বয়ামের শক্ত ঢাকনা খুলতে পারছেন না? দেখে নিন সমাধান

কৌশল অবলম্বন করে সহজেই খুলে ফেলুন শক্ত হয়ে বসে যাওয়া কৌটোর ঢাকা। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

রান্নাঘর যাঁরা সামলান, তাঁরা জানেন, কেবল রান্নাই নয়, রান্নাঘরের বেশ কিছু টুকটাক কাজেও বিশেষ ‘হাতযশ’-এর প্রয়োজন হয়। সে সব কাজে সাংসারিক বুদ্ধি না খাটালে কাজের নানা অসুবিধা হয়।

যেমন ধরুন, বোতল, টিফিনবক্স বা যে কোনও বয়ামের ঢাকনা খোলা! এঁটে বসে যাওয়া কোনও কোনও কৌটোর ঢাকনা সহজে খুলতে তো চায়ই না, উল্টে টানাটানিতে হঠাৎ খুলে সারা ঘরেই ছড়িয়ে পড়ে ভিতরের জিনিস। কখনও আবার ঢাকনা বেঁকে বা ভেঙে যাওয়ার সমস্যাও তৈরি হয়।

কিন্তু জানেন কি, কিছু ঘরোয়া উপায় অবলম্বন করলে সহজেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে! দেখে নিন কী কী উপায়ে সহজেই খুলে ফেলা যায় এঁটে বসে থাকা বয়ামের ঢাকনা।

আরও পড়ুন 

সন্তানের ত্বক নিয়ে চিন্তায়? এ ভাবে যত্ন নিন এখন থেকেই

ধনেপাতা দেন না রান্নায়? জানেন কি ক্ষতি হচ্ছে?

অতিরিক্ত কাপড়: খালি হাতে যা সম্ভব হয় না, তা সহজ হয় হাতে কিছু জড়িয়ে নিলে। এ ক্ষেত্রে যত খড়খড়ে কাপড় জড়াবেন, তত ভাল। ঘর্ষণজনিত কারণে এই কাজ সম্ভব হয়। বয়ামের ঢাকনার সঙ্গে মাড় দেওয়া কাপড়, খড়খড়ে গামছা বা রবারের শিট জড়িয়ে নিন হাতে। এর পর সেটি দিয়ে ঘোরান বয়ামের ঢাকনাকে। সহজেই খুলবে।

গরম জল: জল গরম করে তাকে খানিকটা ঠান্ডা করে নিন। এর পর বয়ামকে সেই জলের মধ্যে রাখুন। ঢাকনাটিকে কিছু ক্ষণের জন্য গরম করে নিন। জলের তাপ ঢাকনার ধাতুকে বাড়িয়ে দেয়। ফলে বয়াম থেকে আলাদা হয়ে যায় কৌটোর ঢাকা। তবে খেয়াল রাখবেন, কাচের কৌটোর ক্ষেত্রে এই জল যেন খুব গরম না হয়, নইলে কৌটো ফেটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

আঘাত: বয়ামের ঢাকনাকে ধরে আলতো করে ঠুকতে থাকুন মেঝেতে। কিংবা তার গায়ে চামচ দিয়েও অনবরত আঘাত করে যেতে পারেন। ঢাকা খোলা সহজ হবে।

রবার: কৌটো যদি চওড়া হয়, তা হলে তার গায়ে দু’-তিনটি রবার ব্যান্ড জড়িয়ে নিন। এটা ধরে চাপ দিলে কৌটো খুলে যায়।