সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের বিদ্রোহে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর সুযোগ পেয়েই আসরে নামলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী।

চার বিচারপতির বিদ্রোহের অন্যতম কারণ বিচারক লোয়ার মৃত্যুর প্রসঙ্গ। সেটা উঠতেই রাহুল আজ পি চিদম্বরম, কপিল সিব্বল, সলমন খুরশিদ, মণীশ তিওয়ারির মতো দলের আইনজীবী নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পরে বলেন, ‘‘বিচারপতিরা বলেছেন, এটা গণতন্ত্রের কাছে বিপদ। এই ধরনের ঘটনা আগে কখনও হয়নি। বিচারপতি লোয়ার মামলাটি সুপ্রিম কোর্টের শীর্ষ স্তরে তদন্ত করে দেখা উচিত।’’ সিট গঠন করে লোয়া-মৃত্যুর তদন্ত চায় কংগ্রেস।

কেন বিচারক লোয়ার মামলাটি এত গুরুত্বপূর্ণ? সোহরাবুদ্দিন ভুয়ো সংঘর্ষ মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত হিসেবে নাম ছিল অমিত শাহের। সেই মামলার বিচারক লোয়ার অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তোলে তাঁর পরিবার। তদন্ত চেয়ে জনস্বার্থ মামলা হয় সুপ্রিম কোর্টে। প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র মামলাটি শুনানির দায়িত্ব বিচারপতি অরুণ মিশ্রের বেঞ্চকে দিতেই আপত্তি তোলেন চার প্রবীণ বিচারপতি।

বিদ্রোহী বিচারপতিরা লোয়ার কথা তুলতেই হাতিয়ার পেয়ে যান রাহুল। অমিত শাহের নাম না করলেও নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুলে ঘুরপথে উস্কে দিয়েছেন বিতর্ক। ফলে অনেকটাই ব্যাকফুটে বিজেপি। রাতে দলের তরফে আনুষ্ঠানিক ভাবে মুখ খুলে সম্বিত পাত্র বলেন, ‘‘কংগ্রেস একের পর এক ভোটে জেতার সুযোগ হারিয়েছে। এখন এমন জায়গায় রাজনীতির সুযোগ খুঁজছে, যেটা বিচারব্যবস্থার অভ্যন্তরীণ বিষয়।’’