হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের নেতা বছর পঁয়তাল্লিশের বিপান শর্মাকে প্রকাশ্যে গুলি করে খুন করেছিল দুষ্কৃতীরা। গত ৩০ অক্টোবর অমৃতসর-বাতালা রোডের উপর জনবহুল ভারতনগর এলাকার এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

ঘটনার পর থেকেই পলাতক মূল অভিযুক্ত স্বরাজ সিংহ মিন্টো ও তার দুই সঙ্গী শুভম সিংহ ও ধর্মেন্দ্র সিংহ। এরই মধ্যে মঙ্গলবার ফেসবুকে পোস্ট খুনের কথা স্বীকার করলেন স্বরাজ সিংহ। ওই তিন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগে তদন্ত শুরু করেছে অমৃতসর পুলিশ।

নিজের ফেসবুক পোস্টে স্বরাজ সিংহ লিখেছেন, ‘‘বন্ধুদের জানাতে চাই, আমিই খুন করেছি বিপান শর্মাকে। গত ৩০ অক্টোবর তাঁকে খুন করি আমি। তবে এই ঘটনার সঙ্গে কোনও ধর্মীয় যোগ নেই।’’

ফেসবুক পোস্টটি সামনে আসার পরই নড়েচড়ে বসেছে অমৃতসর পুলিশ। এক শীর্ষ পুলিশ কর্তা চরণজিৎ সিংহ এনিডিটিভিকে জানিয়েছেন, ‘‘পোস্টটি আমরা দেখেছি। বিষয়টি নিয়ে খোঁজ খবর করা হচ্ছে। পোস্টটি কে, কোথা থেকে করেছেন সেই বিষয়টি দেখার জন্য সাইবার সেলকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’’

আরও পড়ুন: শিমলায় সিপিএম!

সূত্রের খবর, খুনের দিন ভারতনগর এলাকায় একটি দোকানের বাইরে বন্ধুদের সঙ্গে দাঁড়িয়েছিলেন হিন্দু সংঘর্ষ সেনার জেলা প্রধান বিপান শর্মা। সেই সময়ই চার দুষ্কৃতী তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। প্রায় ১২টি বুলেট তাঁর শরীরে বিঁধে যায়। এর পর দুষ্কৃতীরা মোটর সাইকেলে করে পালিয়ে যায়। ঘটনার পরই অমৃতসরের পুলিশ কমিশনার এস এস শ্রীবাস্তব জানান, এলাকার সিসিটিভিতে পুরো ঘটনা ধরা পড়েছে। ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। সেই মতো শুরু হয় তদন্ত।

আরও পড়ুন: আইনি জয় গঙ্গার, তৃতীয় লিঙ্গের প্রথম কনস্টেবল পেল রাজস্থান

হত হিন্দুত্ববাদী নেতার আত্মীয় ও বন্ধুদের দাবি, সম্প্রতি তিনি পুলিশের কাছে নিরাপত্তার আর্জি জানিয়েছিলেন। অপারেশন ব্লু স্টারের বার্ষিকীর বিরুদ্ধে সরব ছিলেন তিনি। এ জন্যই শর্মা নিরাপত্তার আর্জি জানিয়েছিলেন। কিন্তু, আবেদন মতো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ পরিবারের।