রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য ভোটগ্রহণ শেষ হল। সংসদের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজ্যের বিধানসভাতেও চলে ভোটদান। এ দিন বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। আনুষ্ঠানিক ভাবে এনডিএ প্রার্থী রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে বিরোধী প্রার্থী মীরা কুমারের মধ্যে লড়াই হলেও, অঙ্কের হিসেবে কিন্তু কোবিন্দই এগিয়ে। প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, শতাংশের হিসেবে কোবিন্দের পক্ষে প্রায় ৬২ শতাংশ ভোট পড়তে পারে।

এ দিন থেকেই শুরু হয়েছে সংসদের বাদল অধিবেশেন। সকালেই সংসদে প‌ৌঁছে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রথম ভোট দেন তিনিই। পরে ভোট দেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উমা ভারতীরা। পাশাপাশি ভোট দিয়েছেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক, মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান, অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালও।

আরও পড়ুন: জিএসটি দেশকে আরও শক্তিশালী করবে, বাদল অধিবেশনে বার্তা মোদীর

সংসদের ১৬ নম্বর ঘরে হয় ভোটগ্রহণ। সারা দেশে মোট ৩২টি জায়গায় চলে ভোটগ্রহণ। বৃহস্পতিবার এই নির্বাচনের ফল জানা যাবে। ২৪ জুলাই বর্তমান রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। এর পর শপথ গ্রহণ করবেন পরবর্তী রাষ্ট্রপতি।

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন শুরু হতেই অবশ্য ফের প্রকাশ্যে এসেছে মুলায়ম সিংহ যাদব এবং অখিলেশ যাদবের মধ্যে মতপার্থক্য। বিজেপির রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী রামনাথ কোবিন্দকেই ভোট দিয়েছেন মুলায়ম। যদিও বিরোধী প্রার্থী মীরা কুমারকে ভোট দেওয়ার জন্য সপা বিধায়কদের নির্দেশ দেন অখিলেশ। অন্য দিকে, এনসিপি নেতা প্রফুল পটেলের দাবি, তাঁদের দলের সব সাংসদ ও বিধায়ক মীরাকে ভোট দেন।