হেলে প্রায় মাটিতে শুয়ে পড়েছে উঁচু বহুতল। কোথাও দুমড়ে গিয়েছে কংক্রিটের ছাদ, কোথাও বা উঁচু দাঁতের মতো বেরিয়ে রয়েছে লোহার বিম। সারি বেঁধে রাস্তায়, ফুটপাথে আশ্রয় নিয়েছে আতঙ্কিত মুখগুলো।

দৃশ্যটা তাইওয়ানের পূর্ব উপকূল সংলগ্ন হুয়ালিয়েন-এর। মঙ্গলবার মধ্যরাতে রাতে ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছিল শহর। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৬.৪। পরে গোটা রাত ধরে চলে আফটার শকের ধাক্কা। হেলে পড়ে একটি ১২ তলা আবাসন ও হোটেল-সহ ছ’টি বহুতল।

এখনও পর্যন্ত ৬ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। জখম অন্তত ২৫৬ জন। নিখোঁজ ৮৮। জাপানের বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের খবর, জখমদের মধ্যে ৯ জন জাপানের বাসিন্দা। ৬ চিনের মূল ভূখণ্ডের ৬ অধিবাসীও  আহতদের তালিকায় আছেন। এখনও বিপ়জ্জনক অবস্থায় আটকে রয়েছেন অনেকে।

সারা বছরই হুয়ালিয়েন জুড়ে পর্যটকদের ভিড় থাকে। মঙ্গলবার ভূমিকম্পের জেরে বিপজ্জনক ভাবে হেলে পড়ে পর্যটক-ভর্তি একটি হোটেল। মারা গিয়েছেন হোটেলের দুই কর্মী। ভূমিকম্পের জেরে ব্যাহত হয়েছে জল ও বিদ্যুৎ পরিষেবা।

আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না ‘য়ুন সুই’ আবাসনের বাসিন্দা বছর আশির চেন চিহ-উইয়ের। বহুতলের একেবারে উপরের তলায় থাকতেন তিনি।
ঘরে ঘুমোচ্ছিলেন। হঠাৎই সমস্ত জিনিস দুদ্দাড় করে পড়তে থাকে। বিপজ্জনক ভাবে হেলে গিয়েছে গোটা বাড়িটাই। বারান্দা দিয়ে কোনও মতে বেরোনোর চেষ্টা করেন তিনি। শেষমেশ দমকলকর্মীদের তৎপরতায় প্রাণ বাঁচে বৃদ্ধর।