উত্তরপাড়ায় বন্ধ হয়ে যাওয়া হিন্দুস্তান মোটরস কারখানার অবশিষ্ট প্রায় ৬৫০ জন শ্রমিকের জন্য স্বেচ্ছাবসরের নোটিস জারি করলেন কর্তৃপক্ষ। হিন্দমোটরের শ্রমিক মহল্লায় এই পরিস্থিতিতে প্রশ্ন উঠেছে, তা হলে কি এ বার কারখানার ঝাঁপ চিরকালের মতো বন্ধ হয়ে গেল?

বুধবার সকালে কারখানার মূল গেটে ওই নোটিস ঝোলানো হয়। শ্রমমন্ত্রী মলয় ঘটক বলেন, ‘‘শ্রমিকদের স্বেচ্ছাবসরে জোর করা হলে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলব। কারখানা ফের চালুর প্রসঙ্গেও কথা বলেছি।’’ সিটুর তরফে নোটিসের বিরোধিতা করে কারখানা খোলার আর্জি জানিয়ে কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।  সি কে বিড়লা গোষ্ঠী পরিচালিত রাজ্যের একমাত্র মোটরগাড়ি কারখানাটিতে উৎপাদন বন্ধ হয় ২০১৪ সালে। তখন ২২০০ শ্রমিক কাজ করতেন। তাঁরা কারখানা খোলা ও বকেয়া মেটানোর দাবি তোলেন। কাঁচামাল সরবরাহকারী সংস্থাগুলিও বকেয়ার জন্য দরবার শুরু করে। ওই দাবিতে দিল্লি ও কলকাতা হাইকোর্টে মামলাও হয়। সংশ্লিষ্ট সূত্রে খবর, বছর কয়েক আগে এক পাওনাদার সংস্থাকে টাকা মেটাতে দিল্লি হাইকোর্টে কারখানা কর্তৃপক্ষ জমি বিক্রির আর্জি জানান।