বর্ষবরণে জাতির উদ্দেশে দেওয়া বক্তৃতায় তিনি চমকে দিয়েছিলেন গোটা বিশ্বকে। জানিয়েছিলেন, চিরকালীন প্রতিদ্বন্দ্বী দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক শোধরাতে চান। তাই দক্ষিণে হতে চলা শীতকালীন অলিম্পিকসে যোগ দেবে তাঁর দেশও। আগামী শুক্রবার থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার পিয়ংচাংয়ে বসছে সেই অলিম্পিকসের আসর। আর সেখানকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নিজের বোনকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার একনায়ক কিম জং-উন। পিয়ংইয়ংয়ের তরফে আজ এ কথা জানানো হয়েছে।

আগামী শুক্রবার তিন দিনের সফরে দক্ষিণ কোরিয়া আসছেন কিমের নিজের বোন কিম ইয়ো-জং। দক্ষিণের প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইনের সঙ্গে দেখা করার কথা রয়েছে তাঁর। সঙ্গে আনছেন কিমের নিজের লেখা একটি বার্তাও। ইয়ো-র সঙ্গেই দক্ষিণে আসছে উত্তর কোরিয়ার একটি শীর্ষ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল।

দুই কোরিয়ার ইতিহাসে এই প্রথম উত্তর কোরিয়ার শাসক পরিবারের কেউ দক্ষিণে যাচ্ছেন। তবে ইয়ো-র দক্ষিণ কোরিয়া সফরের জন্য সোলকে আমেরিকার কাছ থেকে ‘অনুমতি’ নিতে হবে কি না, সে নিয়ে তৈরি হয়েছে নতুন জটিলতা। মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স উত্তর কোরিয়ার উপর আরও কড়া আর্থিক নিষেধাজ্ঞা জারির হুঁশিয়ারি দিয়ে বুধবারই বলেছেন, ‘‘শীতকালীন অলিম্পিকস কিছুতেই ‘অপহরণ’ করতে পারবে না পিয়ংইয়ং।’’