Advertisement
Chhath

দ্রৌপদীও করতেন ছট পুজো! নেপথ্য কারণ কী ছিল?

মহাভারতে দ্রৌপদীর ছট পুজো করার উল্লেখ পাওয়া যায়। তবে তার নেপথ্যেও কিন্তু রয়েছে অন্য এক কারণ।

আনন্দ উৎসব ডেস্ক
শেষ আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২২ ১৭:৫৪
Share: Save:
০১ ১১
সামনেই ভাইফোঁটা। তার পরেই আবার ছট পুজো। এ বছর ছট পুজো শুরু আগামী ২৮ অক্টোবর।

সামনেই ভাইফোঁটা। তার পরেই আবার ছট পুজো। এ বছর ছট পুজো শুরু আগামী ২৮ অক্টোবর।

০২ ১১
খরনা হবে ২৯ তারিখ। পরদিন, ৩০ অক্টোবর অর্ঘ্য দেওয়া। শেষ দিন, ৩১ অক্টোবর সূর্যাস্তের সময় হবে অর্ঘ্য নিবেদন।

খরনা হবে ২৯ তারিখ। পরদিন, ৩০ অক্টোবর অর্ঘ্য দেওয়া। শেষ দিন, ৩১ অক্টোবর সূর্যাস্তের সময় হবে অর্ঘ্য নিবেদন।

০৩ ১১
ছট পুজো নিয়ে রয়েছে পৌরাণিক গল্পও। মহাভারতে দ্রৌপদীর ছট পুজো করার উল্লেখ পাওয়া যায়। তবে তার নেপথ্যেও কিন্তু রয়েছে অন্য এক কারণ। আসুন জেনে নেওয়া যাক কী সেই কারণ?

ছট পুজো নিয়ে রয়েছে পৌরাণিক গল্পও। মহাভারতে দ্রৌপদীর ছট পুজো করার উল্লেখ পাওয়া যায়। তবে তার নেপথ্যেও কিন্তু রয়েছে অন্য এক কারণ। আসুন জেনে নেওয়া যাক কী সেই কারণ?

০৪ ১১
পুরাণ মতে, ছট পুজো আসলে ছঠি মাইয়া অর্থাৎ মা ষষ্ঠী এবং সূর্য দেবের পুজো।

পুরাণ মতে, ছট পুজো আসলে ছঠি মাইয়া অর্থাৎ মা ষষ্ঠী এবং সূর্য দেবের পুজো।

০৫ ১১
শাস্ত্র মতে, ছঠি মাইয়া সূর্য দেবের বোন। তাই সূর্য দেবের আরাধনাও করা হয়।

শাস্ত্র মতে, ছঠি মাইয়া সূর্য দেবের বোন। তাই সূর্য দেবের আরাধনাও করা হয়।

০৬ ১১
পরিবারে সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি বজায় রাখার উদ্দেশ্যে এই পুজো, যেখানে অস্তগামী সূর্যকে অর্ঘ্য দেওয়া হয়।

পরিবারে সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি বজায় রাখার উদ্দেশ্যে এই পুজো, যেখানে অস্তগামী সূর্যকে অর্ঘ্য দেওয়া হয়।

০৭ ১১
এই উৎসবের সময়ে মহিলারা ৩৬ ঘণ্টা নির্জলা উপোস করে সন্তানের দীর্ঘায়ু কামনা করেন সূর্য দেব ও ছঠি মাইয়ার কাছে।

এই উৎসবের সময়ে মহিলারা ৩৬ ঘণ্টা নির্জলা উপোস করে সন্তানের দীর্ঘায়ু কামনা করেন সূর্য দেব ও ছঠি মাইয়ার কাছে।

০৮ ১১
ভক্তদের বিশ্বাস, এই পুজো নিষ্ঠাভরে করলে পরিবারে সুখ-শান্তি বজায় থাকে। অনেকে কন্যাসন্তান লাভের আশাতেও এই ব্রত পালন করেন।

ভক্তদের বিশ্বাস, এই পুজো নিষ্ঠাভরে করলে পরিবারে সুখ-শান্তি বজায় থাকে। অনেকে কন্যাসন্তান লাভের আশাতেও এই ব্রত পালন করেন।

০৯ ১১
ছট পুজোর সঙ্গে যোগ রয়েছে মহাভারতেরও। পৌরাণিক মতে, কর্ণ ছিলেন সূর্যের পুত্র। সূর্য দেবের আশীর্বাদে তিনি ছিলেন অপার শক্তি ও ক্ষমতার অধিকারী। কর্ণ নিজে সূর্যভক্তও ছিলেন। তাই প্রত্যহ ঘণ্টার পর ঘণ্টা জলে দাঁড়িয়ে তাঁর উপাসনা করতেন।

ছট পুজোর সঙ্গে যোগ রয়েছে মহাভারতেরও। পৌরাণিক মতে, কর্ণ ছিলেন সূর্যের পুত্র। সূর্য দেবের আশীর্বাদে তিনি ছিলেন অপার শক্তি ও ক্ষমতার অধিকারী। কর্ণ নিজে সূর্যভক্তও ছিলেন। তাই প্রত্যহ ঘণ্টার পর ঘণ্টা জলে দাঁড়িয়ে তাঁর উপাসনা করতেন।

১০ ১১
অপর দিকে দ্রৌপদীও ছিলেন সূর্যের পরম ভক্ত। কথিত, জুয়া খেলায় পাণ্ডবেরা নিজেদের সর্বস্ব খোয়ালে রাজত্ব ফিরে পাওয়ার জন্য দ্রৌপদী সূর্য দেবের আরাধনা করেন। পালন করেন ছটের ব্রত।

অপর দিকে দ্রৌপদীও ছিলেন সূর্যের পরম ভক্ত। কথিত, জুয়া খেলায় পাণ্ডবেরা নিজেদের সর্বস্ব খোয়ালে রাজত্ব ফিরে পাওয়ার জন্য দ্রৌপদী সূর্য দেবের আরাধনা করেন। পালন করেন ছটের ব্রত।

১১ ১১
বলা হয়, দ্রৌপদী নিয়ম মেনে নিষ্ঠাভরে ছট উৎসব পালন করার পরেই পাণ্ডবেরা ফিরে পান তাঁদের রাজপ্রসাদ। তাই শাস্ত্রের সঙ্গে সঙ্গে ছট পুজোর উল্লেখ কিন্তু রয়েছে ভারতের মহাকাব্যেও।

বলা হয়, দ্রৌপদী নিয়ম মেনে নিষ্ঠাভরে ছট উৎসব পালন করার পরেই পাণ্ডবেরা ফিরে পান তাঁদের রাজপ্রসাদ। তাই শাস্ত্রের সঙ্গে সঙ্গে ছট পুজোর উল্লেখ কিন্তু রয়েছে ভারতের মহাকাব্যেও।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE