এ বারও ঋণনীতিতে সুদ কমায়নি রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। তার জেরে বুধবার পড়ল শেয়ার বাজার। এ দিন সেনসেক্স ২০৫.২৬ পয়েন্ট পড়ে থামে ৩২,৫৯৭.১৮ অঙ্কে। নিফ্‌টি পড়েছে ৭৪.১৫ পয়েন্ট। বাজার বন্ধের সময় তা থিতু হয় ১০,০৪৪.১০ অঙ্কে। ডলারের সাপেক্ষে টাকার দামও ১৪ পয়সা পড়েছে। প্রতি ডলারের দাম দাঁড়িয়েছে ৬৪.৫২ টাকা।

গত কয়েক দিন ধরেই সংশোধনের পালা চলছে বাজারে। বুধবার তাতেই ইন্ধন জুগিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের ঋণনীতি। তারা রেপো রেট আগের মতোই ৬ শতাংশেই ধরে রেখেছে। বাজার মহলের ধারণা, সুদ অদূর ভবিষ্যতে কমার সম্ভাবনা নেই। তাই লগ্নিকারীদের মধ্যে এই দিন সুদের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত শিল্প সংস্থার শেয়ার বিক্রির হিড়িক পড়ে যায়। যার ফলে ব্যাঙ্কের সূচক কমেছে ১.২৩%। পড়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক, এইচডিএফসি ব্যাঙ্ক-সহ বিিভন্ন ব্যাঙ্কের শেয়ার দর। বেশ কিছু গাড়ি নির্মাতা সংস্থার শেয়ারের দামের মুখও এ দিন ছিল নীচের দিকেই।

পতনে রসদ জুগিয়েছে বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলি শেয়ার বিক্রিও। গত দুই দিনেই ওই সব সংস্থা ২,৬৮৭ কোটি টাকার শেয়ার বিক্রি করেছে। ভারতীয় আর্থিক সংস্থাগুলি ওই দুই দিনে শেয়ার কিনেছে ২০৬৯ কোটির। 

ঋণনীতি অন্যতম কারণ হলেও, এ দিনের পতনকে সংশোধন হিসাবেই দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের মধ্যে অধিকাংশই এই পতনকে বাজারের পক্ষে ভাল বলে উল্লেখ করেছেন।

গত কয়েক মাস ধরেই শেয়ারের দর রকেট গতিতে উঠেছে। এই উত্থান স্বাভাবিক বলে মানতে পারছিলেন না বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের মতে, সংস্থার মুনাফা, দেশের আর্থিক হাল ইত্যাদির সঙ্গে সূচকের ওই উত্থান সামঞ্জস্যপূর্ণ ছিল না। তাই সাম্প্রতিক পতনকে তাঁরা স্বাগত জানিয়েছেন।