শুধু প়ড়শি রাজ্য পঞ্জাব-হরিয়ানাই নয়, দিল্লির দূষণে দায়ী পশ্চিম এশিয়ার কয়েকটি দেশও! এমনটাই দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা।

কালই নাসা-র তরফে জানানো হয়েছিল, পঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকরা ফসলের গোড়া জ্বালিয়ে দেন। তার জেরেই দিল্লির বাতাসে দূষণের মাত্রা বেড়ে গিয়েছে। বিজ্ঞানীরা আবার বলছেন, বছরের এই সময়টা কুয়েত, সৌদি আরব, ইরানের মতো দেশগুলো থেকে ধুলো বয়ে আনে হাওয়া। ধুলো-সহ ওই বাতাস পাকিস্তানের উপর দিয়ে আসার সময় জলকণা সংগ্রহ করে কুয়াশার আকার ধারণ করে তা পঞ্জাব-হরিয়ানায় ঢোকে। সেখানে ফসলের খেতে আগাছা পোড়ানো হলে সেই ধোঁয়ার সঙ্গে মিশে বাতাসের পুরু চাদর হয়ে দিল্লি ও তার আশপাশের এলাকায় ছড়ায়। এর পর দিল্লিতে রাতের তাপমাত্রায় বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ বাড়লে গোটা রাজ্যে ঢাকা পড়ে ধোঁয়াশায়।

পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের সরকারও একই বিষয় নিয়ে অমরেন্দ্রর উদ্দেশে বার্তা দিয়েছে। পঞ্জাব প্রদেশ সরকারের পক্ষে টুইটারে বলা হয়েছে, তারা তাদের এলাকায় ফসলের গোড়া জ্বালানো নিষিদ্ধ করেছেন। অমরেন্দ্র সিংহও যাতে পঞ্জাবে এমন ব্যবস্থাই করেন সেই আর্জি জানানো হয়েছে।