আধার কার্ড মামলায় ফের সুপ্রিম কোর্টের ভর্ৎসনার মুখে পড়ল কেন্দ্রীয় সরকার। আধার কার্ড করানো প্রত্যেক নাগরিকের জন্য বাধ্যতামূলক নয় বলে দেশের সর্বোচ্চ আদালত জানিয়ে দেওয়া সত্ত্বেও কী ভাবে প্যান কার্ডের জন্য আধারকে বাধ্যতামূলক বলে ঘোষণা করল সরকার? অত্যন্ত বিরক্ত হয়ে সুপ্রিম কোর্ট শুক্রবার এই প্রশ্ন করল অ্যাটর্নি জেনারেল মুকুল রোহতগিকে। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে মুকুল রোহতগি জানান, কালো টাকার রমরমা রুখতে আধার বাধ্যতামূলক করা জরুরি। কিন্তু সর্বোচ্চ আদালত সেই যুক্তি মানতে রাজি হয়নি।

সুপ্রিম কোর্ট এ দিন অত্যন্ত বিরক্তি প্রকাশ করেছে সরকারের সিদ্ধান্তে। —ফাইল চিত্র।

গত মাসেই সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছিল, সরকারের সামাজিক সুরক্ষা প্রকল্পগুলির সুবিধা পাওয়ার জন্য কোনও নাগরিকের কাছে আধার কার্ড থাকা বাধ্যতামূলক নয়। তবে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলা, মোবাইল সংযোগ নেওয়া বা পাসপোর্টের জন্য আধারকে বাধ্যতামূলক করা যেতে পারে বলে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছিল। কিন্তু সরকার নতুন প্যান কার্ড তৈরি, পুরনো প্যান কার্ডৈর বৈধতা বজায় রাখা এবং আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার জন্যও আধার বাধ্যতামূলক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এতেই দেশের সর্বোচ্চ আদালত বিরক্তি প্রকাশ করেছে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ সত্ত্বেও এই সিদ্ধান্ত কী ভাবে নিল সরকার? প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে অ্যাটর্নি জেনারেলকে।

আরও পড়ুন: বাবরি-মামলায় দলেই ক্ষোভ মোদীকে ঘিরে

মুকুল রোহতগি সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছেন, অনেক অসাধু ব্যক্তি একাধিক প্যান কার্ড ব্যবহার আয়কর ফাঁকি দিচ্ছেন। আধারকে বাধ্যতামূলক ঘোষণা না করলে এই ফাঁকি রোখা যাবে না।