শ্রীনগরের নওগাঁয়ে নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে লস্কর-ই-তৈবা জঙ্গি আবু ইসমাইল বৃহস্পতিবার নিহত হয়েছে। আবুই গত জুলাইয়ে অমরনাথ তীর্থযাত্রীদের ওপর জঙ্গি হামলার মাস্টারমাইন্ড ছিল বলে পুলিশের ধারণা। ওই হামলায় ৮ তীর্থযাত্রী প্রাণ হারিয়েছিলেন। নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে এ দিন আরও এক জঙ্গি নিহত হয়েছে।

২৬ বছর বয়সী আবু ছিল পাকিস্তানের নাগরিক। নাশকতামূলক কাজকর্ম করতে বছরদু’য়েক আগে সীমান্ত পেরিয়ে আবু ঢুকে পড়েছিল ভারতে।

আরও পড়ুন- ‘এমন আতঙ্কের অসুখে কাশ্মীরিদের আগে কখনও ভুগতে দেখিনি’

আরও পড়ুন- পরমাণু বিদ্যুত্ নিয়ে ভয়টা অযথা, একান্ত সাক্ষাত্কারে পরমাণু শক্তি সচিব

পুলিশ জানাচ্ছে, গত জুলাইয়ে গুজরাত ও মহারাষ্ট্র থেকে আসা অমরনাথ তীর্থযাত্রীদের একটি বাসে বড়সড় হামলা চালানোর পর আবু উপত্যকায় লস্কর-ই-তৈবার সংগঠন প্রসারেও বড় ভূমিকা নিয়েছিল। সম্প্রতি দক্ষিণ কাশ্মীরে পুলিশ, নিরাপত্তাকর্মী সহ সাধারণ মানুষের ওপর জঙ্গি হামলার ঘটনাগুলিতেও জড়িত ছিল আবু। গত মাসে কাশ্মীরে লস্কর-ই-তৈবার প্রধান আবু দুজানা নিহত হওয়ার পর আবুই ছিল ওই জঙ্গি সংগঠনের শীর্ষ দায়িত্বে।