আই লিগের দ্বিতীয় ডিভিশনে মহমেডানের কোচ থাকছেন বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য-ই। সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন ক্লাবকর্তারা। ফুটবলার বাছাইয়ের কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহেই কোচের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন তিন বিদেশি নির্বাচনের জন্য। মহমেডানের মাঠ সচিব কামারুদ্দিন সোমবার বললেন, ‘‘কলকাতা লিগে বিশ্বজিৎ ভাল ফল করেছিলেন। সে জন্যই তাঁকে ফের দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। আমরা ভাল তিন জন বিদেশির খোঁজ করছি। কোচের সঙ্গে কয়েক দিনের মধ্যেই বসে সব ঠিক করব।’’ প্রেসিডেন্টের মৃত্যুর পর এমনিতে শতাব্দী প্রাচীন ক্লাবে অস্তিত্বের সঙ্কট। তার মধ্যেই কয়েক জন কর্তা মিলে ব্যক্তিগত ভাবে টিম তৈরি করতে উদ্যোগী হয়েছেন।

কিন্তু বাস্তব ঘটনা হল, কলকাতা লিগে বিশ্বজিৎ যে ফুটবলারদের নিয়ে চমকে দিয়েছিলেন, সেই দলের প্রায় সব তারকাই চলে গিয়েছেন আই লিগের প্রথম ডিভিশনের বিভিন্ন ক্লাবে। পড়ে থাকা ১২ ফুটবলারের সঙ্গে আর কাকে পাওয়া যাবে তা নিয়ে চিন্তায় কোচ নিজেই। বিশ্বজিৎ বলছিলেন, ‘‘দায়িত্ব তো নেব, কিন্তু ভাল ফুটবলার কোথায়? যাঁদের নিয়ে লড়াই করা যাবে। আমি মহমেডানকে আই লিগের প্রথম ডিভিশনে তুলেছিলাম। এ বারও সেই লক্ষ্য থাকবে।’’ শোনা যাচ্ছে, রহিম নবি, দীপক মণ্ডলদের মতো ফুটবলারদের নাম ঘোরাফেরা করছে।       

ফেব্রুয়ারির শেষে শুরু হচ্ছে লিগ। নতুন চেহারায়। মোট ২০ দল খেলবে সেখানে। এর মধ্যে সাতটি দল আবার ইন্ডিয়ান সুপার লিগের। এটিকে অবশ্য নাম তুলে নিয়েছে। এএফসি-র ক্লাব লাইসেন্সিং পরীক্ষায় পাশ করার পর কুড়ি দলকে চারটি গ্রুপে ভাগ করে হোম-অ্যাওয়ে হিসাবে খেলানো হবে। প্রতিটি গ্রুপ থেকে একটি করে দল শেষ চারে উঠবে। তবে আইএসএলের কোনও দল যদি গ্রুপ শীর্ষে থাকে, তা হলে তাদের সেমিফাইনালে খেলতে দেওয়া হবে না। সে ক্ষেত্রে গ্রপের দ্বিতীয় দল পরের পর্বে যাবে।