BJP

রাজ্যে আবার তথ্যানুসন্ধান দল, হাওড়ার অশান্তিকে প্রচারে আনতে উদ্যোগ গেরুয়া শিবিরের

জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারির পরে এপ্রিলেও বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধিদের নিয়ে আসছে বিজেপি। এ বার রামনবমী ঘিরে অশান্তি নিয়েও একই ভাবে উদ্যোগী হচ্ছে রাজ্য বিজেপি।

Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা

কলকাতা শেষ আপডেট: ০২ এপ্রিল ২০২৩ ১৭:৪৮
Share:

জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে ওই সংগঠনের প্রতিনিধিরা কলকাতায় এসেছিলেন। ছবি: সংগৃহীত।

প্রথম ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের অভিযোগ, এর পরে বগটুইয়ের স্মৃতি উস্কে দিতে রাজ্যে বেসরকারি তথ্যানুসন্ধান কমিটি নিয়ে এসেছে বিজেপি। সরাসরি দলের নাম না থাকলেও আড়াল থেকে বিজেপি নেতারাই পরিচালনা করেছেন। এ বার রাজ্যে রামনবমী পালনকে কেন্দ্র করে যে সব জায়গায় অনভিপ্রেত অশান্তির ঘটনা দেখা গিয়েছে সেগুলি নিয়েও ওই দল আসছে। বিজেপি সূত্রে খবর, আগামী সাত দিনের মধ্যেই ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘লইয়ার্স ফর জাস্টিস’-এর প্রতিনিধিরা কলকাতায় চলে আসবেন।

Advertisement

জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে ওই সংগঠনের প্রতিনিধিরা কলকাতায় এসেছিলেন। সেই দলে ছিলেন প্রাক্তন বিচারপতি এল নরসিংহ রেড্ডি, প্রাক্তন আইপিএস অফিসার রাজপাল সিংহ, মহিলাদের অধিকার সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কাজ করা আইনজীবী চারু ওয়ালি খন্না, সাংবাদিক সঞ্জীব নায়ক এবং দুই আইনজীবী ওমপ্রকাশ ব্যাস এবং রোজি তাবা। ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন এমন বিজেপি কর্মীদের সঙ্গেই মূলত কথা বলেন তাঁরা। সেই সঙ্গে প্রাথমিকে নিয়োগের পরীক্ষা (টেট)-য় পাশ করা চাকরিপ্রার্থী থেকে আইনি বাধার মুখে পড়া ব্লগার ও ইউটিউবারদের অভিযোগও শোনেন।

একই দল ফেব্রুয়ারি মাসে বীরভূম জেলায় যায়। বগটুই যান ওই প্রতিনিধিরা। রায়গঞ্জে হামলার অভিযোগ ওঠা একটি মন্দির পরিদর্শন করেন তাঁরা। সেখানে স্থানীয় বাসিন্দা এবং মন্দির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথাও হয়। এ ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা এবং ভুয়ো ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নিয়ে ওঠা অভিযোগ সম্পর্কে খোঁজ খবর নেন।

Advertisement

এ বার রামনবমী পালন ঘিরে অশান্তি নিয়ে তথ্য সংগ্রহের উদ্যোগ। তাতে সরাসরি বিজেপি না থাকলেও গেরুয়া শিবির সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই দলকে সহযোগিতা করার জন্য রাজ্য স্তরের কয়েক জন নেতাকে দায়িত্বও দেওয়া হবে। তবে বিজেপির পক্ষে এখনও পর্যন্ত এ ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

আনন্দবাজার অনলাইন এখন

হোয়াট্‌সঅ্যাপেও

ফলো করুন
অন্য মাধ্যমগুলি:
Advertisement
আরও পড়ুন