ঋষির টুইটের চোটে, নেটিজেনরা আজকাল তাঁকে ‘মিস্টার কন্ট্রোভার্সি’ কপূর নাম দিয়েছে। এ বার তাঁর ‘টুইটাস্ত্র’-র খোঁচা খেয়েছেন রাহুল গাঁধী। কেন জানেন তো?

রাহুল গাঁধী মঙ্গলবার বার্কলেতে ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে বক্তৃতা দিতে গিয়ে বলেছেন,  ‘‘সারা ভারতে সর্বক্ষেত্রে পরিবারতন্ত্রের দাপট। রাজনীতি থেকে ব্যবসা,  এমনকী বলিউড— সব জায়গাতেই পরিবারতন্ত্রের দাপট রয়েছে।’’

এ প্রসঙ্গে রাহুলের মুখে উঠে এসেছে অখিলেশ যাদব, স্ট্যালিন(ডিএমকে) থেকে বলিউডের অভিষেক বচ্চনের নামও। ছাড়েননি ব্যবসায়ী অম্বানিদেরও।

আরও পড়ুন, ‘রাজ কপূরের বায়োপিক হলে ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই আঘাত পাবেন’

আরও পড়ুন, জর্ডন সফর নিয়ে ট্রোলিংয়ের উত্তরে কী বললেন প্রিয়ঙ্কা

ব্যস! আর যাবেন কোথায়!

আসলে, পরিবারতন্ত্র প্রসঙ্গে বলিউডকে জড়ানোতেই বেজায় চটেছেন ঋষি। একাধিক টুইট করে প্রবীণ অভিনেতার মন্তব্য, ‘‘কপূর খানদান বলিউডে পরিবারতন্ত্রের অন্যতম সফল উদাহরণ। কারণ, এই বংশের প্রজন্মের পর প্রজন্ম নিজেদের কৃতিত্বে মানুষের সম্মান অর্জন করেছে।’’

 

এখানেই থামেননি ঋষি। লিখেছেন, ‘‘ভারতীয় সিনেমার বয়স ১০৬ বছর, তার মধ্যে ৯০ বছর ধরে কপূর খানদানের সদস্যরা এখানে দাপটের সঙ্গে কাজ করছেন। সবটাই নিজেদের গুণে।’’

এরই সঙ্গে রাহুলকে ঋষির খোঁচা, ‘‘পরিবারতন্ত্রকে সামনে রেখে সকলকে বদনাম করার প্রবণতা সঠিক নয়। মানুষের সম্মান গুন্ডাগিরি বা জবরদস্তি করে পাওয়া যায় না।’’

যদিও ঋষির ‘টুইটাস্ত্র’র খোঁচায় কংগ্রেস সহ-সভাপতি কতটা ব্যথা পেয়েছেন তা জানা যায়নি।