেশেই হবে অস্ত্র কারখানা

প্রেমাংশু চৌধুরী

ছবিটা বদলাচ্ছে। এত দিন ছিল, ফৌজি কর্তারা আমেরিকায় যাবেন ও চাহিদা মতো অস্ত্র এবং যুদ্ধ-সরঞ্জাম কিনে নিয়ে আসবেন। বিনিময়ে ডলার গুণে দেবেন। মেরামতের দরকার পড়লে ডাকতে হবে সেই মার্কিন সংস্থাকেই।নতুন ছবি হল, মার্কিন সংস্থাগুলি এ বার ভারতের সংস্থার সঙ্গে হাত মিলিয়ে কারখানা তৈরি করবে। উন্নত মার্কিন প্রযুক্তির সাহায্যে দেশেই তৈরি হবে সমর-সরঞ্জাম। সেই কারখানায় কাজ পাবেন ভারতের তরুণ-তরুণীরা। এ জন্য প্রাথমিক ভাবে পাঁচটি প্রকল্পও বাছাই করা হয়েছে।

২৫ জানুয়ারি, ২০১৫

আবার গ্রেফতার শর্মিলা চানু

নিজস্ব সংবাদদাতা

২৫ জানুয়ারি, ২০১৫

কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মেলাতে নারাজ সিপিআই

নিজস্ব সংবাদদাতা

ইউপিএ সরকার থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করা ঠিক হয়েছিল না ভুল, তা নিয়ে এখনও বিতর্ক চলছে সিপিএমে। কংগ্রেসের সঙ্গে ভবিষ্যতে সমঝোতার রাস্তাও সিপিএম খুলে রাখতে চাইছে। কিন্তু আজ সিপিআই কট্টর লাইন নিয়ে জানিয়ে দিল, ইউপিএ সরকারকে সমর্থন করাটাই ভুল হয়েছিল। তাতে বামপন্থীদের বিশ্বাসযোগ্যতাই নষ্ট হয়েছে। সেই কারণে ভবিষ্যতে কংগ্রেসের সঙ্গে কোনও রকম গাঁটছড়ার সম্ভাবনাও বন্ধ করে দিচ্ছে সিপিআই।

২৫ জানুয়ারি, ২০১৫

দিল্লি আসার মুখে পাক সন্ত্রাস নিয়ে হুঁশিয়ারি

নিজস্ব সংবাদদাতা

২৪ জানুয়ারি, ২০১৫

রাস্তা সাফাই অভিযানে ব্যস্ত আগরা

সংবাদ সংস্থা

২৪ জানুয়ারি, ২০১৫

সরস্বতী থেকে চাঁদমালা, মাউস ক্লিকেই বেঙ্গালুরু

প্রেমাংশু চৌধুরী

২৪ জানুয়ারি, ২০১৫

অণ্ণার নাম নিয়ে দিল্লিতে সক্রিয় কংগ্রেস

নিজস্ব সংবাদদাতা

২৪ জানুয়ারি, ২০১৫

ভারত-বাংলাদেশ বৈঠক, মুক্তির আশায় বন্দিরা

উত্তম সাহা

ভারতের দক্ষিণ অসম ও বাংলাদেশের শ্রীহট্ট ডিভিশনের জেলাশাসক পর্যায়ের বৈঠক নিয়ে উৎসুক শিলচর জেলে বন্দি বাংলাদেশিরা। অনুপ্রবেশের জেরে ধরা পড়ার পর শিলচরের জেলই এখন তাঁদের ঠিকানা। শাস্তির মেয়াদ শেষ হলেও, প্রক্রিয়াগত কারণে তাঁরা বাড়ি ফিরতে পারছেন না। দু’দেশের জেলাশাসকদের বৈঠকের পর মুক্তির স্বাদ মিলতে পারে বলে আশায় রয়েছেন বাংলাদেশের ২৫ জন বন্দি। বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনাও হয়েছে।

২৪ জানুয়ারি, ২০১৫

অপরাধ নয়

কোনও আইন বলবৎকারী সংস্থার সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের পেজে নিজের ক্ষোভ জানানো অপরাধ নয় এ কথাই জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। বরং সেই ক্ষোভের কারণ জানতে পারলে জনতার লাভ হবে বলেই মত কোর্টের। এক বেঙ্গালুরু দম্পতির বিরুদ্ধে কর্নাটক হাইকোর্টে হওয়া একটি মামলার প্রেক্ষিতেই এই মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের।

পড়ুন