বিরক্তির মাথায় নাকি নিছকই একটা ‘মজা’ করতে চেয়েছিলেন। তবে যা ঘটালেন তা কেলেঙ্কারি। বিমানে বসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে টুইট করেন, মুম্বই-দিল্লিগামী যে বিমানে তিনি রয়েছেন, সেটা মনে হচ্ছে হাইজ্যাক হয়ে গিয়েছে! আর এই টুইটকে ঘিরেই তুলকালাম হয়ে গেল জয়পুর বিমানবন্দরে।

ঘটনাটা ঠিক কী হয়েছিল?

মুম্বই থেকে জেট এয়ারওয়েজের একটি বিমান ১৭৬ জন যাত্রী নিয়ে দিল্লি যাচ্ছিল। বিমান সংস্থা সূত্রে খবর, দিল্লিতে আবহাওয়া খারাপ থাকার জন্য জেটের ৯ডব্লিউ৩৫৫ বিমানটি নামতে পারছিল না। সে কারণে বিমানটিকে জয়পুর বিমানবন্দরের দিকে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। ওই বিমানেই ছিলেন নিতিন বর্মা নামে এক যাত্রী। পুলিশ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তিই প্রধানমন্ত্রীকে টুইট করেন। নিতিনের এই টুইট প্রধানমন্ত্রীর দফতরে পৌঁছনো মাত্রই এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়া, এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল এবং নিরাপত্তা সংস্থাগুলিকে সতর্ক করে দেওয়া হয়। বিমানটি জয়পুর বিমানবন্দরে নামামাত্রই নিতিনকে আটক করে নিরাপত্তা সংস্থার কর্মীরা। তাঁকে জেরা করা হয়।

আরও পড়ুন: বৃদ্ধাশ্রমে না যেতে চাওয়ায় মাকে ইট দিয়ে থেঁতলে খুন করল ছেলে!

কিন্তু কেন এমন কাণ্ড ঘটালেন নিতিন?

তাঁর অভিযোগ, মুম্বই থেকে এমনিতেই বিমান তিন ঘণ্টা দেরিতে ছেড়েছিল। তার উপর বিমান দিল্লিতে না নেমে সোজা জয়পুরে নামল! দেরি হওয়ায় ক্ষোভের বশেই তিনি টুইট করেন প্রধানমন্ত্রীকে। টুইটে তিনি লেখেন, “গত ৩ ঘণ্টা ধরে জেট এয়ারওয়েজের বিমানে আছি। মনে হচ্ছে বিমানটি হাইজ্যাক হয়েছে। দয়া করে সাহায্য করুন।” 

বিমানটি জয়পুর বিমানবন্দরে নামার পর তল্লাশি চালিয়ে ফের দিল্লির উদ্দেশে রওনা করে দেওয়া হয়।