ঘাড়ে ও গলায় দাগ দেখে সন্দেহ হয় তদন্তকারী অফিসারদের। পরিবারের লোকেদের জেরা শুরু করেন তাঁরা। জেরার মুখে ভেঙে পড়েন বাবা-মা। আর তাতেই সামনে এল মাদুরাইয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রীর মৃত্যুর আসল কারণ। আত্মহত্যা বদলে গেল খুনে।

মাদুরাইয়ের কিলাভানেরি গ্রামের ঘটনা। গত ৭ ডিসেম্বর অস্বাভাবিক মৃত্যু হয় বছর ষোলোর এক কিশোরীর। মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশকে জানানো হয়, দশম শ্রেণীর পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় কীটনাশক খেয়ে আত্মঘাতী হয়েছে সে। কিন্তু মাদুরাইয়ের সরকারী হাসপাতালে ময়নাতদন্তের পর সামনে আসে আসল ঘটনা। জানা যায়, বিষক্রিয়ায় নয়, শ্বাসরোধের ফলে মেয়েটির মৃত্যু হয়েছে। এর পরই মেয়েটির বাবা-মা পুলিশি জেরায় খুনের কথা স্বীকার করেন।

আরও পড়ুন: হোয়াট‌্সঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে দারুণ বার্তা দিলেন  মুম্বইয়ের তরুণী

কেন মেয়েকে এ ভাবে খুন করলেন তাঁরা?

জেরার মুখে মৃতার বাবা-মা জানান, গ্রামের বহু ছেলের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিল তাঁদের মেয়ে। এতে পরিবারের বদনাম হচ্ছিল। অনেক বুঝিয়েও ফল হয়নি। তাই পরিবারের সম্মান বাঁচাতেই মেয়েকে খুন করার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। এর পরই মৃতার বাবা-মা’কে গ্রেফতার করে পুলিশ। আদালত অভিযুক্তদের ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে।