রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী নিয়ে ‘ঐকমত্য’ গড়ে তোলার লক্ষ্যে কমিটি গড়লেন অমিত শাহ। এনডিএ শরিকদের ও বিরোধী দলগুলির সঙ্গে কথা বলবে এই কমিটি। এতে রয়েছেন  রাজনাথ সিংহ, অরুণ জেটলি ও বেঙ্কাইয়া নায়ডু। বিরোধীদের তরফে প্রার্থী ঠিক করতে সীতারাম ইয়েচুরি, ডেরেক ও’ব্রায়েন-সহ ১০ সদস্যের গোষ্ঠী বৈঠকে বসবে আগামী বুধবার।

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে পদক্ষেপ করতে গত কালই অরুণাচল সফর বাতিল করেছিলেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। তিনি আজ সারাদিন বিজেপি দফতরে বসে দফায় দফায় বৈঠক করেন। কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে। দলীয় সূত্রে বলা হচ্ছে, এ মাসের শেষে মোদীর বিদেশ সফর রয়েছে। তার আগেই রাষ্ট্রপতি পদের প্রার্থী বাছাই হয়ে যাবে। তার জন্যে কেন এই তিন সদস্যের কমিটি?

দলের বক্তব্য, এই তিন শীর্ষ-স্থানীয় মন্ত্রী তথা ওজনদার নেতার সঙ্গে বিভিন্ন দলের সম্পর্ক ভাল। মোদী-শাহ নিজেদের মধ্যে প্রার্থী স্থির করে রাখলেও বিজেপি দেখাতে চায়, গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতেই প্রার্থী বাছাই করছে। পাছে বিরোধীরা ঔদ্ধত্যের অভিযোগ তোলে। তার উপরে শরিক শিবসেনাও রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে বেসুরো বাজছে। শরিক ও বন্ধু দলগুলিও যাতে সঙ্গে থাকে, সেটিও সুনিশ্চিত করতে চান বিজেপি নেতৃত্ব।

কমিটি গড়ার পিছনে দলের  অন্দরের রাজনীতিও আছে। বেঙ্কাইয়া নিজেই রাষ্ট্রপতি পদের দৌড়ে থাকতে চেয়েছিলেন। প্রার্থী বাছাই কমিটিতে রেখে তাঁকে সুকৌশলে দৌড় থেকে সরিয়ে দিলেন অমিত শাহ। 

আরও পড়ুন: ‘রেকর্ড’ গড়েই অবসর নিলেন বিচারপতি কারনান